corona virus btn
corona virus btn
Loading

করোনা থেকে সেরে উঠে ঘরে ফিরছে ‘মেয়ে’, ফুল ছিটিয়ে হাততালি দিয়ে স্বাগত পড়শিদের

করোনা থেকে সেরে উঠে ঘরে ফিরছে ‘মেয়ে’, ফুল ছিটিয়ে হাততালি দিয়ে স্বাগত পড়শিদের

এ যেন এক অন্য অনুভূতি! স্বাস্থ্য বিধি মেনেই করোনা যুদ্ধে বিজয়ীনীদের কাছে টেনে নেননি। কিন্তু হৃদয় দিয়ে বরণ করে নেওয়ার ছবি দেখলো রাজ্য!

  • Share this:

#দার্জিলিং:এ এক অন্য ছবি। রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে যখন নার্স বা চিকিৎসকদের ভাড়া বাড়ি থেকে সরাতে হুমকি দেওয়া হচ্ছে। বার বার স্বাস্থ্য কর্মীদের বাধার মুখে পড়তে হচ্ছে। এক আতঙ্কের আবহে বসবাস করছেন স্বাস্থ্য কর্মীরা। সেই সময় দৃষ্টান্ত তুলে ধরলো দার্জিলিং জেলা।

পাহাড় থেকে সমতল জেলার দুই প্রান্ত দেখালো প্রাণবন্ত ছবি। যা প্রশংসা পাওয়ারই যোগ্য। করতালি ও পুষ্পবৃষ্টির মধ্য দিয়ে বরণ করে নেওয়া হল দুই করোনা পজিটিভ যুদ্ধে জয়ীনীকে। উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে করোনা আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসায় নিযুক্ত ছিলেন, এমন দুই নার্সেরও সোয়াবের নমুনায় পজিটিভ ধরা পড়ে। তারপর থেকে দুই নার্স চিকিৎসাধীন ছিলেন শিলিগুড়ির মাটিগাড়ার কোভিড হাসপাতালে। টানা ১৫  দিন চিকিৎসার পর সুস্থ হয়ে ওঠেন। গতকাল রাতেই তাঁদের ছুটি দেওয়া হয়। শিলিগুড়িতে গতকাল রাতে ছিলেন করোনায় সুস্থ দুই নার্স সহ তিন জন। আজ নিজের বাড়িতে ফিরে যান ওরা। পুলিশি পাহাড়ায় ঘরে ফিরলেন ওরা।

শিলিগুড়ির শিবমন্দিরের একটি আবাসনে স্বপরিবারে থাকেন মেডিকেলের নার্স অঞ্জলী রাই। এদিন আবাসনের আবাসিকেরা করতালির মধ্য দিয়ে বরণ করে নেয় করোনা জয়ী দুই আবাসিককে। এখনও ওই নার্সের স্বামী ও শিশু কন্যা চিকিৎসাধীন করোনা স্পেশাল হাসপাতালে। অন্যদিকে কার্শিয়ংয়ের তিনধরিয়ায় নিজের বাড়িতে ফেরেন আর এক নার্স প্রতিকা প্রধান। তিনধরিয়া ঢোকার মুখে স্থানীয় বাসিন্দারা সামাজিক দূরত্ব মেনে দাঁড়িয়ে থাকেন। প্রতিকার গাড়ি আসতেই জাতীয় সড়কের দু'পাশ থেকে পুষ্পবৃষ্টি পড়তে শুরু করে। সঙ্গে করতালি। কারোর চোখে আনন্দাশ্রু! প্রতিবেশী থেকে আত্মীয়স্বজনেরা নতুন ইতিহাস তৈরী করলেন। যা রাজ্যকে অন্য ছবি দেখালো। এক নয়া নজিরের সাক্ষী থাকলো দার্জিলিংয়ের পাহাড় থেকে সমতল। এ যেন এক অন্য অনুভূতি! স্বাস্থ্য বিধি মেনেই করোনা যুদ্ধে বিজয়ীনীদের কাছে টেনে নেননি। কিন্তু হৃদয় দিয়ে বরণ করে নেওয়ার ছবি দেখলো রাজ্য!

Partha Pratim Sarkar

First published: April 29, 2020, 11:48 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर