Bengal Coronavirus Update : চিন্তা বাড়াচ্ছে তিন জেলা! রাজ্যে ফের চড়ছে দৈনিক সংক্রমণ, ঊর্ধ্বমুখী মৃত্যু হার...

চিন্তা বাড়াচ্ছে জেলা

স্বাস্থ্যদপ্তরের সাম্প্রতিকতম পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে নতুন করে করোনা ভাইরাসে (Coronavirus)আক্রান্ত হয়েছেন ৯৯৫ জন, মৃত্যু হয়েছে ১৭ জনের।

  • Share this:

    #কলকাতা : স্বস্তির পর আবারও রাজ্যে বাড়ল করোনা সংক্রমণ (Covid-19 Cases)। স্বাস্থ্যদপ্তরের সাম্প্রতিকতম পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে নতুন করে করোনা ভাইরাসে (Coronavirus)আক্রান্ত হয়েছেন ৯৯৫ জন, মৃত্যু হয়েছে ১৭ জনের। বুধবার সংক্রমিত ও মৃত্যুর সংখ্যা ছিল কম। একদিনে করোনার (Coronavirus) কবল থেকে সুস্থ হয়েছেন ১৪৯০ জন। এ নিয়ে বাংলায় সুস্থতার হার দাঁড়াল ৯৭.৭৫ শতাংশ।

    করোনার দ্বিতীয় ঢেউ রুখতে রাজ্যে আগামী ১৫ তারিখ পর্যন্ত জারি কটোর বিধিনিষেধ। যদিও ছাড় রয়েছে বেশ কয়েকটি ক্ষেত্রে। সেই নিয়ন্ত্রনেই কোভিড সংক্রমণ বাগে এসেছিল। সপ্তাহের শুরুতেই হাজারের নিচে নেমে যায় দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা। কমে আসে মৃত্যুও। কিন্তু বৃহস্পতিবারের কোভিড গ্রাফ (COVID-19) ফের চিন্তা বাড়াল। দৈনিক সংক্রমণ হাজার ছুঁইছুঁই। সামান্য হলেও বাড়ল মৃত্যুর হার। এখনও সংক্রমণের শীর্ষে উত্তর ২৪ পরগনা। এখানে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৯৩।

    স্বাস্থ্যদপ্তরের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে করোনায় নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ৪৯,৮৪২। এর মধ্যে মাত্র ২ শতাংশ রিপোর্ট পজিটিভ। এখনও পর্যন্ত রাজ্যে মোট করোনা আক্রান্ত ১৫ লক্ষ ৯ হাজার ২১৮। করোনার বলি ১৭, ৮৬৭। কোভিডের কবলমুক্ত ১৪ লক্ষ ৭৫ হাজার ২০৮। কমেছে অ্যাকটিভ কেসও। তবে দার্জিলিং, কলকাতার পরিসংখ্যানও ভাবাচ্ছে। দৈনিক সংক্রমণে গত কয়েকদিন ধরেই কলকাতাকে পেরিয়ে যাচ্ছে দার্জিলিং। গত ২৪ ঘণ্টায় দার্জিলিংয়ে নতুন করে করোনা আক্রান্ত ৮৮ জন, আর কলকাতায় ৮৭ জন।

    এদিকে, করোনার তৃতীয় ঢেউ আসার আগেই পরিকাঠামো তৈরির কাজ শেষ করতে জোর দিয়েছে নবান্ন। জুলাই মাসের মধ্যেই শেষ করে ফেলতে হবে প্রস্তুতি। বৃহস্পতিবার নবান্ন থেকে এমনই নির্দেশ দেওয়া হল জেলা স্বাস্থ্য দফতরগুলিকে। পাশাপাশি করোনা সতর্কতা আরও বাড়ানোর জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বেশ কিছু জেলাকে। সেগুলির মধ্যে রয়েছে, উত্তর ২৪ পরগনা,দার্জিলিঙ,পশ্চিম মেদিনপুরের মত জেলা। এমনটাই নবান্ন সূত্রে খবর।

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published: