corona virus btn
corona virus btn
Loading

করোনা সংক্রমণের ভয়ে কাঁটা শৈলশহর, পাহাড়ে দুই জেলা মিলিয়ে একদিনে আক্রান্ত ২০

করোনা সংক্রমণের ভয়ে কাঁটা শৈলশহর, পাহাড়ে দুই জেলা মিলিয়ে একদিনে আক্রান্ত ২০

আক্রান্ত বাড়ছে পাহাড়ে । বাড়ছে সমতলেও । রবিবার সর্বাধিক করোনা আক্রান্তের খোঁজ মিলেছে পাহাড়ে ।

  • Share this:

#দার্জিলিং: আক্রান্ত বাড়ছে পাহাড়ে । বাড়ছে সমতলেও । রবিবার সর্বাধিক করোনা আক্রান্তের খোঁজ মিলেছে পাহাড়ে ! দার্জিলিং ও কালিম্পং পাহাড়ে হু হু করে জাল ছড়াচ্ছে মারণ করোনা ভাইরাস । পিছিয়ে নেই সমতলও ।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, অধিকাংশ আক্রান্তই ভিন রাজ্য ফেরত ।শৈলশহরেই আক্রান্ত দুই ! লাগোয়া সুখিয়াপোখরিতে আক্রান্ত দু'জন । অদূরের বিজনবাড়িতে আক্রান্ত ১ । সমতলের নকশালবাড়িতে আক্রান্তের সংখ্যা তিন । শিলিগুড়িতে নতুন করে আক্রান্ত আরও পাঁচজন । এর মধ্যে একজন চিকিৎসকও রয়েছেন । তিনি উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতাল কর্মরত । সব মিলিয়ে মেডিক্যালের ১১ জন চিকিৎসক করোনা আক্রান্ত । বিজনবাড়ির আক্রান্ত কলকাতা ফেরত । বাকিরা ভিন রাজ্য থেকে ফিরেছেন । কেউ ভিন রাজ্যে কাজ করতেন । কেউ বা উচ্চ শিক্ষার জন্যে গিয়েছিলেন । কেউ আবার ভিন রাজ্যে শ্রমিক বা কর্মী হিসেবে কাজ করতেন । ঘরে ফিরতেই তাঁরা করোনা আক্রান্ত ।

কালিম্পংয়ের দুই ব্লক মিলিয়ে করোনা আক্রান্ত ৭ জন । প্রত্যেকেই দিল্লি ফেরত ।  উত্তরবঙ্গে প্রথম করোনা আক্রান্তের খোঁজ মেলে কালিম্পংয়ে । আক্রান্ত মহিলার মৃত্যুও হয় ৷ তাঁর সংস্পর্ষে আসা পরিবারের ১০ জন আক্রান্ত হয় । পরবর্তীতে সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছেন । স্বাভাবিকভাবেই চিন্তিত পাহাড়বাসী ৷ তবে আতঙ্কিত নয় ।

জিটিএ'র পক্ষ থেকে সকলকেই স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে । এখোনও ভিন রাজ্যে আটকে পাহাড়ের বহু বাসিন্দা । চলতি সপ্তাহেই তাঁরা ফিরবেন । জিটিএ'ও তাদের ফেরানোর সবরকম ব্যবস্থা নিয়েছে । জিটিএ'র চেয়ারম্যান অনীত থাপা জানান, পাহাড়ের কত জন বাইরে রয়েছে , তা সংখ্যায় বলা সম্ভব নয়। তবে আমরা তাদের ফিরিয়ে আনতে প্রস্তুত । অন্যদিকে, আজও ভাল খবর আছে। এদিন দু'জন আক্রান্ত করোনা জয় করে বাড়ি ফিরেছেন । এর মধ্যে একজন মালদহের ৮ বছর বয়সী নাবালিকা । সে আবার লিউকোমিয়াতেও আক্রান্ত । অন্যজন ১২ বছর বয়সী কিশোরী । সে অটল চা বাগানের বাসিন্দা ।

Partha Sarkar

Published by: Shubhagata Dey
First published: June 8, 2020, 12:29 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर