• Home
  • »
  • News
  • »
  • coronavirus-latest-news
  • »
  • ফের মৃত্যু এক আক্রান্তের! পুর এলাকায় বাড়ছে আক্রান্ত, বাড়ছে উৎকণ্ঠা!

ফের মৃত্যু এক আক্রান্তের! পুর এলাকায় বাড়ছে আক্রান্ত, বাড়ছে উৎকণ্ঠা!

প্রতীকী চিত্র৷

প্রতীকী চিত্র৷

শুক্রবার লাগোয়া জলপাইগুড়ি জেলার এক আক্রান্তের মৃত্যুও হয়েছে। দিন যাচ্ছে। পাল্লা দিয়ে যেমন বাড়ছে সংক্রমণ।

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: করোনা আক্রান্তে প্রতিদিনই মৃত্যুর ঘটনা ঘটে চলেছে শিলিগুড়িতে। আজও এক করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। তাঁর বাড়ি পুরসভারই হায়দরপাড়ায়। গত তিন দিনে ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে পুর এলাকায়। সবমিলিয়ে মৃতের সংখ্যা শিলিগুড়িতে বেড়ে দাঁড়ালো ৮!

শুক্রবার লাগোয়া জলপাইগুড়ি জেলার এক আক্রান্তের মৃত্যুও হয়েছে। দিন যাচ্ছে। পাল্লা দিয়ে যেমন বাড়ছে সংক্রমণ। তেমনি মৃতের সংখ্যাও এক জায়গায় দাঁড়িয়ে নেই। শিলিগুড়ি সহ উত্তরবঙ্গেই বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা৷ উদ্বেগও বাড়ছে। আজও শিলিগুড়িতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ১০ জন। এর মধ্যে পুরসভা এলাকারই ৯ জন। অন্যজন সি আই এস এফ জওয়ান। বাগডোগরা বিমানবন্দরে কর্তব্যরত। ভিন রাজ্য ফেরত এই জওয়ান। আর পুরসভায় নতুন করে সংক্রমিত ১৪ ও ২৫ নং ওয়ার্ড। এই প্রথম এই দুই ওয়ার্ডে করোনা আক্রান্তের খোঁজ মিলেছে। আক্রান্তের গ্রাফে শীর্ষে থাকা ৪৬ নং ওয়ার্ডে খোঁজ মিলেছে ১ জনের।

তার চেয়ে বড় খবর এই ওয়ার্ডের প্রাক্তন কাউন্সিলর মুকুল সেনগুপ্ত অসুস্থ হয়ে বেসরকারী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। করোনা উপস্বর্গ রয়েছে। আজই শোয়াবের নমুনা নেওয়া হয়েছে। তিনি আবার আক্রান্ত পুরসভার প্রশাসক মণ্ডলীর চেয়ারম্যান অশোক ভট্টাচার্যের সংস্পর্ষে এসছিলেন। ১৪ নং ওয়ার্ডে ২ জন, ২৫ নং ওয়ার্ডে ১, ৩৭ নং ওয়ার্ডে ৩, ২২ এবং ৩১ নং ওয়ার্ডে ১ জন করে আক্রান্তের খোঁজ মিলেছে। রাতেই আক্রান্তদের বাড়ি সহ আশপাশ স্যানিটাইজ করা হয়েছে। অন্যদিকে ভালো আছেন পুরসভার চেয়ারম্যান তথা শিলিগুড়ির বিধায়ক অশোক ভট্টাচার্য। তাঁর প্রেশার এবং সুগার নিয়ন্ত্রণে। তাপমাত্রা কমে দাঁড়িয়েছে ৯৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। তবে মাঝে মধ্যে অক্সিজেন নিতে হচ্ছে। দুর্বলতা থাকলেও স্বাভাবিক খাওয়া দাওয়া করছেন। সকালে ফ্রুট জ্যুস খেয়েছেন। ফোনে তাঁর সঙ্গে আজ কথা বলেন দলের রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র সহ অনেকেই। চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হচ্ছেন। প্রথম পরীক্ষার ১৪ দিনের মাথায় ফের সোয়াবের নমুনা নেওয়া হবে।

Partha Pratim Sarkar

Published by:Elina Datta
First published: