corona virus btn
corona virus btn
Loading

বিশ্বকাপের ঐতিহাসিক ছক্কা যেখানে পড়েছিল, সেই আসন স্থায়ী হোক ধোনির নামে, দাবি

বিশ্বকাপের ঐতিহাসিক ছক্কা যেখানে পড়েছিল, সেই আসন স্থায়ী হোক ধোনির নামে, দাবি

২০১১ বিশ্বকাপের ফাইনালের সেই ম্যাচ শেয় করা ছয়টি যেখানে পড়েছিল, সেই আসনটি হতে পারে ধোনির নামে।

  • Share this:

#‌মুম্বই:‌ এক ছয়ে বিশ্বকাপ হাতের মুঠোয়। বিশ্ব ক্রিকেটের সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ ফিনিশার মহেন্দ্র সিং ধোনির হাত দিয়েই বিশ্বকাপ উঠেছিল ভারতের হাতে। ২০১১ সালের ফাইনাল ম্যাচে মুম্বইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে ভারত জয় পেয়েছিল। আর সেই ম্যাচে জয় এসেছিল ধোনির চওড়া ব্যাটে হাঁকানো একটি ছয়ের মাধ্যমে। ২৮ বছর ধরে ভারতের অপেক্ষার অবসান হয়েছিল সেই দিন। সেই ধোনিই ভারতীয় ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছেন। আর তাই তাঁকে আর বিশ্বকাপ জয়ের সেই মুহূর্তকে সন্মান জানাতে বিশেষ প্রস্তাব দিল মুম্বই ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের অ্যাপেক্স কাউন্সিল। তাঁরা MCA–কে লেখা একটি চিঠিতে বলেছেন, গ্যালারির যে জায়গায় সেই ঐতিহাসিক ছয় মারা বলটি গিয়ে পড়েছিল, সেই আসনটি স্থায়ীভাবে ধোনির নামে করে দেওয়ার জন্য। এই ভাবেই তাঁরা ধোনিকে আর ভারতীয় ক্রিকেটের সেই ঐতিহাসিক মুহূর্তকে স্মরণীয় করে রাখতে চাইছেন।

অজিঙ্ক নায়েকের লেখা চিঠিতে বলা হযেছে, ভারতীয় ক্রিকেটে মহেন্দ্র সিং ধোনির বিপুল অংশগ্রহণ ও অবদানের কথা মাথায় রেখে MCA একটি আসন স্থায়ী ভাবে তাঁর নামে করতে পারে। ২০১১ বিশ্বকাপের ফাইনালের সেই ম্যাচ শেষ করা ছয়টি যেখানে পড়েছিল, সেই আসনটি হতে পারে ধোনির নামে। আমরা খুঁজে দেখতে পারি, কোথায় উড়ে গিয়ে সেই বলটি পড়েছিল।’‌ কোনও একটি আসন খেলোয়াড়ের নামে স্থায়ীভাবে করে দেওয়া বিশ্ব ক্রিকেটে প্রভুত সন্মানের। তবে ভারতীয় ক্রিকেটে এই প্রথার চল বিশেষ নেই। বিভিন্ন স্টেডিয়ামে আলাদা আলাদা স্ট্যান্ড হয়ত কিংবদন্তি খেলোয়াড়দের নামে আছে, কিন্তু একটি আসন স্থায়ী ভাবে একজন খেলোয়াড়ের নামে নেই। অকল্যান্ডের স্টেডিয়ামে গ্রান্ট এলিয়টের নামে একটি আসন আছে। সেখানেও তাঁর মারা ছয় উড়ে এসে পড়েছিল। তাঁর হাত ধরেই ২০১৫ সালে নিউজিল্যান্ড বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে পৌঁছেছিল।

এদিকে ধোনির ফেয়ারওয়েল ম্যাচ নিয়ে অনেকেই এখনও নানা প্রস্তাব দিচ্ছেন। পাক ক্রিকেটার শোয়েব আখতার ইমরান খানের প্রসঙ্গ মনে করিয়ে এও বলেছেন, যে ভারতের প্রধানমন্ত্রী যেন ধোনিকে একবার অনুরোধ করেন একটা বিদায়ী ম্যাচ খেলতে, যাতে তাঁকে যথেষ্ট অভিবাদন জানানো যায়।

Published by: Uddalak Bhattacharya
First published: August 21, 2020, 1:02 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर