যতটা ভাবা হয়েছিল, তার চেয়ে বেশি অ্যালার্জি দেখা দিচ্ছে ফাইজারের ভ্যাকসিন প্রয়োগে, জানাচ্ছে গবেষণা

যতটা ভাবা হয়েছিল, তার চেয়ে বেশি অ্যালার্জি দেখা দিচ্ছে ফাইজারের ভ্যাকসিন প্রয়োগে, জানাচ্ছে গবেষণা

ফাইজার-বায়োএনটেকের ভ্যাকসিন প্রয়োগে যা আশা করা হয়েছিল তার চেয়ে বেশি অ্যালার্জিজনিত পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিচ্ছে

ফাইজার-বায়োএনটেকের ভ্যাকসিন প্রয়োগে যা আশা করা হয়েছিল তার চেয়ে বেশি অ্যালার্জিজনিত পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিচ্ছে

  • Share this:

    #ওয়াশিংটন: আমেরিকার করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিনের অপারেশন ওয়ার্প স্পিড কর্মসূচির প্রধান বৈজ্ঞানিক উপদেষ্টা বলেছেন, ফাইজার-বায়োএনটেকের ভ্যাকসিন প্রয়োগে যা আশা করা হয়েছিল, তার  চেয়ে বেশি অ্যালার্জিজনিত পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিচ্ছে । আমেরিকান সংবাদসংস্থা  সিএনএন থেকে এই তথ্য মিলেছে৷

    মঙ্গলবার অপারেশন ওয়ার্প স্পিড কর্মসূচির প্রধান ড. মনসেফ স্লাওই ভ্যাকসিনের এই খারাপ দিকটি তুলে ধরেন৷ সর্বশেষ তথ্যে মিলেছে, ভ্যাকসিন গ্রহণকারীদের মধ্যে ৬ জন এই পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায় আক্রান্ত।

    উপদেষ্টা জানান, ভ্যাকসিন উৎপাদক ও ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অফ হেলথ মানবদেহে চরম এই ভ্যাকসিনের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল স্থগিত রাখার বিষয়ে আলোচনা করছেন। এসব অ্যালার্জিক মানুষের মধ্যে রয়েছেন যাঁরা নিয়মিত অ্যালার্জিনাশক ওষুধ এপিপেন গ্রহণ করছেন।

    এর আগে সোমবার আমেরিকার ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অফ অ্যালার্জি অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস-এর এক কর্মকর্তা জানান, ফাইজারের ভ্যাকসিন গ্রহণের পর কেন কিছু মানুষের গুরুতর অ্যালার্জি দেখা দিচ্ছে তা  খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

    সংস্থাটির অ্যালার্জি, অ্যাজমা ও এয়ারওয়ে বায়োলজি শাখার প্রধান আলকিস টগিয়াস সিএনবিসিকে বলেন, গুরুতর অ্যালার্জিতে আক্রান্ত হয়েছেন এমন কিছু ব্যাক্তিকে নিয়ে এই গবেষণা করা হবে৷

    ইতিমধ্যেই  সস্ত্রীক ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স ও প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি ভ্যাকসিন নিয়েছেন। সে তালিকায় যুক্ত হয়েছেন  জো বাইডেনও। ভ্যাকসিন নেওয়ার আগে বাইডেন জানান, ভ্যাকসিন নেওয়ার ক্ষেত্রে প্রথম সারিতে থাকার কোনও ইচ্ছে তাঁর ছিল না। তবে ভ্যাকসিন যে নিরাপদ তা নিশ্চিত করতে চান তিনি৷ ইতিমধ্যেই আমেরিকায় গণহারে ফাইজার/বায়োএনটেকের তৈরি করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন প্রয়োগ শুরু হয়েছে। কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, জরুরি ব্যবহারের জন্য এই ভ্যাকসিন প্রয়োগের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

    Published by:Simli Dasgupta
    First published: