• Home
  • »
  • News
  • »
  • sports
  • »
  • OTHER SPORTS SANIA MIRZA AND ANKITA RAINA HAS SPECIAL PLANS AGAINST UKRAINIAN OPPONENTS RRC

ইউক্রেনের জুটিকে হারাতে সানিয়া-অঙ্কিতার বিশেষ প্ল্যান কী ? জানুন

ইউক্রেনের বিরুদ্ধে জবাব দেওয়ার ম্যাচ সানিয়ার

দুবাইতে বিশ্বাস ট্রেনিং করেছেন। টোকিওতে পৌঁছে একটা দিনও সময় নষ্ট করেননি ভারতীয় টেনিসের গ্ল্যামার গার্ল। অঙ্কিতার সঙ্গে যদিও দীর্ঘদিন নিজের অ্যাকাডেমিতে অনুশীলন করেছিলেন

  • Share this:

    #টোকিও: বয়স বেড়েছে, পাল্লা দিয়ে বেড়েছে অভিজ্ঞতা। শিখেছেন সংযমী হতে। আবেগে নিয়ন্ত্রণ করতে শিখেছেন। কিন্তু টেনিস কোর্টে নামলে জয় ছাড়া এখনও অন্য কিছু চিন্তা করতে পারেন না সানিয়া মির্জা। যখন টোকিওতে এসেছেন, তখন পদক নিয়ে ফিরতে চান। নিন্দুকেরা বলছেন তিনি নাকি টোকিও ঘুরতে গিয়েছেন। পদক জয়ের সম্ভাবনা নেই। কিন্তু সানিয়া মুখে জবাব দিতে চান না। জবাব দেবে তার রাকেট।

    যদিও মেনে নিচ্ছেন এবার পদক জেতা সহজ নয়। ইউক্রেনের জুটি তাদের জুটির থেকে জেতার ব্যাপারে বেশি ফেভারিট। কিন্তু তাও পার্টনার অঙ্কিতাকে নিয়ে বিনা যুদ্ধে লড়াই ছাড়তে চান না তিনি। দীর্ঘদিন প্রতিযোগিতামূলক টেনিস সেভাবে খেলা হয়নি। টোকিওতে পার্টনার অঙ্কিতা রায়নার সঙ্গে তবুও সফল হবার ব্যাপারে আশাবাদী ছয় বারের গ্র্যান্ডস্ল্যাম জয়ী সানিয়া মির্জা।

    মা হয়েছেন, কবজি এবং হাঁটুতে তিনটি অস্ত্রোপচার হয়েছে। তবুও জাপানে পদক জয়ের লক্ষ্যে নিজেকে তৈরি করেছেন বিগত কয়েক মাস ধরে। গত বছর মার্চ মাসে বিলি জিন কিং কাপে এই জুটি খেলেছিল শেষবার। সেবার সবকটা ম্যাচ জিতেছিল সানিয়া - অঙ্কিতা জুটি। কিন্তু এ বছর সব মিলিয়ে মাত্র ৮ টি ডাবলস ম্যাচ খেলেছেন সানিয়া। তাই কিছুটা প্রস্তুতির খামতি ভোগাতে পারে।

    যদিও দুবাইতে বিশ্বাস ট্রেনিং করেছেন। টোকিওতে পৌঁছে একটা দিনও সময় নষ্ট করেননি ভারতীয় টেনিসের গ্ল্যামার গার্ল। অঙ্কিতার সঙ্গে যদিও দীর্ঘদিন নিজের অ্যাকাডেমিতে অনুশীলন করেছিলেন। শনিবার প্রথম ম্যাচে ইউক্রেনের জুটির সামনে পড়তে চলেছেন সানিয়ারা। লুডমালা কিচেনক এবং নাদিয়া কিচেনক জুটির বিরুদ্ধে খেলতে হবে তাঁদের। দুর্ধর্ষ ফর্মে রয়েছেন ইউক্রেন জুটি।

    নেট প্লে এবং সার্ভ করার ক্ষেত্রে কিছুটা বদল এনেছেন সানিয়া। বিপক্ষ দলের শক্তি দুর্বলতা জেনেছেন। তিনি জানিয়েছেন টোকিও গেমসে অংশগ্রহণকারী ভারতীয় প্রতিযোগীদের প্রস্তুতিতে দারুণভাবে সাহায্য করেছে কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রক। উন্নত পরিকাঠামো ও সুযোগ সুবিধা দেওয়া হয়েছে, যাতে আমরা টোকিওতে সেরাটা উজাড় করে দিয়ে বেশি সংখ্যক পদক জিততে পারি। এবার আমাদের দেশকে ফিরিয়ে দেওয়ার পালা। সত্যি শক্তিশালী ইউক্রেন প্রতিপক্ষকে সানিয়ারা হারাতে পারেন কিনা সেটাই দেখার।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: