Home /News /cooch-behar /
Cooch Behar: সন্ধে নামলেই জমজমাট কোচবিহার সাগরদিঘি চত্বর, ঘুরতে যেতে চান!

Cooch Behar: সন্ধে নামলেই জমজমাট কোচবিহার সাগরদিঘি চত্বর, ঘুরতে যেতে চান!

সন্ধ্যার

সন্ধ্যার পর কোচবিহার শহরে অন্যতম বেড়ানোর জায়গা সাগরদিঘি চত্বর

কোচবিহারের একটি অন্যতম ঐতিহ্যপূর্ন স্থান হল কোচবিহারের একদম প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত সাগরদিঘি। আর এই সাগরদিঘি চত্বরেই সন্ধ্যে নামলে জমে ওঠে মানুষের ভিড়।

  • Share this:

    কোচবিহার: কোচবিহারের একটি অন্যতম ঐতিহ্যপূর্ন স্থান হল কোচবিহারের একদম প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত সাগরদিঘি। আর এই সাগরদিঘি চত্বরেই সন্ধ্যে নামলে জমে ওঠে মানুষের ভিড়। শুধুমাত্র কোচবিহারের মানুষেরাই নয়, কোচবিহারের বাইরের পর্যটকদের জন্য এটি একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি পর্যটন কেন্দ্র। সন্ধ্যা নামলেই এখানে বসে প্রচুর ফাস্টফুডের দোকান। আর এই ফাস্টফুড খাবারের দোকান গুলির। অন্যতম বৈশিষ্ট্য হলো অত্যন্ত কম দামে ভালো মানের সুস্বাদু খাবার।

    সাগরদিঘির ঠিকানা:

    Sagar Dighi, Jitendra Narayan Road, Cooch Behar, West Bengal, 736101

    সাগরদিঘির গুগল ম্যাপের ঠিকানা: SagarDighi Coochbehar

    কোচবিহারের স্থানীয় মানুষেরা এই সাগরদিঘির চত্বরে সকালে এবং বিকেলে হাঁটতে খুব পছন্দ করেন। এছাড়াও এই সাগরদিঘির চত্বরেই রয়েছে কোচবিহার জেলার সমস্ত প্রশাসনিক দফতর। তাই সারাটা দিন মোটামুটি ভিড় চোখে পড়ে এই এলাকায়। তবে সন্ধ্যের অন্ধকার নামার সাথে সাথে এই ভীড় যেন আরোও করেকগুন বেড়ে ওঠে। সারাদিনের কর্ম ব্যস্ততার জীবন থেকে ছুটি পেয়ে সবাই চলে আসেন এই সাগরদিঘির চত্বরে।

    আরও পড়ুনঃ কোচবিহারে গৃহহীনদের একমাত্র ভরসা "ঠিকানা"!

    এখানে সন্ধ্যার সময়ের আলো-আঁধারি চিত্র এবং তার সাথে থাকে স্নিগ্ধ ঠান্ডা বাতাস। এই দুটো মিলে সাগরদিঘী করে তোলে একটি গুরুত্বপূর্ণ পর্যটন কেন্দ্র। এ সন্ধের সাগরদিঘি যে কোন পর্যটকের মন জয় করতে বাধ্য। এ বিষয় নিয়ে কোচবিহারের একজন স্থানীয় বাসিন্দা রাহুল রায় জানান, \"সারাদিনের কর্মব্যস্ততার জীবন শেষ করে, সন্ধ্যেবেলায় ছুটি পাওয়ার সাথে সাথেই এখানে চলে আসতে ইচ্ছা করে। এখানেই মনোরম পরিবেশ এবং স্নিগ্ধ ঠান্ডা বাতাস। যে কোন পর্যটক এর মন জয় করতে বাধ্য\"।

    আরও পড়ুনঃ মাধ্যমিকে ভালো ফল, তবুও ভবিষ্যতের চিন্তায় রাতের ঘুম উড়েছে অনিমার!

    শুধুমাত্র কর্মব্যস্ত মানুষেরাই নয় এখানে দেখতে পাওয়া যায় প্রচুর ছাত্র-ছাত্রীদের। যারা মূলত সন্ধের টিউশন শেষ করে, এই চত্বরের সুস্বাদু কমদামের ফাস্টফুড গুলিকে খেতে আসে। এমনই একজন ছাত্র সৌমিক কুন্ডু বলেন, \"সাগরদিঘী চত্বরের এসমস্ত খাবারের দোকান গুলি খুব কম দামে। ভালো ভালো ফাস্টফুড খাওয়ার দিয়ে থাকে। সেই কারণে সন্ধের টিউশন শেষ করে এখানে টিফিন করতে চলে আসি\"।

    Sarthak Pandit
    Published by:Soumabrata Ghosh
    First published:

    Tags: Cooch behar

    পরবর্তী খবর