• Home
  • »
  • News
  • »
  • business
  • »
  • Equity Mutual Funds: ইক্যুইটিতে বিনিয়োগে আগ্রহী? সেরা সময় কোনটা হতে পারে?

Equity Mutual Funds: ইক্যুইটিতে বিনিয়োগে আগ্রহী? সেরা সময় কোনটা হতে পারে?

When Is The Best Time To Invest In Equity Mutual Funds? (Representative Image)

When Is The Best Time To Invest In Equity Mutual Funds? (Representative Image)

Best Time To Invest In Equity Mutual Funds: প্রায় সকলের মনেই কোথাও বিনিয়োগ করার আগে কয়েকটি প্রশ্ন ঘুরপাক খায়।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: নিজেদের ভবিষ্যতের কথা মাথায় রেখে প্রায় সকলেই কোথাও না কোথাও বিনিয়োগ করে। কিন্তু প্রায় সকলের মনেই কোথাও বিনিয়োগ করার আগে কয়েকটি প্রশ্ন ঘুরপাক খায়। সেগুলো হল বিনিয়োগ করার জন্য অনেক দেরি হয়ে গিয়েছে, বিনিয়োগ করার এটাই সঠিক সময় নয়, কেন সেখানে বিনিয়োগ করা দরকার, কেন মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগ করতে হবে, মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগ (Equity Mutual Funds) করার সেরা সময় কোনটা ইত্যাদি। যাদের মনে এই সকল প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে, তারা বিনিয়োগ শুরু করার জন্য জেনে নিন কয়েকটি সহজ উপায় (Best Time To Invest In Equity Mutual Funds)।

আরও পড়ুন-আজও বৃষ্টির পূর্বাভাস ! সপ্তাহান্তে কি নামবে তাপমাত্রা ? যা জানাচ্ছে আবহাওয়া দফতর

১) সময় নষ্ট না করে বিনিয়োগ শুরু করা উচিত

বিনিয়োগের শুরুতেই একটি কথা মাথায় রাখা দরকার যে যত আগে বিনিয়োগ করা শুরু করবে তার তত বেশি রিটার্ন পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ধরা যাক অজয় প্রতি মাসে ২,০০০ টাকা করে বিনিয়োগ করা শুরু করেছে ২৫ বছর বয়সে। বিজয় প্রতি মাসে ২০০০ টাকা করে বিনিয়োগ করা শুরু করেছে ৩০ বছর বয়সে এবং রাম প্রতি মাসে ২০০০ টাকা করে বিনিয়োগ করা শুরু করেছে ৪০ বছর বয়সে। তাহলে ৬০ বছর বয়স পর্যন্ত অজয়ের বিনিয়োগের পরিমাণ হবে ৮,৪০,০০০ টাকা, বিজয়ের বিনিয়োগের পরিমাণ ৭,২০,০০০ টাকা এবং রামের বিনিয়োগের পরিমাণ ৪,৮০,০০০ টাকা। ১২ শতাংশ হারে সুদ পেলে অজয় ৩৫ বছর ধরে বিনিয়োগ করে ৮,৪০,০০০ টাকার বদলে রিটার্ন পাবে ১.২৮ কোটি টাকা। বিজয় ৩০ বছর ধরে বিনিয়োগ করে ৭,২০,০০০ টাকার বদলে রিটার্ন পাবে ৬৯.৮৯ লাখ টাকা। রাম ২০ বছর ধরে বিনিয়োগ করে ৪,৮০,০০০ টাকার বদলে রিটার্ন পাবে ১৯.৭৮ লাখ টাকা।

২) সঠিক ফান্ড বেছে নিতে হবে

বিনিয়োগ শুরু করার আগে বাজার সম্পর্কে ভালো করে জেনে নিতে হবে। কোথায় বিনিয়োগ করলে ভালো রিটার্ন পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে সেই সম্পর্কে সঠিক ধারণা থাকা উচিত। শেয়ার বাজারে যেহেতু ওঠা-নামা লেগে থাকে, তাই বিনিয়োগ করার আগে সেই সকল ফান্ড সম্পর্কে ভালো করে জেনে নেওয়া দরকার। এমন ফান্ডে বিনিয়োগ করা দরকার যারা অতীতে তার বিনিয়োগকারীদের ভালো রিটার্ন দিয়েছে।

আরও পড়ুন-শিকারকে তরলে পরিণত করে ফেলতে পারে এই বিষাক্ত প্রাণী, যত জানবেন শিহরণ জাগবে!

৩) নিয়মিত বিনিয়োগ

বিনিয়োগের শুরুতেই যদি ইক্যুইটি (Equity) ফান্ডে বিনিয়োগ করতে হয় তাহলে সবথেকে ভালো অপশন হল সিস্টেমেটিক ইনভেস্টমেন্ট প্ল্যান (SIP)। সিস্টেমেটিক ইনভেস্টমেন্ট প্ল্যানের মাধ্যমে লম্বা সময় ধরে বিনিয়োগ করে গেলে ভালো রিটার্ন পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। মাসিক, ত্রৈমাসিক, অর্ধ বার্ষিক এবং বার্ষিক হারে একটানা বিনিয়োগ করে গেলে একটা ভালো ফান্ড গড়ে তোলা সম্ভব।

৪) ধৈর্য ও শৃঙ্খলা

বিনিয়োগের শুরুতেই মাথায় রাখা দরকার যে ভালো রিটার্ন পাওয়ার জন্য ধৈর্য ও শৃঙ্খলা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগ করলে ধৈর্য ধরতে হবে বেশি রিটার্ন পাওয়ার জন্য। একটি নির্দিষ্ট শৃঙ্খলার মাধ্যমে বিনিয়োগ করে যেতে পারলে এবং ধৈর্য সহকারে অপেক্ষা করতে পারলে ভালো ফান্ড গড়ে তোলা সম্ভব

Published by:Siddhartha Sarkar
First published: