Home /News /business /

IndiGo: টিকিট রিশেডেউলিংয়ে ‘চেঞ্জ ফি’ আপাতত নেওয়া হবে না, যাত্রীদের বিশেষ সুবিধা ইন্ডিগোর

IndiGo: টিকিট রিশেডেউলিংয়ে ‘চেঞ্জ ফি’ আপাতত নেওয়া হবে না, যাত্রীদের বিশেষ সুবিধা ইন্ডিগোর

File Photo

File Photo

IndiGo is waiving all change fees and reducing capacity: ইন্ডিগোর পক্ষ থেকে ঘোষণা করা হয়েছে, দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা আবার বাড়তে থাকায় অনেক যাত্রীরাই টিকিট রিশেডিউল করতে বাধ্য হচ্ছেন ৷ তাই সংস্থা এই টিকিট রিশেডিউলিংয়ে কোনও ‘চেঞ্জ ফি’ আপাতত নেবে না ৷

আরও পড়ুন...
  • Share this:

    কলকাতা: করোনার তৃতীয় ঢেউয়ে ফের বেকায়দায় পড়েছে বিমানসংস্থাগুলি ৷ কিছুদিন আগে পর্যন্ত দেশের করোনা পরিস্থিতি অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে ছিল ৷ বিমানযাত্রীর সংখ্যাও যথেষ্ট হচ্ছিল ৷ শুধু ডোমেস্টিক সেক্টরেই (Domestic Airlines) নয়, আন্তর্জাতিক উড়ানেও (International Airlines) যাত্রীসংখ্যা ধীরে ধীরে বাড়ছিল ৷ কিন্তু ফের বাধা হয়ে দাঁড়াল করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ‘ওমিক্রন’ ৷ যেভাবে কলকাতা, মুম্বই-সহ দেশের অন্যান্য শহরে এখন করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমশ বেড়েই চলেছে, তাতে বিমান ব্যবসা ফের ধাক্কা খেতে চলেছে ৷ সংক্রমণের আতঙ্কে অনেকেই এখন নিজের ট্রিপ ক্যানসেল করছেন ৷ যাত্রা পিছিয়ে দিচ্ছেন ৷ এবং ফ্লাইট রেশেডিউল করতে বাধ্য হচ্ছেন ৷ ইন্ডিগো তাই যাত্রীদের এখন টিকিটের ক্ষেত্রে বিশেষ সুবিধা দিচ্ছে (IndiGo is waiving all change fees and reducing capacity)৷

    আরও পড়ুন-পার্টিতে যাওয়া মেয়েদের এই ছবিতে লুকিয়ে রয়েছে বড় রহস্য; খেয়াল করে দেখলে চমকে উঠবেন!

    ইন্ডিগোর পক্ষ থেকে ঘোষণা করা হয়েছে, দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা আবার বাড়তে থাকায় অনেক যাত্রীরাই টিকিট রিশেডিউল করতে বাধ্য হচ্ছেন ৷ তাই সংস্থা এই টিকিট রিশেডিউলিংয়ে কোনও ‘চেঞ্জ ফি’ আপাতত নেবে না ৷ আগামী ৩১ জানুয়ারি, ২০২২ পর্যন্ত ইন্ডিগোর সব টিকিটের বুকিংয়েই এই সুবিধা থাকবে ৷ তবে যাত্রা হতে হবে ৩১ মার্চ ২০২২-এর মধ্যে (IndiGo is waiving change fees and is offering free changes for all new and existing bookings made up to 31st January, for flights up to 31st March 2022) ৷

    এরই পাশাপাশি ইন্ডিগোর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, যাত্রীসংখ্যা কম থাকায় অনেক রুটেই বিমান পরিষেবা আপাতত বন্ধ রাখা হচ্ছে ৷ প্রায় ২০ শতাংশ ফ্লাইট পরিষেবা আপাতত কমিয়ে দিয়েছে ইন্ডিগো ৷

    আরও পড়ুন-অসাধারণ মোহময়ী! মহিলাকে দেখেই ছেলেরা তাঁর প্রেমে পড়ে, সত্যিটা জানলেই পালায় !

    ফ্লাইট কোথাও ক্যানসেল হলে অন্তত ৭২ ঘণ্টা আগে যাত্রীদের জানিয়ে দেওয়া হবে যে তাদের পরবর্তী বিমান কখন এবং কবে ৷ এর ফলে যাত্রীরাও বিমানের টিকিট বদল করতে পারেন ইন্ডিগোর ওয়েবসাইটে প্ল্যান বি-র মাধ্যমে ৷ ইন্ডিগোর কাস্টমার সাপোর্টের কল সেন্টারগুলিও এখন অনেক বেশি পরিমাণে ব্যস্ত ৷ ফোন কলের বদলে তাই যাত্রীদের কোনও প্রয়োজনে সংস্থার অফিশিয়াল ওয়েবসাইট ব্যবহার করতেই ইন্ডিগোর পক্ষ থেকে অনুরোধ জানানো হয়েছে ৷

    Published by:Siddhartha Sarkar
    First published:

    Tags: Indigo

    পরবর্তী খবর