আঙ্গুলের চোট সারিয়ে কবে মাঠে ফিরছেন ঋদ্ধিমান সাহা ?

আঙ্গুলের চোট সারিয়ে কবে মাঠে ফিরছেন ঋদ্ধিমান সাহা ?

ইডেনে ঐতিহাসিক গোলাপি বলে টেস্ট ম্যাচে আঙ্গুলে চোট পান ঋদ্ধি। ডান হাতের রিং ফিঙ্গারে চোট লাগে।

  • Share this:
  Eron Roy Burman 

#কলকাতা: কবে মাঠে ফিরছেন ঋদ্ধিমান সাহা? আঙ্গুলের চোট সারিয়ে কতটা ফিট ঋদ্ধি? সব প্রশ্নের উত্তর দিলেন ভারতীয় উইকেট-রক্ষক। ঋদ্ধির মতে, সব ঠিকঠাক থাকলে চলতি মাসেই বাংলার হয়ে মাঠে নেমে পড়বেন। ভারতীয় এ দলের হয়ে নিউজিল্যান্ডে দ্বিতীয় চার দিনের ম্যাচ খেলবেন ঋদ্ধি। নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজের আগে এ দলের হয়ে খেলিয়ে ঋদ্ধি কে দেখে নিতে চাইছেন ভারতীয় নির্বাচকরা। তবে ঋদ্ধি চান, নিউজিল্যান্ড সফরের আগে ঘরোয়া ক্রিকেটে কয়েকটি ম্যাচ খেলে নিজেকে তৈরি করে নিতে। তাই বাংলার হয়ে রঞ্জি খেলতে মুখিয়ে রয়েছেন ঋদ্ধিমান সাহা। চলতি মাসেই এনসিএ থেকে ফিট সার্টিফিকেট নিয়ে রঞ্জি অভিযানে নামবেন পাপালি।

ইডেনে ঐতিহাসিক গোলাপি বলে টেস্ট ম্যাচে আঙ্গুলে চোট পান ঋদ্ধি। ডান হাতের রিং ফিঙ্গারে চোট লাগে। বোর্ডের সঙ্গে কথা বলে মুম্বাইতে অস্ত্রোপচার করান পাপালি। আঙ্গুলের ব্যান্ডেজ নিয়েই দৌড় এবং ফিজিক্যাল ট্রেনিং শুরু করে দিয়েছিলেন ঋদ্ধি। বছরের শুরুতে অস্ত্রোপচার হওয়া আঙ্গুলের টেপ খুলে ফেলা হয়। মুম্বাইতে গিয়ে ডাক্তারকে দেখিয়ে আঙ্গুলের টেপ খুলে কলকাতায় ফেরেন ঋদ্ধি। ঋদ্ধির মেডিকেল রিপোর্ট ইতিমধ্যেই এনসিএতে জমা পড়েছে। এনসিএতে যোগ দেওয়ার ব্যাপারে ঋদ্ধি জানান, "চলতি সপ্তাহের বুধ বা বৃহস্পতিবার ন্যাশনাল ক্রিকেট একাডেমিতে যোগ দেব। সেখানেই ট্রেনিং শুরু হবে। কিপিং এবং ব্যাটিং অনুশীলন শুরু করবো। এমনিতে আমি বিগত এক মাস দৌড় এবং ফিজিক্যাল ট্রেনিং করেছি। আশা করি দ্রুত ফিট হয়ে মাঠে ফিরব।" সোমবার বাংলা বনাম গুজরাত রঞ্জি ম্যাচে শেষ দিনে ইডেনে চলে আসেন ঋদ্ধি। ডাগ-আউটে সতীর্থদের সঙ্গে বসে কিছুক্ষণ খেলা দেখেন। কোচ অরুণলালের সাথে কথা বলেন। সব ঠিকঠাক চললে দিন সাত-আটের মধ্যে এনসিএ থেকে ফিট সার্টিফিকেট পেতে পারেন ঋদ্ধি। সেক্ষেত্রে কী হায়দরবাদের বিরুদ্ধে বাংলার হয়ে নামবেন? ঋদ্ধির উত্তর, "কোন ম্যাচ থেকে মাঠে ফিরব সেটা বলতে পারবো না। আগে এনসিএতে যাই।"

ভারতীয় এ দলের হয়ে নিউজিল্যান্ডে চার দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে খেলার কথা বিরাট সতীর্থের। ফেব্রুয়ারির শুরুতে এই ম্যাচের আগে ঘরোয়া ক্রিকেটে কয়েকটি ম্যাচ খেলতে চান ঋদ্ধি। টিম ম্যানেজমেন্টের খবর দিল্লির বিরুদ্ধে ম্যাচে খেলতে পারেন ঋদ্ধি। তবে কোচ অরুনলাল জানান, "ঋদ্ধি ফিট হয়ে গেলেই আমরা ওকে দলে চাই। ঘরের মাঠে হায়দরাবাদ ম্যাচে ঋদ্ধিকে খেলাতে পারলে আমাদের সুবিধা হবে।" ঋদ্ধিও তাড়াতাড়ি মাঠে ফিরতে চাইছেন। তবে চূড়ান্ত ফিট হয়ে মাঠে নামতে চান পাপালি। বিগত এক বছরে দীর্ঘদিন চোট আঘাতে মাঠের বাইরে থাকতে হয়েছিল ঋদ্ধিকে। এখন দেখার এনসিএ থেকে কবে ফিট হয়ে মাঠে নামেন ঋদ্ধিমান সাহা।

বছরের প্রথম টেস্ট সিরিজ নিউজিল্যান্ডে খেলবেন বিরাটরা। ফিট হয়ে গেলে সেই সিরিজে ভারতীয় দলে থাকার কথা ঋদ্ধিমান সাহার। সেই কারণেই এ দলের হয়ে ঋদ্ধিকে আগেই নিউজিল্যান্ড পাঠানো হচ্ছে। ঋদ্ধিও সুযোগ কাজে লাগাতে মরিয়া। ২০১৯ সালের চোট-আঘাত পর্ব মনে রাখতে চান না তিনি।  ২০২০ তে বাঙালি উইকেট-রক্ষক একটাই টার্গেট। উইকেটের পেছনে বিরাট ভরসা হয়ে ওঠার। ভারতীয় জার্সিতে নিজের সেরাটা উজাড় করে দিতে চান ঋদ্ধিমান সাহা। ঋষভ পন্থের সঙ্গে কোন প্রতিযোগিতা আছে বলে মানতে চান না তিনি। তবে প্রাথমিক লক্ষ্য ফিট ২২ গজে ফেরার।

First published: January 6, 2020, 10:38 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर