Home /News /business /
Business News: মানিব্যাক পলিসি নিয়েছেন? দেখে নিন কী ভাবে গণনা করা হবে আপনার রিটার্ন!

Business News: মানিব্যাক পলিসি নিয়েছেন? দেখে নিন কী ভাবে গণনা করা হবে আপনার রিটার্ন!

প্রতীকী ছবি ৷

প্রতীকী ছবি ৷

Business News: মানি ব্যাক পলিসি আসলে এমন ভাবে তৈরি করা হয় যাতে, একটি নির্দিষ্ট সময় অন্তর টাকা ফেরত পাওয়া যায়।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: মানিব্যাক পলিসিতে (Money Back Policies) বিনিয়োগের রিটার্ন পাওয়া যায় কী ভাবে? পলিসি ম্যাচিওর করার সময় জীবিত ব্যক্তি কত টাকা পেয়ে থাকেন?

দেখে নেওয়া যাক এক নজরে।

মানি ব্যাক পলিসি আসলে এমন ভাবে তৈরি করা হয় যাতে, একটি নির্দিষ্ট সময় অন্তর টাকা ফেরত পাওয়া যায়। আর এই টাকা হল আদতে নিশ্চিত রাশি (Sum Assured) অংশের একটি নির্দিষ্ট ভাগ। এই পলিসির বিশেষত্ব হল পলিসি ম্যাচিওর করার সময়ও নিশ্চিত রাশির একটি নির্দিষ্ট অংশ হাতে পাওয়া যায়। সঙ্গে থাকে লয়ালটি (Loyalty) এবং অ্যাকিওর্ড বোনাস (Accrued Bonus)। শতাংশের হারে লয়ালটি বোনাস নির্দিষ্ট থাকে, অন্য দিকে অ্যাকিওর্ড বোনাস প্রতি অর্থবর্ষের শেষে ঘোষণা করা হয় বিমা সংস্থার তরফে। বিমাকারী বিনিয়োগের উপরে কতটা রিটার্ন পাচ্ছেন এটা তার উপর নির্ভর করে।

আরও পড়ুন:  Indian Railways: রেলের বাম্পার সিদ্ধান্ত! Waiting-এর দিন শেষ! এই ট্রেনগুলিতে টিকিট কাটলেই সর্বদা Confirm Tickets?

ROI বা বিনিয়োগের রিটার্ন গণনা করতে হলে, প্রথমেই প্রত্যাশিত নগদ জোগান এবং প্রিমিয়াম বর্তমান সময় পর্যন্ত ছাড় হিসেবে ধরতে হবে। এর উফরেই নির্ভর করবে বিনিয়োগকারী কী পরিমাণ টাকা ফেরত পেতে চলেছেন।

ধরা যাক একটি মানিব্যাক পলিসিতে, কোনও ব্যক্তি আগামী ১০ বছরের জন্য বার্ষিক ১০,০০০ টাকা দিতে হবে বলে আশা করছেন। এর বাইরে পলিসির তৃতীয়, ষষ্ঠ এবং নবম বার্ষিকীতে ওই ব্যক্তিকে ৩০,০০০ টাকা দেওয়া হবে বলে নিশ্চিত করা হয়েছে। এছাড়াও, ১০ বছরের শেষে পলিসি ম্যাচিওর করার সময় অতিরিক্ত ৩০,০০০ টাকা প্রদানের নিশ্চয়তা দেওয়া হয়েছে। এই ধরনের ক্ষেত্রে, পরিকল্পনার কার্যকর ফলন হবে ৭.৫ শতাংশ।

এর বাইরে ধরা যাক কেউ গুরুতর অসুস্থতার বেনিফিট রাইডার-সহ ৫০ লাখের একটি মেয়াদী বিমা পলিসি করেছন। দীর্ঘমেয়াদে তার কোনও উপকারিতা আছে কি না তা জেনে নেওয়া যাক। না কি স্বাস্থ্য বিমা কেনাই ভাল?

আরও পড়ুন:  Share Market News: সেনসেক্সের ৬৩২ পয়েন্ট লাফ, নিফটি বন্ধ হল ১৬,৩৫০-এর উপরে

একটি সাধারণ স্বাস্থ্য বিমা এবং একটি গুরুতর অসুস্থতা পরিকল্পনা বিমার উদ্দেশ্য ভিন্ন। স্বাস্থ্য বিমা পরিকল্পনার অর্থ হল সব ধরনের হাসপাতালে ভর্তির খরচ বহন করা। এর আওতায় পড়তে পারে ভেক্টর-বাহিত রোগ যেমন ডেঙ্গু বা ক্যানসারের মতো গুরুতর অসুস্থতার চিকিৎসা। কিন্তু স্বাস্থ্য বিমা প্ল্যান শুধুমাত্র হাসপাতালে ভর্তির সময়ের খরচ পরিশোধ করে।

কোনও মানুষ গুরুতর অসুস্থ হলে শুধু যে হাসপাতালে ভর্তির খরচ লাগে, তা তো নয়। এর বাইরেও যথেষ্ট আর্থিক বোঝা জড়িত থাকে। তার মধ্যে যেমন রয়েছে ওষুধ ও পথ্যের খরচ, তেমনই থাকে দীর্ঘ কর্মবিরতি ও সেই হেতু ভবিষ্যৎ আয়ের ক্ষমতা হ্রাস প্রভৃতি।

তাই, গুরুতর অসুস্থতা রাইডার-সহ বিমায় এই আর্থিক সঙ্কট লাঘবের খানিকটা চেষ্টা করে। কিন্তু সাধারণ স্বাস্থ্য বিমা একটি রোগের চিকিৎসা খরচ মেটায়। এর সঙ্গে রোগীর প্রকৃত খরচের সম্পর্ক নেই। ঘটনা হল দু’টি বিমাই একসঙ্গে চালান যায়। তাই গুরুতর অসুস্থতার রাইডার রাখার পাশাপাশি একটি পৃথক স্বতন্ত্র স্বাস্থ্য বিমা পরিকল্পনাও কিনে রাখা যায়।

First published:

Tags: Business

পরবর্তী খবর