Home /News /birbhum /
Birbhum: প্রাকৃতিক দুর্যোগে ফসলের ক্ষতি! ক্ষতিপূরণ পাওয়ার উপায় বাতলাতে প্রচারে নামল ট্যাবলো

Birbhum: প্রাকৃতিক দুর্যোগে ফসলের ক্ষতি! ক্ষতিপূরণ পাওয়ার উপায় বাতলাতে প্রচারে নামল ট্যাবলো

title=

অতিবৃষ্টি অথবা অনাবৃষ্টি, বা অন্য কোনও প্রাকৃতিক দুর্যোগ। বিভিন্ন সময় ফসলের বিপুল পরিমাণ ক্ষতি হয়ে থাকে। এই ধরনের ঘটনার ফলে আর্থিকভাবে ক্ষতির সম্মুখীন হতে হয় চাষীদের।

  • Share this:

    #বীরভূম : অতিবৃষ্টি অথবা অনাবৃষ্টি, বা অন্য কোনও প্রাকৃতিক দুর্যোগ। বিভিন্ন সময় ফসলের বিপুল পরিমাণ ক্ষতি হয়ে থাকে। এই ধরনের ঘটনার ফলে আর্থিকভাবে ক্ষতির সম্মুখীন হতে হয় চাষীদের। তবে সেই ক্ষতি থেকে যাতে চাষিরা রক্ষা পান তার জন্য আনা হয়েছে বাংলা শস্য বীমা। বাংলা শস্য বীমার আওতায় এবার অন্যান্য জেলার পাশাপাশি বীরভূমে খরিফ ২০২২ নাম নথিভূক্তকরণের প্রক্রিয়া শুরু হল। এই প্রক্রিয়া চলবে আগামী ৩১ আগস্ট পর্যন্ত। এই বীমার সুবিধা সম্পর্কে চাষীদের ঘরে ঘরে বার্তা পৌঁছে দেওয়ার জন্য মঙ্গলবার সিউড়িতে একটি ট্যাবলোর উদ্বোধন করা হয়। ট্যাবলোর এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কৃষি আধিকারিক ডঃ এ কে এম মিজানুর আহসান। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসনের অন্যান্য আধিকারিকরা।

    এই বাংলা শস্য বীমার প্রিমিয়ামের পুরো খরচ দেবে রাজ্য সরকার। খরা অথবা প্রতিকূল আবহাওয়ার কারণে যদি ৫০ শতাংশের বেশি জায়গায় ধান রোপণ করার পর যদি ক্ষতির সম্মুখীন হয় তাহলে ওই চাষী ২৫ শতাংশ ক্ষতিপূরণ হিসাবে পাবেন এবং বীমার মেয়াদ শেষ হয়ে যাবে। ফসলের ক্ষেত্রে ৫০ শতাংশের বেশি ধান ক্ষতি হলে সেক্ষেত্রে সর্বাধিক ৫০ শতাংশ ক্ষতিপূরণ পাবেন চাষিরা।

    আরও পড়ুনঃ এক টাকার ডাক্তার সুশোভন ব্যানার্জির শেষ যাত্রা, চোখের জলে বিদায়

    এই বীমার আওতায় নাম নথিভুক্ত করার জন্য চাষীদের নিকটবর্তী গ্রাম পঞ্চায়েত স্তরে বীমা সংস্থার প্রতিনিধিদের সঙ্গে অথবা বিমা সংস্থার টোল ফ্রি নম্বর ১৮০০ ৫৭২০২৫৮ নম্বরে যোগাযোগ করতে হবে। নাম নথিভুক্ত করার জন্য চাষীদের ভোটার আইডি কার্ড, আধার কার্ড, নিজের নামে ব্যাংকের পাস বই, খতিয়ান বা পর্চা বা দলিলের প্রতিলিপি জমা দিতে হবে।

    আরও পড়ুনঃ অভাবনীয়! ১০ বছর আগে চুরি যাওয়া মোটরবাইক ফিরে পেলেন মালিক

    ব্যাংকের পাস বইয়ের পরিবর্তে বাতিল চেক দেওয়া যেতে পারে। যদি কোন চাষীর নিজের নামে জমি না থাকে তাহলে চাষের জমির আয়তন সমেত শংসাপত্র গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান থেকে নিয়ে জমা করতে হবে। এর পাশাপাশি ফসল রোপনের শংসাপত্র জমা দিতে হবে।

    Madhab Das
    Published by:Soumabrata Ghosh
    First published:

    Tags: Birbhum, Suri

    পরবর্তী খবর