সাবধান! এই কয়েকটি ক্ষেত্রে কোভ্যাকসিন না নেওয়াই উচিৎ, জানাচ্ছে ভারত বায়োটেক!

সাবধান! এই কয়েকটি ক্ষেত্রে কোভ্যাকসিন না নেওয়াই উচিৎ, জানাচ্ছে ভারত বায়োটেক!
টিকাকরণ নিয়ে অনেকে মনে দ্বন্দ্ব কাজ করছে। এরমধ্যে ভারত বায়োটেক তাদের কোভ্যাকসিন নিয়ে যে ঘোষণা করল, তা নিঃসন্দেহেই গুরুত্বপূর্ণ।

টিকাকরণ নিয়ে অনেকে মনে দ্বন্দ্ব কাজ করছে। এরমধ্যে ভারত বায়োটেক তাদের কোভ্যাকসিন নিয়ে যে ঘোষণা করল, তা নিঃসন্দেহেই গুরুত্বপূর্ণ।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: বেশ কিছু প্রতিবেদন অনেক দিন ধরেই আমাদের জানাচ্ছে যে কোভিড ১৯-এর টিকাকরণ এই দেশে শুরু হয়ে গেলেও তা নিয়ে দেশের মানুষের মনে একটা দোলাচল তৈরি হয়েছে। কিছু ক্ষেত্রে দ্বিধা গ্রাস করেছে স্বাস্থ্যকর্মীদেরও। করোনার ভ্যাকসিন নেওয়ার আগে Goggle Search-এর মাধ্যমে যতটা সম্ভব পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নিয়ে সজাগ থাকতে চাইছেন তাঁরা। অনেকে আবার ভ্যাকসিন নিলেও সে সম্পর্কে পরিবারকে কিছু জানাচ্ছেন না আগে থেকে। এই রকম এক পরিস্থিতিতে ভারত বায়োটেক তাদের কোভ্যাকসিন নিয়ে যে ঘোষণা করল, তা নিঃসন্দেহেই গুরুত্বপূর্ণ।

সম্প্রতি নিজেদের ওয়েবসাইটে এই কোভিড ১৯ ভ্যাকসিনের ব্যাপারে কিছু সতর্কতা জারি করেছে ভারত বায়োটেক। তারা সাফ জানিয়ে দিচ্ছে যে বেশ কয়েকটি ক্ষেত্রে তাদের কোভ্যাকসিন গ্রহণ করা একেবারেই উচিৎ কাজ হবে না। ভারত বায়োটেক এই ব্যাপারে স্পষ্ট করে কিছু উল্লেখ করেনি। তবে তাদের সতর্কতা এটা বলে দিচ্ছে যে কিছু কিছু লক্ষণ মিলিয়ে যদি কোভ্যাকসিন না নেওয়া হয়, তা হলে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার সম্মুখীন হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

দেখে নেওয়া যাক, কোন কোন ক্ষেত্রে ভারত বায়োটেক কোভ্যাকসিন নিতে নিষেধ করছে!


১. অন্তঃসত্ত্বাদের কোভ্যাকসিন নিতে বারণ করছে নির্মাতা সংস্থা।

২. যে মায়েরা সন্তানকে স্তন্যপান করান, তাঁদেরও এই ভ্যাকসিন নেওয়া উচিৎ নয় বলে জানিয়েছে ভারত বায়োটেক।

৩. যদি কারও অ্যালার্জি থাকে, সে ক্ষেত্রে কোভ্যাকসিন না নেওয়ারই পরামর্শ দিচ্ছে সংস্থা।

৪. গায়ে ভাল রকমের জ্বর থাকলে এই ভ্যাকসিন নেওয়া যাবে না, জানিয়েছে ভারত বায়োটেক।

৫. কারও যদি ব্লিডিং ডিজঅর্ডার থাকে, তা হলে কোভ্যাকসিন তাঁদের জন্য নয় বলেই দাবি !

৬. যাঁদের রক্ত পাতলা, তাঁদের কোভ্যাকসিন নিতে বারণ করছে নির্মাণকারী সংস্থা।

৭. যাঁদের রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা দুর্বল, তাঁদের এই ভ্যাকসিন নেওয়া ঠিক হবে না বলে জানাচ্ছে সংস্থার ওয়েবসাইট।

৮. যদি কোনও গুরুতর শারীরিক সমস্যায় কেউ আক্রান্ত থাকেন, সে ক্ষেত্রে তাঁকে কোভ্যাকসিন দেওয়া যাবে না বলে জানিয়েছে সংস্থা।

৯. অন্য কোনও কোভিড ১৯ ভ্যাকসিন নিয়ে থাকলে কোভ্যাকসিন নিতে নিষেধ করছে ভারত বায়োটেক!

সংস্থার অনুরোধ- ভ্যাকসিন গ্রহণের আগে মেডিক্যাল সুপারভাইজারকে যেন নিজের মেডিক্যাল হিস্টরি সম্পর্কে সব তথ্য দেওয়া হয়। না হলে হিতে বিপরীত হতে পারে, সে কথা প্রকারান্তরে হলেও স্বীকার করছে ভারত বায়োটেক।

Published by:Pooja Basu
First published: