corona virus btn
corona virus btn
Loading

স্বস্তির খবর, সংক্রামিত এই এলাকা থেকে সংগ্রহ করা ৭৩ জনের নমুনার রিপোর্ট করোনা নেগেটিভ

স্বস্তির খবর, সংক্রামিত এই এলাকা থেকে সংগ্রহ করা ৭৩ জনের নমুনার রিপোর্ট করোনা নেগেটিভ

প্রথম আক্রান্ত ব্যক্তি ও তাঁর ভাইঝিকে লেভেল থ্রি করোনা হাসপাতালে ভর্তি করে সেখানে তাঁদের চিকিৎসা চলছে।

  • Share this:

#খণ্ডঘোষঃ স্বস্তির খবর। বর্ধমানের খণ্ডঘোষের বাদুলিয়ায় করোনা আক্রান্তের সংস্পর্শে আসা তিয়াত্তর জনের রিপোর্ট এল নেগেটিভ। পূর্ব বর্ধমান জেলায় প্রথম খন্ডঘোষে করোনা আক্রান্তের হদিস মেলার পর তাঁর সংস্পর্শে আসা চুয়াত্তর জনকে কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে নিয়ে যাওয়া হয়। দফায় দফায় তাদের নমুনা পরীক্ষার জন্য কলকাতায় পাঠান হয়। প্রথম দফায় তার স্ত্রী, ছেলে এবং মেয়ে-সহ ন'জনের নমুনা পাঠান হয়েছিল। সেই রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। এরপর আরও দশ জনের লালারসের নমুনা সংগ্রহ করে পাঠান হয়। সেখানে আক্রান্তের ভাইঝির করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে।  দু'জনের দেহে করোনার সংক্রমণ মেলায় এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েন বাসিন্দারা।

জেলা স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, খণ্ডঘোষের বাদুলিয়ায় করোনা আক্রান্তের সংস্পর্শে আসা চুয়াত্তর জনকে কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। সেখান থেকে তাদের নমুনা সংগ্রহ করে কয়েক দফায় কলকাতায় পাঠান হয়। তবে প্রথম আক্রান্ত ব্যক্তির তার ভাইঝি ছাড়া বাকি তিয়াত্তর জনের রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। প্রথম আক্রান্ত ব্যক্তি ও তাঁর ভাইঝিকে দুর্গাপুরের লেভেল থ্রি করোনা হাসপাতালে ভর্তি করে সেখানে তাঁদের চিকিৎসা শুরু হয়। আক্রান্ত ওই ব্যক্তি এখন সুস্থ হয়ে উঠেছেন। যেকোনো দিন  ওই হাসপাতাল থেকে তাঁকে ছেড়ে দেওয়া হতে পারে। নতুন করে খন্ডঘোষে সংক্রমণ না মেলায় স্বস্তিতে জেলা প্রশাসন। স্বস্তিতে এলাকার বাসিন্দারা।

তবে জেলা পুলিশ ও প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে,  স্বাস্থ্য দফতরের গাইডলাইন মেনে ওই এলাকা সিল করে রাখা হয়েছে। সেখানকার বাসিন্দাদের এলাকার বাইরে বের হতে দেওয়া হচ্ছে না। বাইরে থেকেও কাউকে এলাকায় ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না। কারও কোনও কিছু প্রয়োজন হলে পুলিশ গিয়ে তা এনে দিচ্ছে। সব মিলিয়ে ওই এলাকায় পুরোপুরি লকডাউন চলছে। জেলা প্রশাসনের এক আধিকারিক জানান, খন্ডঘোষেই একমাত্র করোনার সংক্রমণ মিলেছে। জেলার আর কোথাও করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের প্রমাণ মেলেনি। তাই এই ভাইরাস যাতে নতুন করে ছড়িয়ে পড়তে না পারে তা নিশ্চিত করতে সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে। সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে চলতে হবে।

Saradindu Ghosh

First published: April 30, 2020, 1:16 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर