Home /News /birbhum /
Birbhum: এ কি কাণ্ড! স্বামী-স্ত্রীতে ঝামেলা! রাগের বশে কুয়োয় ঝাঁপ দিল স্বামী!

Birbhum: এ কি কাণ্ড! স্বামী-স্ত্রীতে ঝামেলা! রাগের বশে কুয়োয় ঝাঁপ দিল স্বামী!

সংসারে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে মাঝে মাঝেই খুঁটিনাটি লেগে থাকে। প্রায় অধিকাংশ বাড়িতেই এমন ঘটনা দেখা যায়। তবে সেই খুঁটিনাটি ঘটনা সময়ের পরিপ্রেক্ষিতে আবার মলিন হয়ে যায়।

  • Share this:

    বীরভূম : সংসারে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে মাঝে মাঝেই খুঁটিনাটি লেগে থাকে। প্রায় অধিকাংশ বাড়িতেই এমন ঘটনা দেখা যায়। তবে সেই খুঁটিনাটি ঘটনা সময়ের পরিপ্রেক্ষিতে আবার মলিন হয়ে যায়। পুনরায় সুখের সংসার করতে দেখা যায় দম্পতিদের। তবে এই স্বামী-স্ত্রীর ঝামেলায় রাগের বশে স্বামী দিলেন কুয়োয় ঝাঁপ। কুয়োয় ঝাঁপ দেওয়ার এমন ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার সকালবেলায় বীরভূমের মহম্মদ বাজারে। সকাল ১০:৩০ নাগাদ এমন ঘটনাটি ঘটে মহম্মদ বাজার থানা এলাকার কাঁইজুলি বোর্ডিং পাড়ায়। ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়ায়। তড়িঘড়ি খবর দেওয়া হয় মহম্মদ বাজার থানার পুলিশকে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে কুয়োয় ঝাঁপ দেওয়া ওই ব্যক্তিকে উদ্ধারের কাজে নামে।

    ওই দম্পতির প্রতিবেশী সাহিদা বিবি জানিয়েছেন, গতকাল থেকেই ওই দম্পতির মধ্যে ঝামেলা চলছিল। সেই ঝামেলা গড়ায় প্রশাসন পর্যন্ত। পরে প্রশাসন এসে তাদের বুঝিয়ে যায়। আমরা প্রতিবেশীরাও তাকে বোঝায়। রাতে সবকিছু ঠিকঠাক হয়ে গেলেও শুক্রবার সকাল বেলা ফের তাদের মধ্যে ঝামেলা শুরু হয়। সেই সময় স্বামী নাসু শেখ রাগের বশে কুয়োয় ঝাঁপ দিয়ে দেন।

    আরও পড়ুনঃ বক্রেশ্বরে তৈরি হল দীর্ঘ কজওয়ে

    নাসু শেখ (৩৭) (আব্দুস সালাম) পেশায় একজন গাড়ি মিস্ত্রি। তিনি কুয়োয় ঝাঁপ দেওয়ার পরেই এলাকায় শুরু হয় চিৎকার চেঁচামেচি। কুয়োটি খুব সরু হওয়ার কারণে স্থানীয় বাসিন্দারা সাহস পাননি তাকে উদ্ধার করার। এমত অবস্থায় খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে মহম্মদ বাজার থানার পুলিশ কর্মীরা। তারা এসে দড়ি দিয়ে ওই ব্যক্তিকে উদ্ধারের কাজে নামেন। বেশ কিছুক্ষণের প্রচেষ্টায় ওই ব্যক্তিকে কুয়ো থেকে তুলে আনা সম্ভব হয়।

    আরও পড়ুনঃ পানীয় জলের দাবি পূরণে কলসি, বালতি নিয়ে পথ অবরোধ গ্রামবাসীদের

    তবে কুয়োতে বেশি জল না থাকার কারণে ওই ব্যক্তির কিছু হয়নি। তার আত্মহত্যার চেষ্টা বিফলে যায়। তবে মহম্মদ বাজার থানার পুলিশ এইভাবে তৎপরতার সঙ্গে ওই ব্যক্তিকে উদ্ধার করে স্থানীয় স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যাওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে পুলিশের প্রশংসা করেছেন বাসিন্দারা।

    Madhab Das
    First published:

    Tags: Birbhum

    পরবর্তী খবর