Pornhub-কে ব্লক করল মাস্টার কার্ড ও Visa, জেনে নিন কারণ

Pornhub-কে ব্লক করল মাস্টার কার্ড ও Visa, জেনে নিন কারণ

এ বার থেকে এই প্ল্যাটফর্মে Visa ও Mastercard ব্যবহারের পরিষেবা বন্ধ করে দিল সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলি

এ বার থেকে এই প্ল্যাটফর্মে Visa ও Mastercard ব্যবহারের পরিষেবা বন্ধ করে দিল সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলি

  • Share this:

অনলাইন পর্নোগ্রাফি (Pornography) জায়ান্ট Pornhub-এর বিরুদ্ধে এ বার বড়সড় পদক্ষেপ। এ বার থেকে এই প্ল্যাটফর্মে Visa ও Mastercard ব্যবহারের পরিষেবা বন্ধ করে দিল সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলি। Pornhub-এর বিরুদ্ধে অভিযোগ, শিশু নিগ্রহ (Child Abuse) ও ধর্ষণকে কেন্দ্র করে একাধিক ভিডিও কনটেন্ট রয়েছে এখানে। আর এই বিষয়টির বাড়বাড়ন্ত বন্ধ করতেই এমন পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে Visa ও Mastercard-এর বিরুদ্ধে। এ বার জেনে নেওয়া যাক বিশদে।

কী এই Pornhub?

২০০৭ সালে পথচলা শুরু করে এই পর্নোগ্রাফিক ভিডিও সাইট। এখন প্রতি বছরে প্রায় ৬.৮ মিলিয়ন করে পর্ন ভিডিও আপলোড করে এই সংস্থাটি।

কেন এই পদক্ষেপ Visa ও Mastercard-এর ?

সম্প্রতি কয়েকটি প্রতিবেদনে একটি বিষয় মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে। শোনা যাচ্ছে, এই পর্নসাইটটি অধিকমাত্রায় শিশু নিগ্রহ ও ধর্ষণ (ঈোজা) সম্পর্কিত ভিডিও পোস্ট করছে। এমনকি এই ভিডিওগুলি যে কেউই ডাউনলোড ও শেয়ার করতে পারেন। এর পরই এক গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেয় Visa ও Mastercard। এত দিন এই সাইটের অনলাইন পেমেন্ট মোড হিসেবে কাজ করত Visa ও Mastercard। এ বার সেই পরিষেবা বন্ধ করে দিল সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলি। দুটি সংস্থার তরফেই ব্যান করা হয়েছে Pornhub-কে।

চাইল্ড অ্যাবিউজ বা রেপ ভিডিওগুলি কি PORBHUB হোস্ট করে?

সব চেয়ে বড় বিষয় হল, কোনও রকম ব্যক্তিগত তথ্য শেয়ার করা ছাড়াই পৃথিবীর যে কোনও প্রান্ত থেকে যে কেউ ভিডিও আপলোড করতে পারেন এই প্ল্যাটফর্মে। তাই চাইল্ড অ্যাবিউজ বা রেপ ভিডিওগুলির সূত্র অনুসন্ধান বড় মুশকিল। বেশ কয়েকটি প্রতিবেদনে এ নিয়ে দীর্ঘ আলোচনাও হয়েছে। কয়েকটি প্রতিবেদন সূত্রে খবর, এই জাতীয় ভিডিও থেকে বেশ ভালো রকম উপার্জনও করে Pornhub। তাই ভিডিও হোস্টের বিষয়টি একটি ওপেন সিক্রেট।

এর আগেও কি এই রকম অভিযোগের শিকার হয়েছিল Pornhub?

এর আগেও বেশ কয়েকবার একই পরিস্থিতির শিকার হয়েছে Pornhub। ২০১৯ সালে এই সাইটের পর্নোগ্রাফি পেজ Girls On Fire-এর উপরে তদন্ত শুরু করে FBI। তবে এখনও এই বিষয়ের তেমন কোনও সুরাহা হয়নি। গত বছর অগস্টে তদন্ত হয়েছিল, কিন্তু এখনও সংশ্লিষ্ট ওয়েবসাইটে এই ধরনের ভিডিও পেজ দেখা যায়। এর আগেও বেশ কয়েকটি ধর্ষণ (Molestation) ও শিশু নিগ্রহের ভিডিও দেখা গিয়েছে এই ওয়েবসাইটে। মাইনর রেপের নানা ভিডিও আপলোডের ইস্যুতে বার বার একাধিক অভিযোগের শিকার হয়েছে পর্ন সাইটটি।

কী প্রতিক্রিয়া Pornhub-এর?

চাইল্ড অ্যাবিউজের অভিযোগে ইতিমধ্যেই পদক্ষেপ করেছে Pornhub। এ ক্ষেত্রে আনভেরিফায়েড ইউজারদের ব্যান করা শুরু হয়েছে। সংস্থার কথায়, মূলত এঁরাই এই ধরনের বিকৃত মানসিকতার ভিডিও আপলোড করে থাকেন। বিশেষজ্ঞদের কথায়, এটি একট বড় পদক্ষেপ। তবে পরিস্থিতি অনুযায়ী আরও কিছু বদল আনা হবে বলে জানিয়েছে Pornhub।

Published by:Ananya Chakraborty
First published: