• Home
  • »
  • News
  • »
  • technology
  • »
  • হ্যাকারদের নয়া কৌশল, যে কোনও ওয়েবসাইট খুললেই হ্যাক হয়ে যেতে পারে আপানার ফোন

হ্যাকারদের নয়া কৌশল, যে কোনও ওয়েবসাইট খুললেই হ্যাক হয়ে যেতে পারে আপানার ফোন

Photo- Representative

Photo- Representative

মিলিসেকেন্ডেরও কম সময়ে ফোনে ডাউনলোড হয়ে যাবে স্পাইওয়্যার কোড

  • Share this:

    #রাবাত: হ্যাকিং-এর ঘটনা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে৷ সাধারণ মানুষকে সতর্ক করতে একাধিকবার সতর্কতা জারি করা হয়, যে কোনও অজানা-অচেনা লিঙ্কে ক্লিক করবেন না ৷ কারণ অজানা-অচেনা লিঙ্কে ক্লিক করলে সেই সূত্র ধরেই হয়ে যায় হ্যাকিং৷ এবার এই সাইবার ক্রাইমের এক নতুন পদ্ধতি সামনে এসে চমকে দিয়েছে ৷ মরোক্কোর সাংবাদিক উমর রাদি এই নতুন পদ্ধতিতে হ্যাকিংয়ের শিকার হয়েছেন৷ এই নতুন পদ্ধতিতে কোনও সাইট খোলা হলেই ফোনের হ্যাক সেরে নিচ্ছেন হ্যাকররা ৷ এভাবেই সাংবাদিকের ফোন হ্যাক করে তাঁর ওপর নজর চালাচ্ছে সেখানের সরকার৷

    এই নতুন পদ্ধতিতে হ্যাকিংয়ের মাধ্যমে তাঁর ইমেল, টেক্সট, ও ওয়েবসাইটের দিকে নজর রাখতে পারে সরকার ৷ তাঁরা ওই পত্রকারের প্রতিটা ভিডিও কল দেখেন তাঁর মোবাইলে নতুন এন্ট্রি, জিপিএস কো অর্ডিনেশন, ক্যামেরা ও মাইক্রোফোনের ওপর সরাসরি নিয়ন্ত্রণ করতে পারছিল হ্যাকাররা৷ আর সরাসরি সরকার তাঁর ওপর নজর রাখছিল৷

    দ্য স্টারে প্রকাশিত রিপোর্ট অনুযায়ী রাদি এন্সক্রিপশন ও সাইবার সুরক্ষা নিয়ে পড়াশুনো করেছিলেন তাই অজানা-অচেনা লিঙ্কে ক্লিক করতেন না ৷ তাঁর ফোনে বিভিন্ন নম্বর থেকে দেওয়া মিডস কলেরও উত্তর দিতেন না ৷ কারণ এই দুটিই খুব সহজ পদ্ধতি ফোন হ্যাক করে নেওয়ার ৷ সরকার এই সাংবাদিকের কোনও ফোনেই নজর রাখতে না পেরে তাঁরা নতুন পদ্ধতি নেয় ৷ সেখানে তারা রাদি কোনও ওয়েবসাইট খুললেই সেটাকেই টার্গেট করে নেয় ৷

    তাঁর ফোনের হ্যাকিং কী ভাবে হয়েছে এই নিয়ে ফরেন্সিকে যে প্রমাণ পাওয়া যায় তাতে বোঝা গেছে নেটওয়ার্ক ইঞ্জেকশনের দ্বারাই এগুলি করা হয়েছে ৷ এটা পুরোপুরি স্বয়ংক্রিয় একটি পদ্ধতি ৷ যেখানে হ্যাকার একটি সেলুলার সিগন্যালকে ইন্টারসেপ্ট করে ৷ কেউ কোনও ওয়েবসাইটে যাওয়ার অনুরোধ করলেই এটা হয় ৷

    মিলিসেকেন্ডেরও কম সময়ে একটি ভুয়ো ওয়েবসাইটে চলে যায় ব্যবহারকারী কাছে আর তার গ্যাজেটে স্পাইওয়্যার কোড ডাউনলোড হয়ে যায় ৷ এটা ফোনকে রিমোট অ্যাকসেসে নেওয়ার অনুমতি দেয় ৷ এরপর ব্যবহারকারী নিজের পছন্দের ওয়েবসাইটে চলে যায়, এটি এত দ্রুত হয় যে ব্যবহারকারী সেটা বুঝতেও পারে না ৷

    Published by:Debalina Datta
    First published: