• Home
  • »
  • News
  • »
  • uncategorized
  • »
  • জেট এয়ারওয়েজের বিমানে দেশে ফিরলেন ব্রাসেলসে আটকে পড়া ভারতীয়রা

জেট এয়ারওয়েজের বিমানে দেশে ফিরলেন ব্রাসেলসে আটকে পড়া ভারতীয়রা

 জঙ্গি হানার আতঙ্ক কাটিয়ে দেশে ফিরল ব্রাসেলসে আটকে পড়া ভারতীয়রা ৷ শুক্রবার সকালে দিল্লি বিমানবন্দরে নামল জেট এয়ারওয়েজের বিমান ৷ এদিন প্রায় ২ শতাধিক ভারতীয়দের নিয়ে দিল্লি বিমানবন্দরে নামে জেটের 9w1229 উড়ানটি। মঙ্গলবারের ব্রাসেলসে ধারাবাহিক বিস্ফোরণে আটকে পরে বহু ভারতীয়রা ৷ আটকে পড়া ভারতীয়দের দেশে ফেরাতে তৎপর হয় বেলজিয়ামের ভারতীয় দূতাবাস ৷ জানা গিয়েছে, প্রথমে ব্রাসেলস থেকে নেদারল্যান্ডসে বাসে করে আনা হয় ভারতীয়দের ৷ এরপর সেখান থেকে জেট এয়ারওয়েজের বিমানে দেশে ফিরলেন তারা ৷

জঙ্গি হানার আতঙ্ক কাটিয়ে দেশে ফিরল ব্রাসেলসে আটকে পড়া ভারতীয়রা ৷ শুক্রবার সকালে দিল্লি বিমানবন্দরে নামল জেট এয়ারওয়েজের বিমান ৷ এদিন প্রায় ২ শতাধিক ভারতীয়দের নিয়ে দিল্লি বিমানবন্দরে নামে জেটের 9w1229 উড়ানটি। মঙ্গলবারের ব্রাসেলসে ধারাবাহিক বিস্ফোরণে আটকে পরে বহু ভারতীয়রা ৷ আটকে পড়া ভারতীয়দের দেশে ফেরাতে তৎপর হয় বেলজিয়ামের ভারতীয় দূতাবাস ৷ জানা গিয়েছে, প্রথমে ব্রাসেলস থেকে নেদারল্যান্ডসে বাসে করে আনা হয় ভারতীয়দের ৷ এরপর সেখান থেকে জেট এয়ারওয়েজের বিমানে দেশে ফিরলেন তারা ৷

জঙ্গি হানার আতঙ্ক কাটিয়ে দেশে ফিরল ব্রাসেলসে আটকে পড়া ভারতীয়রা ৷ শুক্রবার সকালে দিল্লি বিমানবন্দরে নামল জেট এয়ারওয়েজের বিমান ৷ এদিন প্রায় ২ শতাধিক ভারতীয়দের নিয়ে দিল্লি বিমানবন্দরে নামে জেটের 9w1229 উড়ানটি। মঙ্গলবারের ব্রাসেলসে ধারাবাহিক বিস্ফোরণে আটকে পরে বহু ভারতীয়রা ৷ আটকে পড়া ভারতীয়দের দেশে ফেরাতে তৎপর হয় বেলজিয়ামের ভারতীয় দূতাবাস ৷ জানা গিয়েছে, প্রথমে ব্রাসেলস থেকে নেদারল্যান্ডসে বাসে করে আনা হয় ভারতীয়দের ৷ এরপর সেখান থেকে জেট এয়ারওয়েজের বিমানে দেশে ফিরলেন তারা ৷

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: আতঙ্ক এখনও পিছু ছাড়েনি। তবু দেশে ফেরার স্বস্তি। শুক্রবার ভোরে ব্রাসেলসে জঙ্গি হানার আতঙ্ক কাটিয়ে দেশে ফিরলেন দুশোরও বেশি ভারতীয় । জেট এয়ারওয়েজের বিশেষ বিমানে দিল্লি বিমানবন্দরে নামের তাঁরা।  দুটি বিমান আসার কথা থাকলেও, যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে একটি বিমান এসেছে। উদ্বেগ-আতঙ্কের প্রহর শেষে বিমানবন্দরে তখন আত্মীয়পরিজনের মিলনমেলা।

    মঙ্গলবার জীবনের সবচেয়ে ভয়াবহ অভিজ্ঞতা হয়েছে। তাঁদের সামনেই  ধারাবাহিক বিস্ফোরণে কেঁপে উঠেছিল বেলজিয়ামের রাজধানী ব্রাসেলস। জাভেন্তাম বিমানবন্দরে জঙ্গীদের এলোপাথাড়ি গুলির পর জোড়া আত্মঘাতী বিস্ফোরণ। চোখের সামনে রক্তাক্ত অবস্থায় মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়তে দেখেছেন অনেককে।  তারপর শুধুই আতঙ্কের প্রহর গোনা।  বিমানবন্দর বন্ধ। বাইরে বেরনোর উপায় নেই।  ক্যাম্পের অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ। বাড়ি ফিরতে পারার  চিন্তা। বৃহস্পতিবার  জেট এয়ারওয়েজের পক্ষ থেকে ব্রাসেলস থেকে আটকে পড়া ভারতীয় যাত্রীদের আমস্টারডাম নিয়ে আসা হয়।  সেখান থেকে বিমানে করে দিল্লিতে। শুক্রবার ভোর পাঁচটা দশ মিনিটে আমস্টারডাম থেকে  দুশো চোদ্দজন যাত্রীকে নিয়ে দিল্লি বিমানবন্দরে নামে জেটের ১২২৯ নম্বর ফ্লাইট।  যাত্রীদের মধ্যে দিল্লির সত্তরজন যাত্রী ছাড়াও ছিলেন আঠাশজন বিমানকর্মীও। যাত্রীদর চোখে মুখে এখনও আতংক। তবে দেশে ফিরে খুশি সকলেই।  অনেকেই ব্রাসেলসে ভারতীয় দূতাবাস, জেট এয়ারওয়েজের ভূমিকা নিয়ে ক্ষোভও প্রকাশ করলেন। আর প্রিয়জনকে ফিরে পেয়ে উদ্বেঘ শেষে আপ্লুত আত্মীয়পরিজন।  ব্রাসেলস বিমানবন্দরে জঙ্গি হামলায় জেট এয়ারওযেজের দুজন বিমানকর্মী আহত হন।  এখনও তাঁরা ব্রাসেলসের হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।  দিল্লি থেকে মুম্বই গেছে বিমানটি।  প্রিয়জনের কাছে ফিরতে পেরে অবশেষে স্বস্তি। তবুও মঙ্গলবারের ভয়াবহ স্মৃতি হয়ত বয়ে বেড়াতে হবে আজীবন।

    First published: