কার্যত লকডাউনে পর্যটকশূন্য বক্রেশ্বর, দুর্ভোগের দিন কাটছে ব্যবসায়ী থেকে ভিক্ষুকদের

Bangla Editor | News18 Bangla | 04:35:12 PM IST Jun 08, 2021

কার্যত লকডাউনে পর্যটকশূন্য বক্রেশ্বর, দুর্ভোগের দিন কাটছে ব্যবসায়ী থেকে ভিক্ষুকদের বীরভূমে যেসকল পর্যটক কেন্দ্রগুলি রয়েছে তার মধ্যে অন্যতম হলো বক্রেশ্বর। সতীপীঠ ছাড়াও মহাদেবের তীর্থক্ষেত্র হিসেবে পরিচিত এই বক্রেশ্বর। বছরের বেশিরভাগ সময়ই বীরভূম ছাড়াও রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে অজস্র পর্যটকদের ভিড় জমে এই এলাকায়। তবে বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে গণপরিবহন বন্ধ থাকায় পর্যটক শূন্য হয়ে পড়েছে এই তীর্থ ক্ষেত্র। পর্যটক শূন্য হয়ে পড়ার কারণে দুর্ভোগের দিন কাটছে এলাকার ব্যবসায়ী থেকে ভিক্ষুকদের। স্থানীয় ব্যবসায়ীদের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, গণপরিবহন বন্ধ থাকায় পর্যটক নেই বললেই চলে। সকাল থেকে তারা কেবলমাত্র দোকান খোলেন দোকান পরিষ্কার করার জন্য। তবে দোকান খুললেও পর্যটক না থাকার কারণে কঠোর বিধিনিষেধের সময়সীমা শুরু হওয়ার আগেই তারা দোকান বন্ধ করে দেন। বর্তমানে তাদের দিন কাটছে দুর্বিষহ অবস্থায়। একই পরিস্থিতি এলাকার ভিক্ষুকদের। কারণ তারাও বাইরে থেকে আগত পর্যটকদের দানের উপর নির্ভরশীল। তারা জানিয়েছেন পর্যটক না আসায় দান আসছে না। এমনকি খাওয়া-দাওয়ার বন্দোবস্ত পর্যন্ত কেউ করে দেয় নি। তাদের আকুতি কোনভাবে যদি সরকার অথবা কেউ এই বিষয়টির দিকে নজর দেন তাহলে উপকৃত হবেন। রক্ত সংকট দূর করতে দুবরাজপুরে রক্তদান শিবির বর্তমান করোনাকালে রক্ত সংকট মেটাতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে মঙ্গলবার দুবরাজপুর পৌরসভার তরফ থেকে একটি স্বেচ্ছায় রক্তদান শিবিরের আয়োজন করা হয়। যে রক্তদান শিবিরে ৬৫ জন স্বেচ্ছাসেবক স্বেচ্ছায় রক্ত দান করেন। রক্ত যেহেতু তৈরি করা যায় না তাই এই সংকটকালে এই এত সংখ্যক মানুষের রক্তদান স্বাভাবিকভাবেই রক্ত ঘাটতির ক্ষেত্রে কিছুটা অক্সিজেন জোগালো। অন্যদিকে দুবরাজপুর পৌরসভার প্রশাসক পীযূষ পান্ডে জানিয়েছেন, এদিন প্রায় ১০০ জন রক্ত দেওয়ার জন্য এসেছিলেন, কিন্তু এতটা ব্যবস্থাপনা না থাকার কারণে ৬৫ জনের থেকেই রক্ত নেওয়া হয়েছে। তবে আমরা আগামী মাসে পুনরায় একটা এমন রক্তদান শিবিরের আয়োজন করার চেষ্টা চালাবো।

লেটেস্ট ভিডিও