• Home
  • »
  • News
  • »
  • business
  • »
  • Zoom কলে এই কোম্পানির ৯০০ কর্মীকে বরখাস্ত করা হল, জানুন কেন!

Zoom কলে এই কোম্পানির ৯০০ কর্মীকে বরখাস্ত করা হল, জানুন কেন!

Zoom কলে এই কোম্পানির ৯০০ কর্মীকে বরখাস্ত করা হল, জানুন কেন!

Zoom কলে এই কোম্পানির ৯০০ কর্মীকে বরখাস্ত করা হল, জানুন কেন!

সম্প্রতি নিউ ইয়র্কে কর্মী ছাঁটাইয়ের এমনই একটি বিস্ময়কর ঘটনা ঘটেছে যা শিরোনামে পরিণত হয়েছে (Zoom Call)

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: কোভিড ১৯ অতিমারির (Covid 19 Pandemic) প্রভাবে ব্যবসা-বাণিজ্যের চরম ক্ষতি হয়েছে এবং প্রচুর মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়েছে তা বলাই বাহুল্য। অনেক কোম্পানির দরজায় তালা পর্যন্ত পড়ে গিয়েছে। হার্ভার্ড বিজনেস রিভিউ (HBR) অনুসারে, চাকরিজিবি হিসেবে কর্মরত ব্যক্তিরা আজকাল মানসিক চাপের মধ্যে রয়েছেন। কোম্পানির শীর্ষ ম্যানেজমেন্টের সমস্ত চাপ ম্যানেজারদের ওপর আসে এবং ম্যানেজাররা ওই চাপ কর্মচারীদের ওপর চাপিয়ে দেয়। অনেক ক্ষেত্রেই কর্মীদের চাকরিও খোয়াতে হয়।

    সম্প্রতি নিউ ইয়র্কে কর্মী ছাঁটাইয়ের এমনই একটি বিস্ময়কর ঘটনা ঘটেছে যা শিরোনামে পরিণত হয়ে গিয়েছে। বেটার ডট কমের (Better.com) সিইও বিশাল গর্গ (Vishal Garg) অনলাইড ভিডিও কলিং প্ল্যাটফর্মে জুম কলে (Zoom Call) ৯০০ জন কর্মীকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করেছেন। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম সিএনএন-এর একটি রিপোর্ট অনুযায়ী, কোম্পানির ভারতীয়-আমেরিকান সিইও গর্গ একটি জুম ওয়েবিনারে মোট ৯০০ জনের বেশি কর্মচারীকে ছাঁটাই করেছেন। সিইও গর্গ নিজেও জানিয়েছেন, ওয়েবিনারের মাধ্যমে কোম্পানির কর্মীদের ছাঁটাই করা হচ্ছে।

    জুম কলে উপস্থিত থাকলেই করা হচ্ছে বরখাস্ত

    জুম কলে কোম্পানির ওয়েবিনার চলাকালীন বেটার ডট কমের প্রধান কার্যনির্বাহী কর্মকর্তা বলেন, “আপনি যদি এই কলে থাকেন তার মানে আপনি এই দুর্ভাগ্যজনক গ্রুপের অংশ।” নিউ ইয়র্ক স্থিত এই কোম্পানির সিইও জুম কলে সংক্ষিপ্ত কিন্তু আবেগঘন সুরে আরও বলেন, দ্বিতীয়বারের মতো তাঁকে এমন কঠিন সিদ্ধান্ত নিতে হচ্ছে। কোম্পানির চিফ ফিনান্সিয়াল অফিসার (CFO) কেভিন রায়ান জানিয়েছেন, বাজারের প্রবল চাপের কারণে কোম্পানিকে এই দুর্ভাগ্যজনক সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে। যদিও, অন্য একটি প্রতিবেদন থেকে জানা গিয়েছে ছাঁটাই হওয়া এই কর্মীদের বিরুদ্ধে সহকর্মী এবং গ্রাহকদের কাছ থেকে চুরি করার অভিযোগ আনা হয়েছে।

    করোনার প্রকোপে চাকরি হারিয়েছেন এমন ব্যক্তিদের সাহায্য করছে ভারত সরকার

    এমপ্লয়িজ স্টেট ইনস্যুরেন্স কর্পোরেশনের (ESIC) যে সমস্ত সদস্যরা করোনা অতিমারীর কারণে চাকরি খুইয়েছেন ভারত সরকার তাঁদের তিন মাসের বেতন দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কেন্দ্রীয় শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রী ভূপেন্দ্র যাদব আরও জানিয়েছেন, যে সমস্ত ECSI সদস্যরা করোনাকালে প্রাণ হারিয়েছেন সরকার তাঁদের পরিবার বা আত্মীয়দের আজীবন আর্থিক সহায়তা প্রদান করবে।

    এছাড়াও, সরকার কোভিডের কারণে চাকরি হারিয়েছেন এমন বেকারদের পিএফ পরিশোধে সহায়তা করেছে। কেন্দ্রীয় সরকার ঘোষণা করেছে, যাঁরা অতিমারীর সময় চাকরি হারিয়েছেন সরকার তাঁদের পিএফ-এর প্রিমিয়াম পরিশোধ করবে।

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: