Home /News /sports /
'জোচ্চুরি করে বিশ্বনাথন আনন্দকে হারিয়েছি', কোটিপতি ব্যবসায়ীর বিস্ফোরক স্বীকারোক্তি

'জোচ্চুরি করে বিশ্বনাথন আনন্দকে হারিয়েছি', কোটিপতি ব্যবসায়ীর বিস্ফোরক স্বীকারোক্তি

প্রদর্শনী ম্যাচে জোচ্চুরি করলেন। আবার স্বীকারও করে নিলেন দেশের সর্বকনিষ্ঠ কোটিপতি।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: চ্যারিটি ম্যাচ। সেখানেও কিনা তাঁকে জোচ্চুরি করতে হল! করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে আর্থিক তহবিলের জন্য প্রদর্শনী দাবা ম্যাচের আয়োজন করেছিল একটি সংস্থা। কিন্তু সেখানেও জোচ্চুরি করলেন দেশের সর্বকনিষ্ঠ কোটিপতি নিখিল কামাথ। আমির খান সহ একাধিক তারকার সঙ্গে প্রদর্শনী দাবা ম্যাচ খেলেছেন বিশ্বনাথন আনন্দ। এই ম্যাচ নেহাতই মজার ছলে খেলা। কারণ এই ম্যাচের থেকে যে অর্থ উপার্জন হবে তা চলে যাবে করোনা আক্রান্তদের সেবায়। আর এমন ম ম্যাচেও কিনা নিখিল কামাথের মতো একজন কোটিপতি ব্যবসায়ী জোচ্চুরি করে গেলেন! নিখিল কামাথের এমন কাণ্ডে বেশ বিরক্ত পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন বিশ্বনাথন আনন্দ।

    দেশের অন্যতম স্টক ব্রোকার সংস্থার সহ-প্রতিষ্ঠাতা নিখিল কামাথ সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখেছিলেন, ''ছোটবেলা থেকেই বিশ্বনাথন আনন্দের সঙ্গে সামনাসামনি দেখা করার ইচ্ছে ছিল। একটি চ্যারিটি ম্যাচের সুবাদে তাঁর সঙ্গে দেখা ও কথা দুটোই হল। এটা আমার কাছে স্বপ্ন পূরণের মতো ব্যাপার। তবে আরো একটা হাস্যকর ব্যাপার ঘটল। অনেকেই ভাবছেন, আমি সত্যিই ভিশি স্যারকে ওই প্রদর্শনী ম্যাচে হারিয়ে দিয়েছি। এটা অনেকটা এমন ব্যাপার যে আমি ঘুম থেকে উঠেই ১০০ মিটার স্প্রিন্টে উসেইন বোল্টকে পিছনে ফেলে জিতে গিয়েছি। আমি ওই ম্যাচে বেশ কয়েকজন দাবা স্পেশালিস্ট, কম্পিউটারের থেকে সাহায্য নিয়েছিলাম। যদিও এটা বোকামির উদাহরণ। আমি সেই সময় বুঝতে পারিনি, আমার এই পদক্ষেপ আসলে বিভ্রান্তি তৈরি করবে। তার জন্য আমি ক্ষমাপ্রার্থী।''

    এমন বিস্ফোরক স্বীকারোক্তিতে চিড়ে ভেজেনি। অনেকেই তাঁর তুলোধনা করছেন। একটি মহৎ উদ্দেশ্যে আয়োজিত ম্যাচেও যে মানুষ জোচ্চুরি করে তাঁর মানসিকতা নিয়ে প্রশ্ন তুলে দিয়েছেন অনেকেই। chess.com নিখিল কামাথের এমন কাণ্ড মোটেও পছন্দ করেনি। আর সেই জন্য তাঁরা দেশের এই কোটিপতি ব্যবসায়ীর একাউন্ট ব্যান করেছে। জানানো হয়েছে, যে কোনো খেলাতেই ফেয়ার প্লে খুব গুরুত্বপূর্ণ।  কোনও খেলাতেই জোচ্চুরির জায়গা নেই। অল ইন্ডিয়া চেস ফেড়ারেশনের সচিব জানিয়েছেন, এমন ঘটনা খুবই দুর্ভাগ্যজনক। প্রদর্শনী ম্যাচে কেউ অসৎ উপায়ে গ্র্যান্ডমাস্টার বিশ্বনাথন আনন্দ হারাচ্ছেন, সেটা ভাবাই যায় না। এই ঘটনায় বিরক্ত বিশ্বনাথন আনন্দও তবে তিনি খুব একটা সমালোচনা করেননি। শুধুমাত্র নিখিল কামাথের টুইটের জবাবে লিখেছেন, ''এই ম্যাচটা করোনা আক্রান্তদের জন্য অর্থ যোগানের উদ্দেশে আয়োজিত। খেলার নৈতিকতা বজায় রেখে নজাদার অভিজ্ঞতা হল। প্রদর্শনী ম্যাচ হিসেবে খেলা হয়েছিল। আমি শুধু নিজের পজিশন ধরে খেলেছি। বাকিদের থেকেও সেটাই আশা করেছি।''

    Published by:Suman Majumder
    First published:

    Tags: Chess, Exhibition Match

    পরবর্তী খবর