corona virus btn
corona virus btn
Loading

দিনভর হাসপাতালে ঘুরে মেলেনি চিকিৎসা, করোনা আক্রান্ত ইছাপুরের তরুণের মৃত্যুতে অভিযোগ দায়ের

দিনভর হাসপাতালে ঘুরে মেলেনি চিকিৎসা, করোনা আক্রান্ত ইছাপুরের তরুণের মৃত্যুতে অভিযোগ দায়ের

ইছাপুরের বাসিন্দা বছর ১৮-র যুবকের মৃত্যুর ঘটনায় তদন্তে নামল পুলিশ।

  • Share this:

#কলকাতা: ইছাপুরের বাসিন্দা বছর ১৮-র যুবকের মৃত্যুর ঘটনায় তদন্তে নামল পুলিশ। করোনা সন্দেহে ছেলেকে শনিবার দিনভর একের পর এক সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতাল ফিরিয়ে দেয়। এমনকি প্রাথমিক চিকিৎসাটুকুও দেওয়া হয়নি। ফলে ১১ ঘণ্টা চরম কষ্ট পাওয়ার পর মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে সে। এই মর্মে রবিবার সকালে বেলঘড়িয়া থানায় এফআইআর দায়ের করেন মৃত সুপ্রতীক চট্টোপাধ্যায়ের বাবা-মা।

কামারহাটি সাগর দত্ত মেডিক্যাল কলেজ, বেলঘরিয়া রথতলা মিডল্যান্ড নার্সিংহোম এবং কলকাতা মেডিক্যাল কলেজের বিরুদ্ধে কর্তব্যে গাফিলতির অভিযোগে বেলঘড়িয়া থানায় এফআইআর দায়ের করেছেন তাঁরা। অভিযোগের তদন্তে নেমে মিডল্যান্ড নার্সিংহোমে যান পুলিশের আধিকারিকরা। সেখানে গতকাল ঠিক কী ঘটেছিল, সে বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে সংশ্লিষ্ট আধিকারিকদের।

করোনা আক্রান্ত সন্দেহে একের পর এক হাসপাতাল ছেলেকে ফিরিয়ে দিয়েছে,। কোনওরকম লাইফসাপোর্ট না দিয়ে ১২ ঘণ্টা ধরে শ্বাসকষ্ট হওয়ার পরেও ফেলে রেখেছিল সন্তানকে, তাতেই মৃত্যু হয়েছে তাঁর। এসব বলতে বলতেই এ দিন ফের কান্নায় ভেঙে পড়েন উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী একমাত্র সন্তানের মা শ্রাবণী  চট্টোপাধ্যায়। মৃত সন্তানের ময়না তদন্তের দাবি জানিয়েছেন বাবা-মা।

শ্রাবণী দেবী বলেন, "ক'দিন আগেও ছেলে বলেছিল মা উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় খুব ভাল ফল করব। টিভির পর্দায় আমাকে দেখা যাবে। আর এখন মৃত্যুর পরে ওঁর ছবি আমরা টিভি পর্দায় দেখতে পাচ্ছি"। চট্টোপাধ্যায় দম্পতির অভিযোগ, সকাল থেকে কলকাতা মেডিকেল কলেজে এসে একের পর এক ওয়ার্ডে হন্যে হয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছেন তাঁরা একমাত্র সন্তানের মুখ শেষবার দেখার জন্য। যদিও কখন তাঁরা ছেলের মুখ দেখতে পাবেন তা এখনও পর্যন্ত হাসপাতালে তরফ থেকে জানানো হয়নি।

ABHIJIT CHANDA

Published by: Shubhagata Dey
First published: July 12, 2020, 4:46 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर