Home /News /business /
Share Market: স্টিল স্টক নিয়ে শেয়ারবাজারে তোলপাড়, এই তীব্র পতনের কারণ কী?

Share Market: স্টিল স্টক নিয়ে শেয়ারবাজারে তোলপাড়, এই তীব্র পতনের কারণ কী?

প্রতীকী ছবি৷

প্রতীকী ছবি৷

মার্কেট বিশেষজ্ঞদের মতে আগামী দিনে বাজারের পতন আরও বেশি বৃদ্ধি পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: সোমবার শেয়ার বাজার কিছুটা গতির সঙ্গে খুললেও কোনও বৃদ্ধি দেখা যায়নি স্টিল স্টকে। স্টিল সেক্টরের বড় নাম হল টাটা স্টিল, জিন্দাল স্টিল এবং SAIL। এই তিনটি স্টকেই বিশাল পতন দেখা গিয়েছে।

    এই তিনটি স্টকই কমেছে ১০ শতাংশের বেশি। এ ছাড়া হিন্দালকো ইন্ডাস্ট্রিজের শেয়ারও প্রায় ৪ শতাংশ কমেছে। নিফটির মেটাল ইন্ডেস্ক অন্য সব ইন্ডেস্কের থেকে খারাপ পারফর্ম করছে। গোদাবরী পাওয়ার অ্যান্ড ইস্পাত, সান্দুর ম্যাঙ্গানিজ অ্যান্ড আয়রন ওর্স, সারদা এনার্জি অ্যান্ড মিনারেলস এবং জিন্দাল স্টেইনলেসের মতো শেয়ার ১০-২০ শতাংশ কমতে দেখা গিয়েছে।

    আরও পড়ুন: মিউচুয়াল ফান্ড আর শেয়ার কি এক না আলাদা ?

    সম্প্রতি শেয়ার বাজারে একরকমের ধস নেমেছে। গত কয়েকদিন ধরে বাজারের সূচক নিম্নমুখী রয়েছে। একাধিক বড় বড় প্রতিষ্ঠিত কোম্পানির শেয়ারের দামে পতন দেখা গিয়েছে। মার্কেট বিশেষজ্ঞদের মতে আগামী দিনে বাজারের পতন আরও বেশি বৃদ্ধি পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

    কী কারণে স্টকের মূল্যে হ্রাস দেখা দেয়?

    কেন্দ্রীয় সরকার ইস্পাত শিল্পে ব্যবহৃত কিছু কাঁচামাল আমদানির উপর শুল্ক সরিয়ে দিয়েছে। যার ফলে দেশীয় উৎপাদকদের স্টিল পণ্য উৎপাদনে খরচ কমে গিয়েছে এবং দামও কমবে। এছাড়া অনেক ইস্পাত পণ্য রপ্তানির ওপর শুল্ক বাড়ানো হয়েছে বা পুনঃআরোপ করা হয়েছে। এর ফলে ইস্পাত পণ্য বিদেশে পাঠানোর জন্য কোম্পানিগুলির কিছুটা বেশি ব্যয় হবে। আইসিআইসিআই সিকিউরিটিজের তরফ থেকে জানা গিয়েছে, “বেশিরভাগ ইস্পাত পণ্যের রপ্তানিতে ১৫ শতাংশ রপ্তানি শুল্ক লাগবে যা আগে শূন্য ছিল।“ ইস্পাত শিল্পের সঙ্গে যুক্ত ব্যক্তিরা একটি সংবাদ সংস্থাকে বলেছেন যে এটি বিনিয়োগকারীদের মধ্যে একটি ভুল সংকেত পৌঁছাবে এবং এটি পিএলআই প্রকল্পের অধীনে ইস্পাত শিল্পের সম্প্রসারণকে প্রভাবিত করবে।

    আরও পড়ুন: বন্ধ হয়ে গেল ২০০০ টাকার নোট ছাপা? তাহলে কী আর মিলবে না এই নোট ....

    একাধিক কোম্পানির রেটিং-এ পতন

    ব্রোকারেজ হাউস ICICI সিকিউরিটিজ টাটা স্টিল, JSPL, JSW এবং SAIL-এর রেটিং ডাউনগ্রেড করে দিয়েছে। ব্রোকারেজ হাউসের মতে, আগে ইস্পাত খাতের EBITDA বৃদ্ধির প্রত্যাশা থাকলেও এখন তা হওয়ার কোনও লক্ষণ দেখতে পাওয়া যাচ্ছে না।

    ভূ-রাজনৈতিক কারণ

    বৈশ্বিক ভূ-রাজনৈতিক পরিস্থিতির কারণে মেটাল স্টক ইতিমধ্যেই চাপের মধ্যে রয়েছে। গত এক মাসে এই স্টকগুলি ১৮ শতাংশ কমেছে। অন্য দিকে, ইস্পাত স্টক তাদের ৫২ সপ্তাহের সর্বোচ্চ থেকে ৩০-৪০ শতাংশ কমেছে। এর কারণগুলির মধ্যে রয়েছে কয়লার দাম, চাহিদা কমে যাওয়া এবং দুর্বল বৈশ্বিক মূল্য।

    First published:

    Tags: Share, Share Market

    পরবর্তী খবর