লকডাউনে কলকাতায় বাড়ছে ‘চাইল্ড পর্নোগ্রাফি’ দেখার প্রবণতা ! চাঞ্চল্যকর রিপোর্ট ICPF-র

লকডাউনে কলকাতায় বাড়ছে ‘চাইল্ড পর্নোগ্রাফি’ দেখার প্রবণতা ! চাঞ্চল্যকর রিপোর্ট ICPF-র

Representational Image

Indian Child Protection Fund (ICPF)-এর তরফে জানানো হয়েছে, করোনার জন্য ঘোষিত লকডাউনে কলকাতায় উল্লেখযোগ্য হারে বেড়েছে 'চাইল্ড পর্নোগ্রাফি' দেখার প্রবণতা। যাতে অন্য আশঙ্কাও এখন দেখা যাচ্ছে ৷

  • Share this:

    #কলকাতা: লকডাউনে গৃহবন্দি হয়ে থাকা ছাড়া এখন আর কোনও উপায় নেই ৷ গোটা পৃথিবীর ছবিটা এখন একইরকম ৷ লকডাউনে বাড়িতে হয়তো কাজ কম ৷ জীবনে আসছে একঘেয়ামি ৷ বারান্দায় বা  বড়জোর ছাদে যাওয়া ছাড়া আর কোনও বিকল্প  নেই মানুষের কাছে ৷ যাদের অফিসে ‘ওয়ার্ক ফ্রম হোম’-ও নেই ৷ তারা এখন করছেন কী তাহলে ? সম্প্রতি একটি সমীক্ষায় ধরা পড়েছে লকডাউনে মানুষের ‘মানসিক বিকৃতি’-র দিকটাও ৷ Indian Child Protection Fund (ICPF)-এর তরফে জানানো হয়েছে, করোনার জন্য ঘোষিত লকডাউনে কলকাতায় উল্লেখযোগ্য হারে বেড়েছে 'চাইল্ড পর্নোগ্রাফি' দেখার প্রবণতা। যাতে অন্য আশঙ্কাও এখন দেখা যাচ্ছে ৷ সেটা হল শিশুদের উপর ‘যৌন নিপীড়ন’-এর আশঙ্কা !

    পর্নোগ্রাফি তো বটেই ৷ কিন্তু উল্লেখযোগ্যভাবে এই লকডাউন পিরিয়ডে বেড়েছে ‘চাইল্ড পর্নোগ্রাফি’ বা ‘টিন সেক্স ভিডিও’স দেখার প্রবণতা ৷ যা যথেষ্ট অবাক করার মতোই তথ্য ৷ বিশ্বের বেশ কিছু জনপ্রিয় পর্নসাইট ভারতেই সবচেয়ে বেশি দেখা হচ্ছে ৷ লকডাউনে ঘরে বসে অনেকেই দিন রাত পর্ন ভিডিও বা নীল ছবি দেখছেন ৷ রিপোর্ট অনুযায়ী, দিল্লি, চেন্নাই, মুম্বই, কলকাতা, ভুবনেশ্বরের মতো অনেক শহরেই  চাইল্ড পর্নোগ্রাফির চাহিদা সবচেয়ে বেশি।

    ‘পর্নহাব’ ওয়েবসাইটটি তাদের সমীক্ষার রিপোর্টে জানিয়েছে, এই লকডাউনের মধ্যে ফ্রান্সে পর্ন দেখার প্রবণতা বেড়েছে ৪০ শতাংশ, জার্মানিতে ২৫ শতাংশ, আমেরিকায় ২৬ শতাংশ, ইতালিতে ৫৫ শতাংশ, রাশিয়াতে ৫৫ শতাংশ, স্পেনে ৬০ শতাংশ। আর ভারতে ৯৫ শতাংশ !

    Published by:Siddhartha Sarkar
    First published:

    লেটেস্ট খবর