• Home
  • »
  • News
  • »
  • coronavirus-latest-news
  • »
  • বড় ঘোষণা! কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন বাজারে না আসা পর্যন্ত বন্ধ থাকবে রাজধানীর সমস্ত স্কুল: মনীশ সিসোদিয়া

বড় ঘোষণা! কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন বাজারে না আসা পর্যন্ত বন্ধ থাকবে রাজধানীর সমস্ত স্কুল: মনীশ সিসোদিয়া

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

সোমবার দিল্লিতে নতুন করে ৪,৪৫৪ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। ১২১ জন আক্রান্তের মৃত্যু হয়েছে। সব মিলিয়ে এখনও পর্যন্ত দিল্লিতে ৮,৫১২ জনের মৃত্যু হয়েছে, যা যথেষ্টই চিন্তার।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: করোনা সংক্রমণ বেড়েই চলেছে। বছর ঘুরেছে, লকডাউন থেকে আনলক, সামাজিক দূরত্ববিধি, মাস্ক-স্যানিটাইজারের ব্যবহারের মতো বহু দাওয়াইয়ের পরেও কোনওভাবে বাগে আসছে না সংক্রমণ। বাস -ট্রেন-মেট্রোর মতো গণপরিবহন ব্যবস্থা চালু হয়েছে। খুলেছে অফিস-কাছারি-ব্যাঙ্ক-পার্ক বা সিনেমা হল, শপিং মল। তবে সেই ২২ মার্চ থেকে একটানা বন্ধ রয়েছে দেশের সব রাজ্যের প্রায় সমস্ত স্কুল-কলেজ এবং অন্যান্য শিক্ষা-প্রতিষ্ঠান। অনলাইনে ক্লাস হলে, পড়ুয়াদের ভবিষ্যৎ নিয়ে চিন্তিত অভিভাবকরা। স্কুল কর্তৃপক্ষও সিলেবাস শেষ করা থেকে পরীক্ষা পরিচালনার বিষয় নিয়ে যথেষ্ট চিন্তায়। এমতাবস্থায় বড় সিদ্ধান্ত নিল রাজধানীর সরকার।

    দিল্লির ডেপুটি মুখ্যমন্ত্রী তথা শিক্ষামন্ত্রী মনীশ সিসোদিয়া সাফ জানিয়েছেন, করোনার প্রতিষেধক বাজারে না আসা পর্যন্ত বন্ধ থাকবে দিল্লির সমস্ত স্কুল। শিক্ষামন্ত্রী বলেন, "যতক্ষণ না করোনার ভ্যাকসিন বাজারে আসছে, ততদিন পর্যন্ত স্কুল বন্ধই থাকবে।" PTI-কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে মন্ত্রী বলেন, "স্কুল খোলার বিষয়ে ভাবনাচিন্তা শুরু হতেই অভিভাবকদের মধ্যে ভয় কাজ করছে। বাচ্চাদের স্কুলে পাঠানো কতটা নিরাপদ, তা নিয়ে তাঁরা দুশ্চিন্তায়।" তিনি আর বলেন, "যে সব জায়গাতেই স্কুল খুলেছে, সেই সব জায়গাতেই দেখা গিয়েছে পড়ুয়াদের মধ্যে সংক্রমণের হার হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। তাই পরবর্তী সিদ্ধান্ত না হওয়া পর্যন্ত দিল্লিতে স্কুল বন্ধই থাকবে।"

    উল্লেখ্য, আনলক পর্ব শুরু হওয়ার পর ২১ সেপ্টেম্বর থেকে নবম-দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত স্কুল খোলার বিষয়ে প্রাথমিক ভাবনাচিন্তা শুরু হয়েছিল। বোর্ড পরীক্ষার কথা মাথায় রেখে সেই ভাবনায় শিলমোহরও দেয় বহু রাজ্য। যদিও দিল্লির সরকার বরাবরই সেই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করেছিল। এবারেও সেই সিদ্ধান্তই বজায় থাকল। করোনার টিকা না আআসা পর্যন্ত খুলবে না স্কুল।

    এ দিকে, শেষ পাওয়া পরিসংখ্যান অনুযায়ী, সোমবার দিল্লিতে নতুন করে ৪,৪৫৪ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। ১২১ জন আক্রান্তের মৃত্যু হয়েছে। সব মিলিয়ে এখনও পর্যন্ত দিল্লিতে ৮,৫১২ জনের মৃত্যু হয়েছে, যা যথেষ্টই চিন্তার। প্রসঙ্গত, এখনও পর্যন্ত অন্ধ্রপ্রদেশ এবং উত্তরাখণ্ড সরকার স্কুল খোলার অনুমতি দিয়েছিল। কিন্তু খুল খুলতেই পড়ুয়াদের মধ্যে সংক্রমণের হার বাড়তে থাকায় ফের স্কুল বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়।

    Published by:Shubhagata Dey
    First published: