পাক সামরিক বাহিনীকে পাঁচ লাখ টিকা উপহার চিনের

পাক সামরিক বাহিনীকে পাঁচ লাখ টিকা উপহার চিনের
পাকিস্তান সামরিক বাহিনীকে করোনা টিকা পাঠাল বেজিং

বিশেষ বিমানে করে পাকিস্তানে পাঁচ লক্ষ করোনা টিকা পৌঁছে দিয়েছে চিনের পিএলএ।

  • Share this:

    #ইসলামাবাদ: করোনা ভাইরাস পৃথিবীতে ছড়ানোর পেছনে চিনের হাত রয়েছে এমন দাবি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প অনেক আগেই করে গিয়েছেন। সম্প্রতি চিনের সেই কুখ্যাত বাজার পরিদর্শন করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা যতই সবুজ সংকেত দিক, আমেরিকা, ইউরোপ এবং ভারত এখনও চিনের ভূমিকার কথা উড়িয়ে দেয় না। বিশ্বের অর্থনীতি তলানিতে নামানোর জন্য এবং নিজেদের অর্থনীতি ওপরে তোলার জন্য এটা যে চিনের একটা পরিকল্পিত চাল অনেকেই বিশ্বাস করে এই যুক্তি।

    নতুন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন দায়িত্ব নেওয়ার পর চিন আশা করেছিল আমেরিকা আক্রমনাত্মক ভঙ্গি ছেড়ে তাঁদের সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রাখতে জোর দেবে। কিন্তু হয়েছে ঠিক উল্টো। ইতিমধ্যেই মার্কিন বিদেশ সচিব বেশ কয়েকবার দমন-পীড়ন নীতি নিয়ে বেজিংকে হলুদ কার্ড দেখিয়ে রেখেছেন। ওদিকে তাইওয়ান, মালয়েশিয়া, ভারতের সঙ্গে ড্রাগনের ঠান্ডা লড়াই অব্যাহত। দক্ষিণ চিন সাগরে আবার শুরু হয়েছে মার্কিন যুদ্ধজাহাজের আনাগোনা। মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে ইরানও। চিনের টিকা গ্রহণ করেনি তাঁরা। এমন অবস্থায় তাঁদের পাশে পাকিস্তান ছাড়া কেউ নেই।

    এবার সেই লোক দেখানো বন্ধুত্বের মর্যাদা দিতেই অভিনব পদক্ষেপ গ্রহণ করল বেজিং। সম্প্রতি বিশেষ বিমানে করে পাকিস্তানে পাঁচ লক্ষ করোনা টিকা পৌঁছে দিয়েছে চিনের পিএলএ। পাকিস্তানের আন্তবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরের (আইএসপিআর) নাম দিয়ে দেশটির সংবাদমাধ্যম ডন জানায়, পিএলএ পাকিস্তানের সশস্ত্র বাহিনীকে করোনার টিকা উপহার দিয়েছে। পাকিস্তানের সশস্ত্র বাহিনীই প্রথম বিদেশি সামরিক বাহিনী, যারা বেজিংয়ের কাছ থেকে টিকা উপহার পেয়েছে। পাকিস্তানের সামরিক বাহিনীর পক্ষ থেকে চিনকে অসংখ্য শুভেচ্ছা জানানোর পাশাপাশি নিশ্চিত করা হয়েছে এই টিকা আগে ফ্রন্টলাইন কর্মীদের দেওয়া হবে। বৃদ্ধ এবং শিশুরা অগ্রাধিকার পাবে।


    চিনের এই টিকা পাওয়ার পর দেশজুড়ে গণ টিকাকরণ শুরু করেছে পাকিস্তান সরকার। দেশটিতে এখনও পর্যন্ত ৫ লাখ ৫৫ হাজার ৫১১ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে ১২ হাজার ২৬ জনের। আর সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৫ লাখ ১১ হজার ৫০২ জন। আসলে কে না জানে চিনের কাছে প্রায় গোটা দেশটাই বন্ধক রেখেছে ইমরান খান সরকার। মুদ্রাস্ফীতি চরমে, একটি ডিমের দাম তিরিশ টাকা। তার ওপর ইমরানের ওপর দেশের মানুষ বিরক্ত। তাই চিনের টিকা দেখিয়ে মানুষের মন জয়ের রাস্তার হদিশ তিনি পাবেন এমন গ্যারান্টি নেই।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: