Home /News /uncategorized /
টেটের ফল প্রকাশের পরও নিয়োগ সংক্রান্ত বহু প্রশ্ন রয়ে গিয়েছে মনে, জেনে নিন উত্তর

টেটের ফল প্রকাশের পরও নিয়োগ সংক্রান্ত বহু প্রশ্ন রয়ে গিয়েছে মনে, জেনে নিন উত্তর

চলতি সপ্তাহে আশা-আশঙ্কায় কাটল টেট পরীক্ষার্থীদের ৷ বহুদিনের আইনি জটিলতা কাটিয়ে বুধবার আদালতের রায়ে দু’ঘণ্টার মধ্যে নজিরবিহীনভাবে প্রাথমিক ও উচ্চপ্রাথমিকের টেটের ফল প্রকাশ করে রাজ্য ৷

  • Last Updated :
  • Share this:

    #কলকাতা: চলতি সপ্তাহে আশা-আশঙ্কায় কাটল টেট পরীক্ষার্থীদের ৷ বহুদিনের আইনি জটিলতা কাটিয়ে বুধবার আদালতের রায়ে দু’ঘণ্টার মধ্যে নজিরবিহীনভাবে প্রাথমিক ও উচ্চপ্রাথমিকের টেটের ফল প্রকাশ করে রাজ্য ৷ সফল পরীক্ষার্থীরা শুরু করে নতুন করে স্বপ্ন দেখা ৷ কিন্তু একই সঙ্গে বেশ কিছু প্রশ্নের উত্তর পাওয়া বাকি রয়ে যায় ৷

    হাইকোর্টে রাজ্য সরকারের প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী নিয়োগে অগ্রাধিকার পাবেন প্রশিক্ষিতরাই ৷ ২০১৫-এ টেট পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ও প্রশিক্ষণপ্রাপ্তদের সবার আগে চাকরি দেবে সরকার।

    এরপর শূন্যপদ থাকলে প্রশিক্ষণহীনদের চাকরি দেওয়ার ব্যাপারে ভাবা হবে। নথি অনুযায়ী, এ পর্যন্ত ১৯ হাজার প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত প্রার্থী রয়েছেন। কিন্তু শূন্যপদ ৪০ হাজার ৷

    এরপরই প্রশ্ন ওঠে, যারা পরীক্ষার ফর্ম ফিলাপের সময় প্রশিক্ষণহীন ছিলেন কিন্তু এখন টিচার্স ট্রেনিং সম্পূর্ণ করেছেন তাদের কি প্রশিক্ষণপ্রাপ্তদের দলে গণ্য করা হবে? যদি হয় তাহলে তারা যে প্রশিক্ষিত তা কোথায় নথিভুক্ত করতে হবে?

    আরও পড়ুন

    কী প্রক্রিয়ায় হতে চলেছে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের ইন্টারভিউ? দেখে নিন

    স্কুল সার্ভিস কমিশন সূত্রে খবর, প্রশিক্ষণ সম্পূর্ণ হলেই পরীক্ষার্থীদের প্রশিক্ষিত বলেই গণ্য করা হবে ৷ ইন্টারভিউয়ের জন্য সরকার যখন বিজ্ঞপ্তি দেবে, তখন আবেদন পত্রে প্রশিক্ষিত হিসেবে উল্লেখ করলেই নথিভুক্তিকরণ সম্পন্ন হবে ৷

    আরও পড়ুন

    বদলাচ্ছে উচ্চপ্রাথমিকেরও নিয়োগ প্রক্রিয়া, দেখে নিন কেমন হবে SSC ইন্টারভিউ

    অন্যদিকে, অপ্রশিক্ষিতদের প্রশ্ন তারা কি আদৌও ইন্টারভিউতে ডাক পাবেন?তাদের জন্য কমিশনের উত্তর, প্রশিক্ষিতদের নেওয়ার পর ফাঁকা পদ থাকলেই টেটের ফলাফলের ভিত্তিতে ইন্টারভিউতে ডাকা হবে ৷ তবে ইন্টারভিউয়ের বিজ্ঞপ্তিতে আবেদন না করলে এই সুযোগ পাওয়া যাবে না ৷

    আরও পড়ুন

    টেট নিয়ে নতুন করে হাইকোর্টে মামলা দায়ের, তবে কি ফের থমকে যাবে নিয়োগ প্রক্রিয়া!

    তবে অপ্রশিক্ষণপ্রাপ্তদের নিয়োগের জন্য কেন্দ্রের দেওয়া সময়সীমা ইতিমধ্যে উত্তীর্ণ ৷ বিচারপতি সিএস কারনান রায়দানের সময় জানিয়েছিলেন, ‘৩১ মার্চ ২০১৬-এর পর নিয়োগ হবে কিনা, তা কেন্দ্র-রাজ্য প্রশাসনিক সিদ্ধান্তের উপর নির্ভরশীল ৷’ তাই এই নিয়ে কিঞ্চিৎ জটিলতার সম্ভাবনা রয়েই যাচ্ছে ৷

    আরও পড়ুন

    হাইকোর্টের রায়ে পথ খুলল বহু কর্মসংস্থানের

    তবে ফল প্রকাশের ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই নতুন করে একটি মামলা দায়ের হয় হাইকোর্টে ৷ আগের টেট মামলার মামলাকারীরা সরকারের বিরুদ্ধে অস্বচ্ছতার অভিযোগ তুলে নতুন করে রিভিউ পিটিশন দায়ের করেন সিএস কারনানের এজলাসে ৷ এই পিটিশনের শুনানিতে বিচারপতি নির্দেশ দেয়, সোমবারের মধ্যে মোট কত পরীক্ষার্থী টেট পরীক্ষা দিয়েছিল, কত জন পাস করেছে রাজ্যকে সেই তথ্য জমা দিতে হবে আদালতে ৷ একইসঙ্গে কত জন প্রশিক্ষিত পরীক্ষার্থী ও কত জন প্রশিক্ষণহীন পরীক্ষা দিয়েছিলেন এবং তাদের পাসের পরিসংখ্যান রাজ্যেকে আলাদা আলাদাভাবে হাইকোর্টে জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে ৷

    আরও পড়ুন

    প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগে নয়া নিয়ম

    মামলাকারীদের দাবি অনুযায়ী রাজ্যের জমা দেওয়া পরিসংখ্যানে কোনও গরমিল থাকলে ফের আইনি ফাঁসে আটকে পড়বে টেট ৷ আবারও অনির্দিষ্টকালের জন্য ব্যাহত হবে শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া ৷ এই সমস্যার সমাধানের জন্য সোমবার আদালতের রায়ের দিকে তাকিয়ে রয়েছেন টেট উত্তীর্ণ পরীক্ষার্থীরা ৷

    First published:

    Tags: Calcutta High Court, Primary TET, SSC TET, TET, TET Exam, TET Examination, TET Queries, TET Question