Home /News /business /
রাস্তায় থাকবে না Alto, Wagon বা Celerio! মারুতি সুজুকি বন্ধ করতে পারে ছোট গাড়ি উৎপাদন

রাস্তায় থাকবে না Alto, Wagon বা Celerio! মারুতি সুজুকি বন্ধ করতে পারে ছোট গাড়ি উৎপাদন

করোনা মহামারীর পর থেকে এমনিতেই ছোট গাড়ি বিক্রির বাজার খারাপ। অন্য দিকে দামি এবং বড় গাড়ির বিক্রি বেড়ে চলেছে।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: গাড়ি বিষয়ে সম্প্রতি নতুন নির্দেশিকা জারি করেছে কেন্দ্র। গত জানুয়ারিতে কেন্দ্রীয় সড়ক এবং পরিবহণমন্ত্রী নিতিন গড়করী এ দেশের সকল গাড়ি নির্মাতাদের জন্য একটি ড্রাফট তৈরি করেছেন। সেই ড্রাফট অনুযায়ী, সমস্ত নতুন গাড়িতে যাত্রীদের জন্য ছয়টি এয়ারব্যাগ (AirBag) রাখা বাধ্যতা মূলক করার কথা বলা হয়েছে। যাত্রী সুরক্ষার কথা মাথায় রেখেই এই সিদ্ধান্ত বলে কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে জানান হয়েছে।

আরও পড়ুন: সেভিংস অথবা FD-র মতো মিউচুয়াল ফান্ডে কেন নির্দিষ্ট হারে রিটার্ন মেলে না ?

কিন্তু, কেন্দ্রীয় সরকারের এই নতুন নিয়ম বিপাকে ফেলেছে গাড়ি নির্মাতাদের। তারা মনে করছে, সব বিভিন্ন ধরনের গাড়িতে ছয়টি এয়ারব্যাগ লাগানোর ফলে, বেড়ে যাবে গাড়ির দাম। এর ফলে গাড়ি বিক্রির উপরে তার প্রভাব পড়বে। স্বাভাবিক ভাবেই গাড়ির দাম বেড়ে গেলে তার বিক্রি কমে যাবে। মারুতি সুজুকি (Maruti Suzuki)-র চেয়ারম্যান আর সি ভার্গব (RC Bhargav) জানিয়েছেন, এর ফলে কম দামি, ছোট গাড়ির বিক্রির উপরে সরাসরি প্রভাব পড়বে। গত কয়েক বছরের মন্দার পর গাড়ি উৎপাদক সংস্থাগুলির আরও ক্ষতি হবে।

আরও পড়ুন: স্টক এবং শেয়ারের মধ্যে পার্থক্য কী, কোথায় বিনিয়োগে বেশি ঝুঁকি....

ছোট গাড়ি বন্ধের কারণ— আর সি ভার্গব জানিয়েছেন যে, করোনা মহামারীর পর থেকে এমনিতেই ছোট গাড়ি বিক্রির বাজার খারাপ। অন্য দিকে দামি এবং বড় গাড়ির বিক্রি বেড়ে চলেছে। তিনি আরও জানিয়েছেন যে, ছোট গাড়ি বিক্রি করে এমনিতেই বেশি লাভ হয় না। তার উপর নির্মাণ খরচ বাড়লে আগামী দিনে ভারতের সব থেকে বড় গাড়ি নির্মাতা সংস্থার তরফে বন্ধ করে দেওয়া হতে পারে ছোট গাড়ির উৎপাদন।

বেড়ে যেতে পারে ছোট গাড়ির দাম - সারা বিশ্বে গাড়ি বিক্রির বাজারে ভারতের স্থান পঞ্চম। বার্ষিক প্রায় ৩ মিলিয়ন ইউনিট গাড়ি বিক্রি হয় এখানে। ভারতের সব থেকে বড় গাড়ি নির্মাণকারী সংস্থা হল মারুতি সুজুকি। পরিসংখ্যান বলছে, ভারতে সব থেকে বেশি বিক্রি হয় ৪ লাখ টাকা থেকে ৭ লাখ টাকা দামি গাড়ি। এর মধ্যে হ্যাচব্যাক গাড়ির সংখ্যা সব থেকে বেশি। অটো মার্কেট ডেটা প্রদানকারী JATO Dynamics জানিয়েছে যে, ড্রাইভার এবং সামনের যাত্রীর জন্য এয়ারব্যাগ লাগানো এখনই বাধ্যতা মূলক। কিন্তু, এখন আরও চারটি এয়ারব্যাগ লাগাতে হলে প্রায় ১৭,৬০০ টাকা দাম বেড়ে যেতে পারে।

আরও পড়ুন: সঞ্চয় না বিনিয়োগ ? কোনটাই বেশি লাভবান হবেন, জেনে নিন বিস্তারিত....

বেশি দামে কি বিক্রি হবে গাড়ি? ভারতে JATO-এর কর্মকর্তা রবি ভাটিয়া (Ravi Bhatia) জানিয়েছেন যে, শুধু ১৭,৬০০ নয়, কিছু কিছু ক্ষেত্রে দাম বৃদ্ধির পরিমাণ আরও অনেকটা বেশি হতে পারে। কারণ অতিরিক্ত এয়ারব্যাগ লাগানোর জন্য বিভিন্ন গাড়ির ডিজাইনেও পরিবর্তন আনতে হতে পারে। তাতে খরচ বাড়তে পারে অনেকটাই। এর ফলে গাড়ির দাম বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। কিন্তু বেশি দামে ছোট গাড়ি বিক্রি হবে কিনা তা নিয়ে সন্দেহ রয়েছে।

Published by:Dolon Chattopadhyay
First published:

Tags: Maruti Suzuki

পরবর্তী খবর