• Home
  • »
  • News
  • »
  • sports
  • »
  • OTHER SPORTS MARY KOM STARTS WITH EASY WIN OVER MIGUELINA HERNANDEZ OF DOMINICAN REPUBLIC RRC

ম্যাগনিফিসেন্ট মেরি! সহজ জয়ে শুরু করলেন টোকিও অলিম্পিক অভিযান

ডমিনিকান বক্সার কে ৪-১ উড়িয়া যাত্রা শুরু মেরি কমের

দ্বিতীয় রাউন্ডে কিছুটা আক্রমনাত্মক হলেন মেরি। কিন্তু দম বাঁচিয়ে রেখেছিলেন অন্তিম রাউন্ডের জন্য। জ্যাব এবং কাট ব্যবহার করলেন বুদ্ধি করে।

  • Share this:

    #টোকিও: লড়াইটা ছিল অভিজ্ঞতা বনাম তারুণ্যের। জেদ বনাম প্রতিভার। কোন অঘটন ঘটল না। সহজে ম্যাচ জিতে পরের রাউন্ডে পৌঁছে গেলেন ভারতের কিংবদন্তী বক্সার মেরি কম। যেন কত সহজ, কত সাবলীল! প্রথম রাউন্ডে বিপক্ষ বক্সারের থেকে অনেকটা দূরত্ব বজায় রাখলেন মেরি। কিছুটা লুজ গার্ড রেখেছিলেন। তিনজন জজ মেরিকে দশ পয়েন্ট করে দিলেন।

    দ্বিতীয় রাউন্ডে কিছুটা আক্রমনাত্মক হলেন মেরি। কিন্তু দম বাঁচিয়ে রেখেছিলেন অন্তিম রাউন্ডের জন্য। জ্যাব এবং কাট ব্যবহার করলেন বুদ্ধি করে। রিং এর কোণে নিয়ে গিয়ে জায়গা কমিয়ে দিলেন বিপক্ষের। কম্বিনেশন পাঞ্চ ব্যবহার করলেন বুদ্ধি করে।তাতেই বাজিমাত।মার্চপাস্টে ভারতের জাতীয় পতাকা বহন করেছেন তিনি। শুধু পতাকা বহন নয়, আসলে বহন করতে হচ্ছে ১৩০ কোটি মানুষের প্রত্যাশা।

    লড়াইয়ের নাম মেরি কম। বক্সিং মম কিন্তু চ্যালেঞ্জ নিতে পিছপা নন। ছয়বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন বক্সার মেরি কম ২০১২ লন্ডন অলিম্পিকে ব্রোঞ্জ জিতেছিলেন, তারপর ২০১৬ সালে রিও অলিম্পিকে যোগ্যতা অর্জন করতে ব্যর্থ হন এই মণিপুরি বক্সার। কিন্তু তার সত্বেও আশা ছাড়েননি মেরি কম, দাঁতে দাঁত চেপে লড়াই করে গিয়েছেন। সর্বোচ্চ পর্যায়ে প্রস্তুতি নিয়েছেন তিনি। যতক্ষণ না পর্যন্ত অলিম্পিকে সোনা জিততে পারছেন ততক্ষণ পর্যন্ত তিনি লড়াই থামাবেন না বলেই জানিয়েছেন।

    ককুজিকান এরিনায় মেরি কম প্রথম রাউন্ডে ডোমিনিকান রিপাবলিকের মিগুয়েলিনা হার্নান্দেজের বিপক্ষে শুরু করবেন এবং দ্বিতীয় রাউন্ডে রিও অলিম্পিকের ব্রোঞ্জ পদক জয়ী কলম্বিয়ান বক্সিংয়ের ইংগ্রিট ভ্যালেন্সিয়ার সঙ্গে দেখা হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে জানাই ছিল। হার্নান্দেজ ২৩ বছর বয়সী হলেও প্যান আমেরিকার সেরা উঠতি বক্সার নির্বাচিত হয়েছিলেন। মেরির সম্ভবত এটা শেষ অলিম্পিক।

    শুধু মেরি নন, ব্রাজিলে বক্সিং থেকে একটিও পদক আসেনি ভারতের ঝুলিতে। সেদিক থেকে দেখতে গেলে টোকিওতে এবার এমন ৯ জন বক্সার রয়েছেন, যাঁরা যে কেউ পদক জয়ের ক্ষমতা রাখেন। শনিবার ছিটকে গিয়েছিলেন অভিজ্ঞ বিকাশ কিষান। কাশ্মীর থেকে কন্যাকুমারী জানত মেরি নিজের অভিজ্ঞতা এবং চাপ সামলানোর ক্ষমতা দিয়ে পদক জয় করার জন্য নিজের সেরাটা দেবেন। মেরি কম মনে করেন তার প্রতিপক্ষ বেশিরভাগই উচ্চতার সুবিধা পায়।কিন্তু আজ আবার সারা বিশ্ব দেখল মেরি কম মানে লড়াই আর ভরসার অন্য এক নাম। নিজের লক্ষ্যে যে অবিচল।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: