Home /News /business /
Air New Zealand: বিশ্বের প্রথম ইকোনমি ক্লাস বাঙ্ক বেড! সস্তার বিমানযাত্রার অভিজ্ঞতা আমূল বদলে দিতে চলেছে এই সংস্থা

Air New Zealand: বিশ্বের প্রথম ইকোনমি ক্লাস বাঙ্ক বেড! সস্তার বিমানযাত্রার অভিজ্ঞতা আমূল বদলে দিতে চলেছে এই সংস্থা

Photo Courtesy: Air New Zealand

Photo Courtesy: Air New Zealand

World's First Economy Class Bunk Bed: ইকোনমি ক্লাসের যাত্রীদের বাজেটের কথা মাথায় রেখেই শুরু করছে ইকোনমি ক্লাস বাঙ্ক বেড। যাত্রীদের বিশ্বের প্রথম লেয়ার ফ্ল্যাট বেডের অফার দিচ্ছে এয়ার নিউজিল্যান্ড ৷

  • Share this:

    #ওয়েলিংটন: আমাদের মধ্যে অনেকেরই পছন্দের নির্দিষ্ট এয়ারলাইন থাকে। অনেক সময়ই স্বাচ্ছন্দ্যের কথা ভাবতে গিয়ে আমরা বাজেটের বাইরেও এয়ার টিকিট করিয়ে নিই। তবে এবার থেকে এয়ার নিউজিল্যান্ড ইকোনমি ক্লাসের যাত্রীদের বাজেটের কথা মাথায় রেখেই শুরু করছে ইকোনমি ক্লাস বাঙ্ক বেড। যাত্রীদের বিশ্বের প্রথম লেয়ার ফ্ল্যাট বেডের অফার দিচ্ছে এয়ার নিউজিল্যান্ড (Air New Zealand)।

    আকাশপথে ভ্রমণ একসময় সত্যিই উপভোগ্য ছিল। কিন্তু বর্তমানে যাত্রী সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায়, সিটের স্থান সংকোচন, জ্বালানি খরচের ধাক্কা সামলাতে খাবার থেকে শুরু করে লাগেজ চেকিং পর্যন্ত সব কিছুর জন্য চার্জ করছে এয়ারলাইন সংস্থাগুলি। অভিযোগ করলে উল্টে খরচ বৃদ্ধি বা প্রতিযোগিতার দোহাই দেয় বেশিরভাগ কোম্পানি।

    আরও পড়ুন- ১৫ সেকেন্ডে তিনটে টিকিট কাটা! মেশিনকে হার মানালেন এই ব্যক্তি, প্রমাণ দিলেন সরকারি কর্মীমাত্রই অলস নয়

    এই পরিস্থিতিতে এয়ার নিউজিল্যান্ডের মতো এয়ারলাইন সংস্থা প্রথম যাত্রীদের সুবিধার কথা মাথায় রেখে স্বল্প খরচে ওয়ার্ল্ড ক্লাস সার্ভিসের সুযোগ দিচ্ছে। এই বিমানসংস্থাটিতে আগামী ২০২৪ সালের মধ্যেই আটটি নতুন বোয়িং ৭৮৭-৯ ড্রিমলাইনার সরবরাহ করা হবে। এই ড্রিমলাইনারগুলি বর্তমান ফ্লিটকে আপগ্রেড করে যাত্রীদের বিলাসবহুল ফ্লাইং এক্সপেরিয়েন্স দিতে বদ্ধপরিকর। এতে বিজনেস ক্লাসের সার্ভিসেও পরিবর্তন আসবে, যাত্রীদের প্রাইভেসির কথা মাথায় রেখে সিট অর্গানাইজ করা হবে, দু’প্রান্তে বসা দু’জন যাত্রী চাইলে একই ডাইনিং স্পেসও শেয়ার করতে পারবেন। শুধুমাত্র বিজনেস ক্লাস নয়, নতুন ফার্নিশিংয়ের সুবিধে পাবেন সাধারণ যাত্রীরাও।

    ইকোনমি সিট

    ড্রিমলাইনার্সে সবচেয়ে সস্তা ফ্লাইং এক্সপেরিয়েন্স নিতে পারবেন সাধারণ যাত্রীরাও। আগের তুলনায় আরও বেশি স্পেস দেওয়া থেকে শুরু করে স্টোরেজ ক্যাপাসিটি বাড়ানো, সিটব্যাকের স্ক্রিনের আয়তন বাড়ানো, ব্লুটুথের মাধ্যমে ইন-ফ্লাইট এন্টারটেন সিস্টেমে ওয়্যারলেস হেডফোনের ব্যবহার সহ আরও নানা সুযোগ থাকছে যাত্রীদের জন্য।

    আরও পড়ুন- ভূমিকম্পের আঁচ পেয়েই যেভাবে মেয়ের প্রাণ বাঁচালেন বাবা ভাবা যায় না! ভিডিও গায়ে কাঁটা জাগাবে

    ইকোনমি স্কাইনেস্ট

    এয়ার নিউজিল্যান্ডের ড্রিমলাইনার ফ্লিটে সবচেয়ে আপগ্রেডেড ফিচার নতুন ইকোনমি স্কাইনেস্ট অপশন। আমাদের বাড়ির সাধারণ বিছানার তুলনায় অনেকাংশেই ছোট হলেও আকাশপথে ভ্রমণের সময় যাত্রীদের বিশ্রামের জন্য এটি পর্যাপ্ত। বিশ্রামের জন্য সাধারণ বেডের পাশাপাশি যাত্রীরা বাঙ্ক বেডও নিতে পারেন। সঙ্গে থাকছে খাদ্য ও পানীয়ের সুবিধে। বিজনেস ক্লাসের মতো আলাদা বেড না থাকলেও এতে এমন ডিভাইডার ব্যবহার করা হবে যাতে পাশের শব্দ প্রতিরোধ করে যাত্রীরা নির্দ্বিধায় ঘুমোতে পারবেন। তবে আপাতত এয়ার নিউজিল্যান্ড প্রতিটি ফ্লাইটে ছ'টি ইকোনমি স্কাইনেস্ট স্লিপ পডে মাত্র একটি করে সেট অফার করছে।

    Published by:Siddhartha Sarkar
    First published:

    Tags: Air New Zealand

    পরবর্তী খবর