Home /News /business /
Savings Vs Current Account: সেভিংস অ্যাকাউন্ট ও কারেন্ট অ্যাকাউন্টের মধ্যে পার্থক্য কী কী...

Savings Vs Current Account: সেভিংস অ্যাকাউন্ট ও কারেন্ট অ্যাকাউন্টের মধ্যে পার্থক্য কী কী...

Savings Vs Current Account: দুই ধরনের অ্যাকাউন্টের উদ্দেশ্য--

  • Share this:

    #কলকাতা: সেভিংস অ্যাকাউন্ট (Savings Account) এবং কারেন্ট অ্যাকাউন্ট (Current Account) দু’টি ভিন্ন ধরনের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট। যার বৈশিষ্ট্য এবং ব্যবহার একে অপরের থেকে আলাদা। নাম শুনলেই বোঝা যাবে যে, সেভিংস অ্যাকাউন্ট অর্থ সঞ্চয় বা সেভ করার জন্য বানানো হয়। সঞ্চয়-সহ দৈনন্দিন লেনদেনের উদ্দেশ্যে নিয়ে এই অ্যাকাউন্ট খোলা হয়। যে সমস্ত গ্রাহকরা তাদের আয়ের থেকে কিছুটা অংশ ভবিষ্যতের জন্য সঞ্চয় করার পাশাপাশি কিছু অতিরিক্ত উপার্জন করতে চান সেভিংস অ্যাকাউন্ট তাদের জন্য উপযুক্ত।

    আবার অন্য দিকে,কারেন্ট অ্যাকাউন্ট নিয়মিত অর্থ লেনদেনের জন্য ব্যবহৃত হয়। প্রধানত বড় বড় কোম্পানি, কর্পোরেট এবং ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানগুলি মোটা অঙ্কের নিয়মিত লেনদেনের জন্য কারেন্ট অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করে। 

    আরও পড়ুন: এপ্রিলে কেবল ১৫দিন খোলা থাকবে ব্যাঙ্ক, দেখে নিন ছুটির পুরো লিস্ট

    এই দুই ধরনের অ্যাকাউন্টের কিছু পার্থক্য:

    • সেভিংস অ্যাকাউন্টে সুদের হার কারেন্ট অ্যাকাউন্টের তুলনায় অনেক বেশি হয়।
    • কারেন্ট অ্যাকাউন্ট বিভিন্ন কোম্পানি এবং ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের জন্য বানানো হয়, যেখানে সেভিংস অ্যাকাউন্ট হল ব্যক্তিগত অ্যাকাউন্ট।
    • সেভিংস অ্যাকাউন্টে মাসিক লেনদেনের সীমা থাকে, যেখানে কারেন্ট অ্যাকাউন্টে লেনদেনের কোনও সীমা বেঁধে দেওয়া থাকে না।
    • সেভিংস অ্যাকাউন্টের তুলনায় কারেন্ট অ্যাকাউন্টে ন্যূনতম ব্যালেন্সের প্রয়োজন কম। 

    সাধারণত ATM থেকে টাকা তোলার সময় আমরা সকলেই এই দুই ধরনের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের নাম দেখে থাকি। সেভিংস এবং কারেন্ট-- এই দুই অ্যাকাউন্টের মধ্যে আমাদের বেছে নিতে হয়। আমরা সাধারণত সেভিংস অপশন বেছে নিই। কিন্তু একটা প্রশ্ন থেকে যায় যে, সেভিংস এবং কারেন্ট অ্যাকাউন্টের পার্থক্য কী? এই দুই ধরনের অ্যাকাউন্ট ভিন্ন ভিন্ন উদ্দেশ্যে তৈরি করা হয়ে থাকে এবং গ্রাহকদের ভিন্ন ভিন্ন চাহিদা পূরণ করে। ICICI, অ্যাক্সিস ব্যাঙ্ক, এসবিআই, কোটাক মাহিন্দ্রা ব্যাঙ্ক, HDFC ব্যাঙ্ক, সিটি ব্যাঙ্ক, ইয়েস ব্যাঙ্ক, ইন্ডাসইন্ড-সহ সমস্ত প্রথম সারির ব্যাঙ্কগুলি এই দুই ধরনের অ্যাকাউন্টেরই সুবিধা প্রদান করে।

    আরও পড়ুন: সন্তানের শক্তপোক্ত ভবিষ্যত গড়তে বিনিয়োগ করুন এই ভাবে, মোটা টাকায় সুন্দর জীবন

    সেভিংস অ্যাকাউন্ট:   

    • একটি সেভিংস অ্যাকাউন্টের প্রাথমিক উদ্দেশ্য হল-- সঞ্চয় করা। 
    • এই ধরনের অ্যাকাউন্টে গ্রাহকদের সুবিধামতো টাকা জমা দেওয়ার সুবিধা রয়েছে এবং জমা দেওয়া অর্থের ওপর সুদ পাওয়া যায়।
    • সেভিংস অ্যাকাউন্ট এক জন ব্যক্তি খুলতে পারেন, আবার যৌথ ভাবেও খোলা যেতে পারে। 
    • এই ধরনের অ্যাকাউন্টে ব্যাঙ্ক দ্বারা নির্ধারিত ন্যূনতম ব্যালেন্স রাখা বাধ্যতামূলক।
    • সেভিংস অ্যাকাউন্টে বার্ষিক সুদের হার ৪% থেকে ৬% পর্যন্ত হতে পারে এবং চেকবুকের সুবিধা পাওয়া যায়।

    কারেন্ট অ্যাকাউন্ট:

    • কারেন্ট অ্যাকাউন্ট নিয়মিত একাধিক লেনদেনের জন্য উপযুক্ত।
    • প্রধানত বিভিন্ন ফার্ম, কোম্পানি, পাবলিক এন্টারপ্রাইজ, ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানগুলি কারেন্ট অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করে।
    • কারেন্ট অ্যাকাউন্টের স্বাধীনতা এবং নমনীয়তার জন্য ব্যাঙ্কের তরফে কোনও সুদ দেওয়া হয় না।
    • এই ধরনের অ্যাকাউন্টে লেনদেনের সংখ্যার কোনও সীমা নির্ধারিত থাকে না।

    সেভিংস অ্যাকাউন্ট বনাম কারেন্ট অ্যাকাউন্ট:

    একটি সেভিংস অ্যাকাউন্টের বিভিন্ন বৈশিষ্ট্য থাকে, যা কারেন্ট অ্যাকাউন্টের থেকে ভিন্ন। এই দুই ধরনের অ্যাকাউন্টই গ্রাহকদের অর্থনৈতিক ম্যানেজমেন্টে সাহায্য করে। কিন্তু এই দু’টি অ্যাকাউন্টের কিছু বিশেষ সুবিধা রয়েছে, যা এদেরকে একে অপরের থেকে আলাদা করে দেয়। কী কী ভিন্ন সুবিধা পাওয়া যায়, তা নীচে দেওয়া হল।

    দুই ধরনের অ্যাকাউন্টের উদ্দেশ্য--

    সেভিংস অ্যাকাউন্ট: গ্রাহকদের অর্থ সঞ্চয় নিয়ে উৎসাহিত এবং সাহায্য করতে পরিকল্পিত ভাবে বানানো হয়।

    কারেন্ট অ্যাকাউন্ট: নিয়মিত লেনদেনের জন্য এই অ্যাকাউন্ট খোলা হয়।

    উপযুক্ত ব্যবহার--

    সেভিংস অ্যাকাউন্ট: নিয়মিত মাসিক বেতনভোগী কর্মচারী বা স্থির আয় করেন, এমন গ্রাহকদের জন্য সেভিংস অ্যাকাউন্ট উপযুক্ত। ভবিষ্যতে বাড়ি বানানো, গাড়ি কেনা অথবা সন্তানদের উচ্চশিক্ষার জন্য টাকা সঞ্চয়ের সব চেয়ে ভালো উপায় হল-- সেভিংস অ্যাকাউন্টে বিনিয়োগ। কোনও বাধ্যবাধকতা থাকে না, সুবিধামতো টাকা তোলা যায় এবং বার্ষিক সুদও পাওয়া যায়। 

    কারেন্ট অ্যাকাউন্ট: এই ধরনের অ্যাকাউন্টে লেনদেনের সংখ্যার ওপর স্বাধীনতা থাকে। যে হেতু বিভিন্ন কোম্পানি এবং ব্যবসায়িক সংস্থা কারেন্ট অ্যাকাউন্ট নিয়মিত লেনদেনের জন্য ব্যবহার করে থাকে, সেই কারণে ব্যাঙ্কের তরফে লেনদেনের সংখ্যায় কোনও সীমা থাকে না।  

    আরও পড়ুন: ১১ ক্রিপ্টোকারেন্সির বিরুদ্ধে কর ফাঁকির অভিযোগ, দেখুন কত টাকা আদায় করল কেন্দ্র

    সুদের হার (Interest)--

    সেভিংস অ্যাকাউন্ট: এই অ্যাকাউন্টে বার্ষিক ৪% থেকে ৬% পর্যন্ত সুদ পাওয়া যায়। যে হেতু নির্ধারিত সীমার চেয়ে বেশি লেনদেনের সুবিধা দেওয়া হয় না, সে ক্ষেত্রে সেভিংস অ্যাকাউন্ট টাকা জমানো সহজ হয়ে যায়। ফলে ব্যাঙ্কের সুদ গণনা করতে সুবিধা হয় এবং গ্রাহকও বাড়িতে বসে অতিরিক্ত অর্থ উপার্জন করতে পারেন। 

    কারেন্ট অ্যাকাউন্ট: কারেন্ট অ্যাকাউন্টে ব্যাঙ্কের তরফে কোনও সুদ দেওয়া হয় না। যে হেতু এই ধরনের অ্যাকাউন্টে প্রতিনিয়ত টাকা তোলা ও জমা দেওয়া হয় এবং লেনদেনের কোনও সীমা থাকে না, সেই কারণে ব্যাঙ্ক কোনও সুদও প্রদান করে না। 

    ন্যূনতম ব্যালেন্স (Minimum Balance)--

    ব্যাঙ্কের অ্যাকাউন্টে ন্যূনতম ব্যালেন্স রাখা বাধ্যতামূলক। কারণ নির্ধারিত টাকা অ্যাকাউন্টে না-থাকলে ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টকে নিশ্চল বা বন্ধ করে দিতে পারে।

    সেভিংস অ্যাকাউন্ট: সেভিংস অ্যাকাউন্টে ন্যূনতম ব্যালেন্সের অর্থরাশি কম হয়। অনেক ব্যাঙ্ক জিরো ব্যালেন্স সেভিংস অ্যাকাউন্ট খোলার সুবিধাও প্রদান করে।

    কারেন্ট অ্যাকাউন্ট: কারেন্ট অ্যাকাউন্টে ন্যূনতম ব্যালেন্স হিসেবে তুলনামূলক ভাবে বেশি টাকা রাখতে হয়। লেনদেনের অঙ্ক বড় হওয়ায় ব্যাঙ্ক এই ধরনের অ্যাকাউন্টের ক্ষেত্রে বেশি ন্যূনতম ব্যালেন্স নির্ধারিত করে। 

    Published by:Dolon Chattopadhyay
    First published:

    Tags: Current Account, Savings Account

    পরবর্তী খবর