• Home
  • »
  • News
  • »
  • business
  • »
  • WHAT IS THE DIFFERENCE BETWEEN HALLMARKED GOLD KDM GOLD AND 916 GOLD PB

খাঁটি সোনা কেনার আগে জানুন হলমার্ক, কেডিএম এবং ৯১৬ গোল্ড-এর পার্থক্য !

photo source collected

সোনার গয়না বা সোনার কয়েন কেনার সময় হলমার্ক যুক্ত সোনা কেনা উচিত। এতে প্রতারণার হাত থেকে রক্ষা পাওয়া যেতে পারে।

  • Share this:

প্রচুর সম্পত্তি, অঢেল টাকা থাকা স্বত্বেও আরও একটি জিনিস অফুরন্ত না থাকলে যেন কিছুতেই ধনী হয়ে ওঠা যায় না! আর সেই সর্বশ্রেষ্ট ধনী হতে গেলে লাগে শ্রীধন বা সোনা। তাই প্রাচীনকাল থেকে সোনার প্রতি মানুষের বিশেষ চাহিদা রয়েই গিয়েছে। বর্তমান সময়ে সোনার গুণগত মান নিয়েও নিশ্চিত হওয়া প্রয়োজন। কারণ, কিছু অসাধু মানুষ ছড়িয়ে রয়েছে। তাই প্রতারণা যে কোনও উপায়ে যে কোনও সময়ে হতে পারে। ফলে সোনার গয়না বা সোনার কয়েন কেনার সময় হলমার্ক যুক্ত সোনা কেনা উচিত। এতে প্রতারণার হাত থেকে রক্ষা পাওয়া যেতে পারে। হলমার্ক গোল্ড (Hallmark Gold) শুধু শুদ্ধতা নয়, প্রয়োজনে বিক্রি করতে গেলে সঠিক দাম পাওয়া যায়।

এই প্রতিবেদনে বিআইএস হলমার্ক গোল্ড (BIS Hallmark Gold) কেডিএম গোল্ড (KDM gold) এবং ৯১৬ গোল্ড (916 Gold) নিয়ে আলোচনা করা হবে। এই তিন ধরনের সোনার পার্থক্য জানা থাকলে সোনা কেনার সময় এর গুণমান নিয়ে কোনও প্রশ্ন থাকবে না।

হলমার্ক গোল্ড কী? সোনার গুণগত মান যাচাই করার প্রক্রিয়াকে হলমার্কিং (Hallmarking) বলা হয়। বিশুদ্ধ সোনার জন্য একটি সরকারি অনুমোদনের প্রয়োজন হয়, সেটাকেই হলমার্কিং বলে। সরকারি সংস্থা ব্যুরো অফ ইন্ডিয়ান স্যান্ডার্স (BIS) হলমার্কিং-এর দায়িত্ব সামলাচ্ছে। তাই হলমার্কিং সোনার গুণগত মান সম্পর্কে গ্রাহককে নিশ্চিত করে। যদি কেউ ১৮ ক্য়ারাটের কোনও সোনার গয়না কেনেন, এর প্রকৃত অর্থ ২৪ ভাগের মধ্যে ১৮ ভাগ সোনা এবং বাকিটা খাদ। BIS আইন অনুসারে সোনার পাশাপাশি রুপোর গয়নাতেও হলমার্কিং কাজ করে।

বিআইএস হলমার্ক: এই সংস্থা বলে দেয়, যে কোনও সোনার বিশুদ্ধতা কতটা এবং সেটা কোনও অনুমোদিত ল্যাবরেটরিতে যাচাই করা হয়েছে কি না!

কত ক্যারাট সোনায় বিশুদ্ধতা কতটা, তা এক নজরে দেখে নেওয়া যাক- ২৪ ক্যারাট হলে তাতে সোনা থাকে ৯৯.৯% ২২ ক্যারাট হলে তাতে সোনা থাকে ৯১.৬% ১৮ ক্যারাট হলে তাতে সোনা থাকে ৭৫% ১৪ ক্যারাট হলে তাতে সোনা থাকে ৫৮.৩০%

কেডিএম গোল্ড কী? কেডিএম হল ক্যাডমিয়াম (Cadmium) নামের এক ধরনের ধাতু, যা সোনার গয়নাকে উপযোগী সোনায় পরিণত করতে খাদ হিসেবে ব্যবহার করা হয়। এক্ষেত্রে সোনা এবং ক্যাডমিয়ামের অনুপাত থাকে ৯২ ও ৮ শতাংশ। এটাই কেডিএম গোল্ড নামে পরিচিত। সোনার সর্বোচ্চ মান বজায় রাখার জন্য এই ধাতুর ব্যবহার করা হয়। কিন্তু ক্যাডমিয়াম মেশানোর ফলে সোনার মান বজায় রাখা গেলেও তা গয়নার কারিগর এবং গয়না ব্যবহারকারীদের স্বাস্থ্যের উপরে ক্ষতিকারক প্রভাব ফেলে। বর্তমানে সোনায় ক্যাডমিয়াম মেশানোর উপরে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে BIS।

৯১৬ গোল্ড (916 Gold) কী? ৯১৬ গোল্ড আসলে ২২ ক্যারাট সোনাকে বলা হয়। ১০০ গ্রাম ওজনের সোনায় ৯১.৬% বিশুদ্ধ সোনা ও বাকিটা খাদ মেলানো হয়।

১. হলমার্কিং কী ভাবে হয়? BIS স্বর্ণকারদের লাইসেন্স দেয়। এই স্বর্ণকাররা BIS স্বীকৃত হলমার্কিং কেন্দ্রগুলি থেকে নিজেদের বিক্রয়যোগ্য গহনায় হলমার্ক করতে পারেন।

২. কী ভাবে জানতে পারা যায়, যে গয়না দোকান থেকে কেনা হচ্ছে তা BIS কর্তৃক অনুমোদিত কি না? BIS-এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইট থেকে BIS কর্তৃক অনুমোদিত এবং লাইসেন্সপ্রাপ্ত স্বর্ণকারদের তালিকাটি জানতে পারা যায়। এছাড়াও এই তালিকায় স্বর্ণকারের নাম, ঠিকানা এবং BIS-এর তরফে লাইসেন্স পাওয়ার তারিখও দেখা যায়।

৩. সোনার গয়না তৈরিতে ২৪ ক্যারাট গোল্ড কেন লাগে না? খাঁটি সোনা বা ২৪ ক্যারাট গোল্ড খুব নরম হয়। এক্ষেত্রে নানা ধরনের ডিজাইন তৈরির ক্ষেত্রে ভেঙে যাওয়ার ভয় থাকে, তাই ২২ ক্যারাট গোল্ড দিয়ে সোনার গয়না বানানো হয়।

৪. হলমার্ক সোনার গয়না কেনার উপকারিতা কী? হলমার্ক সোনার বিশুদ্ধতাকে প্রমাণ করে। তাই হলমার্ক সোনা বিক্রি করতে গেলে সঠিক দাম পাওয়া যায়।

৫. BIS ৯১৬ বা কেডিএম গোল্ড কোনটি বেশি ভাল সোনা? প্রথমেই জানিয়ে রাখা ভালো- কেডিএম গোল্ডকে মান্যতা দেয় না BIS। কেডিএম গোল্ড-এ ৯২ শতাংশ সোনা ও 8 শতাংশ ক্যাডমিয়াম মেশানো হয়। অপর দিকে, BIS ৯১৬-এ ৯১.৬% বিশুদ্ধ সোনা ও বাকিটা খাদ মেলানো হয়। কিন্তু ৯১৬ গোল্ড-কেই অনুমোদন দিয়েছে ব্যুরো অফ ইন্ডিয়ান স্যান্ডার্স।

Published by:Piya Banerjee
First published: