Home /News /business /
LIC IPO: রইল এলআইসি আইপিও-র খুঁটিনাটি, বিনিয়োগ করা উচিত হবে? বিশেষজ্ঞরা যা বলছেন!

LIC IPO: রইল এলআইসি আইপিও-র খুঁটিনাটি, বিনিয়োগ করা উচিত হবে? বিশেষজ্ঞরা যা বলছেন!

LIC IPO: অ্যাঙ্কর বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে ব্যাপক সাড়া পেয়েছে এলআইসি-র আইপিও। প্রায় ৫,৬২০ কোটি টাকার সাবস্ক্রিপশন হয়েছে।

  • Share this:

ভারতের পুঁজিবাজারের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় আইপিও নিয়ে হাজির হয়েছে এলআইসি। এই আইপিও-র মাধ্যমে পাবলিক সেক্টর কোম্পানিতে সরকার তার ৩.৫ শতাংশ শেয়ার বিক্রি করবে। এর মাধ্যমে ২১ হাজার কোটি টাকা ঘরে তুলতে চায় সরকার। ইতিমধ্যে অ্যাঙ্কর বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে ব্যাপক সাড়া পেয়েছে এলআইসি-র আইপিও। প্রায় ৫,৬২০ কোটি টাকার সাবস্ক্রিপশনহয়েছে।

৪ মে থেকে সাবস্ক্রিপশন শুরু হয়েছে। শনিবার এবং রবিবার-সহ ৯ মে পর্যন্ত আইপিও-র জন্য আবেদন করা যাবে। এলআইসি আইপিও-র প্রাইস ব্যান্ড শেয়ার প্রতি ৯০২ টাকা থেকে ৯৪৯ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। খুচরো বিনিয়োগকারী এবং এলআইসি কর্মীরা শেয়ার পিছু ৪৫ টাকা এবং পলিসিহোল্ডাররা শেয়ার পিছু ৬০ টাকা ছাড় পাবেন।

এলআইসি আইপিও-র দ্বিতীয় দিন সাবস্ক্রিপশন স্ট্যাটাস:

দেশের সবচেয়ে বড় আইপিও-র দ্বিতীয় দিন ছিল বৃহস্পতিবার। অফারে ছিল ১৬,২০,৭৮,০৬৭টি শেয়ার। তার প্রেক্ষিতে, ১৬,২৫,৩৫,১২৫টি বিড গৃহীত হয়েছে। সব মিলিয়ে, পলিসি হোল্ডারদের অংশটি তিন গুণের একটু বেশি সাবস্ক্রাইব করেছেন। অন্যদিকে কর্মীদের সংরক্ষিত অংশতে ২.১৪ গুণ সাবস্ক্রাইব করা হয়েছে।

আরও পড়ুন-বঙ্গোপসাগরে চোখ রাঙাচ্ছে ‘অশনি’, ঘূর্ণিঝড়ের অবস্থান এখন ঠিক কোথায় ? দেখে নিন

এলআইসি আইপিও নিয়ে উদ্বেগ:

এতে বিনিয়োগের ঝুঁকি এবং উদ্বেগ সম্পর্কে বলতে গিয়ে মতিলাল অসওয়ালের তরফে জানানো হয়েছে, এলআইসি তার এজেন্টদের উপর অতিরিক্ত নির্ভরশীল। পুরনো এজেন্টদের ধরে রাখা এবং নতুন এজেন্টদের নিয়ে আসার এই প্রক্রিয়া যদি কোনওভাবে ব্যহত হলে তা সরাসরি এলআইসি-র কর্মকাণ্ডে প্রভাব ফেলবে। সঙ্গে তারা আরও দুটো পয়েন্ট যোগ করেছে। প্রথমত, স্থিরতা মেট্রিক্সের প্রতিকূল পরিবর্তন এলআইসি-এর আর্থিক কর্মক্ষমতার উপর বস্তুগত প্রভাব ফেলতে পারে। দ্বিতীয়ত, নিয়মের পরিবর্তন হলেও ব্যবসায় তার বিরূপ প্রভাব পড়বে বলে মনে করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন-রাশিফল ৯ মে; দেখে নিন কেমন যাবে আজকের দিন

এলআইসি আইপিও–জিএমপি:

গ্রে মার্কেটে এলআইসি শেয়ারের দাম অপরিবর্তিত রয়েছে। জানা গিয়েছে, শুক্রবার গ্রে মার্কেটে এলআইসি শেয়ার ৬৫ টাকা প্রিমিয়ামে পাওয়া যাচ্ছে। বৃহস্পতিবারও একই দর ছিল। অর্থাৎ ২৪ ঘণ্টায় কোনও পরিবর্তন হয়নি। তবে এলআইসি আইপিও জিএমপি গত তিন দিনে প্রায় ৯০ টাকা থেকে ৬৫ টাকার স্তরে নেমে এসেছে, যা মূলত নেতিবাচক সেকেন্ডারি মার্কেট সেন্টিমেন্টের কারণে। দালাল স্ট্রিট ট্রেড প্যাটার্নে ট্রেন্ড রিভার্সাল হয়ে গেলে গ্রে মার্কেটের সেন্টিমেন্টে কিছুটা উর্ধ্বগতির আশা করেছিলেন বাজার বিশেষজ্ঞরা।

তাহলে কি আইপিও কেনা উচিত:

নির্মল ব্যাং ইনস্টিটিউশনাল ইক্যুইটিজ বলছে, সুযোগ পেলে এলআইসি ভালো পারফর্ম করবে। ১৪ থেকে ১৬ শতাংশ হারে বৃদ্ধি পাবে বলে আশা করা হচ্ছে। অ্যাঞ্জেল ওয়ান বলছে, ‘ব্যক্তিগত বিমা ব্যবসায় মার্কেট শেয়ার লস এবং কম মার্জিন নিয়ে এলআইসি-র উদ্বেগ রয়েছে। তবে এই নিয়ে সামগ্রিকভাবে এলআইসি আইপিওকে বিচার করা ঠিক হবে না’। রেলিগার ব্রোকিংও ভবিষ্যতে এলআইসি-র ব্যাপক বৃদ্ধির আশা করছে। তাদের মতে, ভারতে বিপুল জনসংখ্যা। তাই স্বাভাবিকভাবে ভবিষ্যতে বিমার চাহিদা আরও বাড়বে।

Keywords:

Published by:Rachana Majumder
First published:

Tags: LIC, LIC IPO

পরবর্তী খবর