Home /News /business /

Business Loan: বিজনেস লোন নিতে চাইছেন? আগে জেনে নিন এই ৫ বিষয়!

Business Loan: বিজনেস লোন নিতে চাইছেন? আগে জেনে নিন এই ৫ বিষয়!

Business Loan: বিজনেস লোন নেওয়ার জন্য আবেদন করার আগে জেনে নেওয়া দরকার কয়েকটি বিষয়।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: বর্তমানে বাজারে বিভিন্ন ধরনের লোণ রয়েছে। এর মধ্যে একটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ লোন হল বিজনেস লোন। নিজেদের ব্যবসা শুরু করার জন্য অথবা নিজেদের ব্যবসা সম্প্রসারণ করার জন্য বিজনেস লোনের দরকার হয়। কিন্তু বিজনেস লোন নেওয়ার জন্য আবেদন করার আগে জেনে নেওয়া দরকার কয়েকটি বিষয়। এক নজরে দেখে নেওয়া যাক এই বিষয়ে ৫টি খুবই গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্নের উত্তর।

আরও পড়ুন: কম ঝুঁকিতে প্রতি মাসে আয় করতে চান মোটা টাকা? ইনভেস্ট করুন এই কয়েক বিকল্পে!

১) কোন ধরনের বিজনেস লোন দরকার

বাজারে বিভিন্ন ধরনের বিজনেস লোন রয়েছে। নিজেদের প্রয়োজন অনুযায়ী এদের মধ্যে থেকে বেছে নিতে হবে বিজনেস লোন। লোনের টাকার পরিমাণ এবং সময়ের হিসাব করে বেছে নেওয়া দরকার বিজনেস লোন। কীসের জন্য বিজনেস লোন দরকার এবং কত দিনে সেই লোনের টাকা পরিশোধ করা যাবে, তার একটি হিসাব করেই বিজনেস লোন বেছে নেওয়া দরকার। বিভিন্ন ধরনের বিজনেস লোনের সুদের হার বিভিন্ন রকম। অনেক বিজনেস লোনের বিভিন্ন রকম শর্ত থাকে, অনেক বিজনেস লোনের ক্ষেত্রে আবার কিছু অ্যাসেট জমা রাখতে হয়। তাই সব কিছু চিন্ত-ভাবনা করে বিজনেস লোনের জন্য আবেদন করা দরকার।

আরও পড়ুন: আপনার শহরে কত টাকায় মিলছে ১ লিটার পেট্রোল ? দেখে নিন...

২) সুদের হার

বিজনেস লোন নেওয়ার আগে মাথায় রাখতে হবে সুদের পরিমাণ কত। কত টাকা লোন হিসাবে নেওয়া হচ্ছে এবং কত টাকা পরিশোধ করতে হবে তার একটি ধারণা থাকা দরকার। যে বিজনেস লোন নেওয়া হবে তার সুদের হার কত, কত দিনে পরিশোধ করতে হবে এবং কত টাকা লোন হিসাবে পাওয়া যায় ইত্যাদি সব কিছুর একটি হিসাব আগে থেকেই করে নেওয়া দরকার। সব কিছু হিসাব করে নিলে বোঝা যাবে কত টাকা লোন হিসাবে পাওয়া যাচ্ছে এবং কত টাকা সুদ হিসাবে পরিশোধ করতে হবে।

৩) ধারের পরিমাণ

বিজনেস লোন নেওয়ার আগে হিসেব করে নিতে হবে কত টাকা ধার রয়েছে, কত টাকা বিজনেসের পেছনে ব্যবহার করা যাবে এবং কত টাকা ব্যাঙ্কে রেখে দেওয়া যাবে। যে টাকা ব্যাসার জন্য ব্যবহার করা হবে এবং যে টাকা ধারের পেছনে ব্যয় করা হবে তার একটি হিসাব করে নিয়ে লোনের জন্য আবেদন করতে হবে। এর ফলে বোঝা যাবে স্পষ্ট ভাবে যে কত টাকা লোন নিলে সুবিধা হবে।

আরও পড়ুন: বিরাট ঝটকা! PNB-তে এবার ন্যূনতম ব্যালান্স দ্বিগুণ! কম টাকা রাখলেও চার্জ Double

৪) বিজনেস লোনের পদ্ধতি

বিজনেস লোনের জন্য আবেদন করার পর অনেকগুলো পদ্ধতি রয়েছে। যারা লোন দেবে তারা সেই আবেদনের ভিত্তিতে সবকিছু পরীক্ষা করে দেখবে। এই ক্ষেত্রে যে লোনের জন্য আবেদন করেছে তার ক্রেডিট স্কোর কেমন, অন্য কোথাও লোন রয়েছে কি না, কীসের জন্য লোন নিতে চায় ইত্যাদি সকল কিছু যাচাই করার পর লোনের আবেদনপত্র গৃহীত হবে।

৫) ক্রেডিট স্কোর

বিজনেস লোন পাওয়ার ক্ষেত্রে এটি একটি খুব গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। শুধুমাত্র বিজনেস লোন নয়, যে কোনও ধরনের লোণের ক্ষেত্রেই ক্রেডিট স্কোর খুব গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। যার ক্রেডিট স্কোর যত ভালো, তার পক্ষে লোন পাওয়া তত সহজ। তাই সব সময় নিজেদের ক্রেডিট স্কোরের দিকে নজর রাখতে হবে। এটি সব সময় ভালো রাখার চেষ্টা করতে হবে।

Published by:Dolon Chattopadhyay
First published:

Tags: Business Loan, Loan

পরবর্তী খবর