শুক্রবার সকাল পর্যন্ত বুমরাহকে খেলানোর চেষ্টা করবে ভারত, জানালেন রাঠোর

শুক্রবার সকাল পর্যন্ত বুমরাহকে খেলানোর চেষ্টা করবে ভারত, জানালেন রাঠোর

photo/india today

বুমরাহ এবং অশ্বিনের কথা ভেবেই আমরা শুক্রবার সকালে ম্যাচ শুরুর আগে পর্যন্ত অপেক্ষা করব। এই দুজনকে আমরা আরও সময় দিতে চাই। শেষমুহূর্ত পর্যন্ত দেখে তবে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত।

  • Share this:

    #ব্রিসবেন: জসপ্রীত বুমরাহ এবং রবি অশ্বিন ব্রিসবেন টেস্ট থেকে ছিটকে গিয়েছেন এখনই বলা যাবে না। অন্তত বৃহস্পতিবার এমনটাই জানালেন ভারতের ব্যাটিং কোচ বিক্রম রাঠোর। তিনি জানান,"সবাই জানেন চোট, আঘাতে কতটা কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছি আমরা। তবে এই দলটা মানসিকভাবে শক্তিশালী। চোট নিয়েও কেউ চ্যালেঞ্জ নিতে ভয় পায় না। সাধারণত ম্যাচের একদিন আগে আমরা দল ঘোষণা করে দিয়ে থাকি। কিন্তু বুমরাহ এবং অশ্বিনের কথা ভেবেই আমরা শুক্রবার সকালে ম্যাচ শুরুর আগে পর্যন্ত অপেক্ষা করব। এই দুজনকে আমরা আরও সময় দিতে চাই। শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত দেখে তবে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। ওঁরা পারলে ভাল, না পারলে বাকিরা আছে চ্যালেঞ্জ নিতে। মেডিকেল টিম প্রতিনিয়ত ওদের সুস্থ করে তোলার কাজ করছে। ওঁরা নিজেরাও খেলতে চায়। ম্যাচের কিছুক্ষণ আগেই পরিষ্কার চিত্র বোঝা যাবে"।

    করোনা মহামারির থেকেও ভারতীয় ক্রিকেট দলকে এই মুহূর্তে গলা টিপে ধরেছে চোট মহামারি। শেষ কোন বিদেশ সফরে এসে একসঙ্গে এত ক্রিকেটার চোটের কবলে পড়েছেন মনে করা কঠিন নয়, অসম্ভব ব্যাপার। মিনি হাসপাতালে পরিণত হয়েছে দল। সোশ্যাল মিডিয়ায় বিভিন্ন মজার মিম বেরিয়েছে এই চোটে কাহিল ভারতীয় দলকে নিয়ে। কেউ বলছেন শেষপর্যন্ত না রবি শাস্ত্রীকে ব্যাট হাতে নামতে হয়, কেউ বলছেন সুনীল গাভাস্কার বা কপিল দেবকে ফিরিয়ে আনতে। সচিন, সৌরভদের অনুরোধ করা হয়েছে দলের স্বার্থে মাঠে নামার। রবীন্দ্র জাদেজা ব্যাট এবং বল হাতে দলকে ভরসা দিচ্ছিলেন। অনবদ্য ফিল্ডিং করছিলেন। কিন্তু বুড়ো আঙুলের অস্ত্রোপচারের ফলে ছিটকে গিয়েছেন তিনি।

    ওই জায়গায় তামিলনাড়ুর তরুণ প্রতিভাবান অলরাউন্ডার ওয়াশিংটন সুন্দরকে তৈরি রেখেছে টিম ম্যানেজমেন্ট। নেটে শার্দুল ঠাকুর এবং বাঁহাতি পেসার নটরাজনকে ঘাম ঝরাতে দেখা গিয়েছে। শেষপর্যন্ত যদি বুমরাহ এবং অশ্বিন না খেলতে পারেন তাহলে ওয়াশিংটন এবং নটরাজনের খেলার সম্ভাবনাই বেশি। অবশ্য শার্দুল ব্যাট করতে পারেন। তাই লোয়ার অর্ডার ব্যাটিং গভীরতা বাড়াতে তাঁর কথাও ভাবা হতে পারে।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: