Home /News /west-bardhaman /
Bardhaman News : এক বিন্দুও খাওয়ার জল নেই! হাহাকার খনি অঞ্চলের এই গ্রামে! ভয়াবহ পরিস্থিতি

Bardhaman News : এক বিন্দুও খাওয়ার জল নেই! হাহাকার খনি অঞ্চলের এই গ্রামে! ভয়াবহ পরিস্থিতি

এক [object Object]

Bardhaman News : গ্রামের জায়গায় জায়গায় বসেছে জলের কল। কিন্তু সে কল দিয়ে পড়ে না জল।

  • Share this:

    #পশ্চিম বর্ধমান : খনি অঞ্চল পাণ্ডবেশ্বর বিধানসভায় জলের সমস্যা দীর্ঘদিনের। পানীয় জলের সমস্যা দূর করতে তৃণমূল সরকার মানুষের বাড়ি বাড়ি জল পৌঁছে দেওয়ার প্রকল্প এনেছে। কিন্তু শুধু প্রকল্পই এসেছে। গ্রামের জায়গায় জায়গায় বসেছে জলের কল। কিন্তু সে কল দিয়ে পড়ে না জল। এমনটাই অভিযোগ পাণ্ডবেশ্বর বিধানসভার দুর্গাপুর ফরিদপুর ব্লকের কুলবুনী গ্রামের বাসিন্দাদের ।

    গ্রামের মহিলা বাসিন্দা অমিলা বাউরী, শত্রুঘন রুইদাসরা জানিয়েছেন, এলাকায় প্রায় ৫৫০ থেকে ৬০০ লোকের বসবাস। দীর্ঘদিন তাদের গ্রাম কুলবুনিতে পানীয় জলের সমস্যা রয়েছে। বারবার এলাকার পঞ্চায়েত সদস্যদের আবেদন - নিবেদনের পরেও পানীয় জলের সমস্যার সমাধান হয়নি। এমনিতেই পাড়ায় বিভিন্ন জায়গায় বসেছে জলের কল। কিন্তু তা নামমাত্র। সেগুলিতে মাঝেমধ্যে কখনও জল আসে। তবে বেশিরভাগ দিনই সেখানে জল আসে না। তাই তাদের গ্রামের বাসিন্দাদের পানীয় জলের জন্য ভরসা করতে হয় পার্শ্ববর্তী গ্রাম গুলির ওপর। পার্শ্ববর্তী গ্রাম প্রায় এক কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। সেখান থেকে কষ্ট করে পানীয় জল বহন করে আনতে হয় গ্রামের মহিলাদের। এমনটাই অভিযোগ করছেন স্থানীয় মানুষ।

    গ্রামবাসীদের দাবি, তাদের এলাকার মূল সমস্যা পানীয় জল। তাই এই সমস্যার সমাধান করতে উদ্যোগী হোক স্থানীয় পঞ্চায়েত প্রশাসন।যদিও এই ব্যাপারে স্থানীয় পঞ্চায়েত প্রধান পিনাকী ব্যানার্জি জানিয়েছেন, এলাকায় জলের সমস্যা সমাধানে ইতিমধ্যেই একটা বড় আকারের কুয়ো তৈরি করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। যা খুব শীঘ্রই হয়ে যাবে। এছাড়াও এলাকাবাসীদের জন্য ট্যাংকারে করে নিয়মিত জল সরবরাহের ব্যবস্থা করেছে পঞ্চায়েত। তাছাড়াও প্রধান জানিয়েছেন, গ্রামের বিভিন্ন জায়গায় মুখ্যমন্ত্রীর জলস্বপ্ন প্রকল্পের আওতায় কল লাগানো হয়েছে। কিন্তু পিএইচই দফতরের গড়িমসির কারণেই সেগুলিতে সঠিকভাবে জল পড়ছে না। বারবার জানানোর পরও হচ্ছে না কাজ। তবে স্থানীয় মানুষজন চাইছেন, দ্রুত এই জল যন্ত্রণা থেকে মুক্তি পান গ্রামবাসীরা।

    Nayan Ghosh 

    Published by:Piya Banerjee
    First published:

    Tags: Bardhaman, West Bardhaman

    পরবর্তী খবর