করোনা সংক্রমণে ত্রস্ত পূর্ব বর্ধমান, লাগাম ছাড়া সংক্রমণে ২০ হাজারের গণ্ডি পার

Coronavirus second wave is getting to peak -Photo- File

উদ্বেগ চরমে, পূর্ব বর্ধমানে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় একুশ হাজার!

  • Share this:

#বর্ধমান: পূর্ব বর্ধমান জেলায় লাফিয়ে লাফিয়ে বেড়েই চলেছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। প্রতিদিনই শয়ে শয়ে বাসিন্দা করোনা আক্রান্ত হচ্ছেন। এই জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা ইতিমধ্যেই দুশো ছাড়িয়ে গিয়েছে। গত বছর করোনার প্রথম পর্বে আক্রান্তের সংখ্যা এবছরের মত এত বেশি ছিল না। কিন্তু এবার গত কয়েক সপ্তাহ ধরেই আক্রান্তের সংখ্যা লাগামহীনভাবে বেড়ে চলেছে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, করোনার দ্বিতীয় ঢেউ অনেকের কাছেই আরও বেশি প্রাণঘাতী হিসেবে দেখা দিয়েছে। এবার করোনায় আক্রান্ত হয়ে মাঝবয়সী অনেকেই মারা গিয়েছেন। আক্রান্ত হয়ে পড়ছে শিশুরাও। তাই এবার আরও বেশি সতর্কতা জরুরি বলে মনে করছেন তারা। পূর্ব বর্ধমান জেলায় এ দিন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা একুশ হাজারের কাছাকাছি পৌঁছে গিয়েছে। জেলা প্রশাসন সূত্রে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী এ দিন পর্যন্ত এই জেলায় কুড়ি হাজার ৭৬৬ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। তাদের মধ্যে ১৫ হাজার ৩০২ জন ইতিমধ্যেই সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। বর্তমানে অ্যাক্টিভ রোগীর সংখ্যা ৫ হাজার ২৬০ জন। এ দিন পর্যন্ত এই জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে ২০৪ জনের মৃত্যু হয়েছে।

পূর্ব বর্ধমান জেলায় গত চব্বিশ ঘন্টায় করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ২৯১ জন। তাদের মধ্যে বর্ধমান পৌরসভা এলাকাতেই আক্রান্ত হয়েছেন ৬৪ জন। এছাড়া কাটোয়া পৌরসভা এলাকায় ১৫ জন, মেমারি পৌরসভা এলাকায় ১০ জন, দাঁইহাট ও কালনা পৌরসভা এলাকায় দুজন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। গুসকরা পৌরসভা এলাকায় করোনা আক্রান্ত হয়েছেন তিনজন।

এছাড়াও আউশগ্রাম এক নম্বর ব্লকে চারজন ও আউশগ্রাম দু'নম্বর ব্লকে ১৭ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। ভাতার ব্লকে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ১৬ জন। বর্ধমান এক নম্বর ব্লকে ১৫ জন ও বর্ধমান দু'নম্বর ব্লকে ১১ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। গলসি এক নম্বর ব্লকে ১৭ জন ও গোলসি দু নম্বর ব্লকে আটজন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। জামালপুরে আক্রান্ত হয়েছেন তিনজন। কালনা এক নম্বর ব্লকে সাতজন ও কালনা দু'নম্বর ব্লকে তিনজন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। কাটোয়া এক নম্বর ব্লকে ছ জন ও কাটোয়া দু'নম্বর ব্লকে চারজন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। কেতুগ্রাম এক নম্বর ব্লকে সাতজন ও কেতুগ্রাম দু নম্বর ব্লকে চারজন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। খণ্ডঘোষ ব্লকে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ন জন। মন্তেশ্বর ব্লক করোনা আক্রান্ত হয়েছেন দশজন। মেমারি এক নম্বর ব্লকে ১৩ জন ও মেমারি দু নম্বর ব্লকে ছয়জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। মঙ্গলকোট ব্লকে আক্রান্ত হয়েছেন চারজন। পূর্বস্থলী এক নম্বর ব্লকে দুজন ও পূর্বস্থলী দুই নম্বর ব্লকে তিনজন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। রায়না এক নম্বর ব্লকে ৬ জন ও রায়না দু'নম্বর ব্লকে ৭ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।

Saradindu Ghosh

Published by:Debalina Datta
First published: