Home /News /sports /
Kabaddi Player Shot Dead : পঞ্জাবের জলন্ধরে টুর্নামেন্ট চলাকালীন কবাডি তারকাকে গুলিতে ঝাঁঝরা করল দুষ্কৃতীরা

Kabaddi Player Shot Dead : পঞ্জাবের জলন্ধরে টুর্নামেন্ট চলাকালীন কবাডি তারকাকে গুলিতে ঝাঁঝরা করল দুষ্কৃতীরা

দিনেদুপুরে কবাডি খেলোয়াড়কে গুলি করে খুন জলন্ধরে

দিনেদুপুরে কবাডি খেলোয়াড়কে গুলি করে খুন জলন্ধরে

Kabaddi player Sandeep Singh Nangal shot dead during a tournament in Jalandhar. দিনেদুপুরে কবাডি খেলোয়াড়কে গুলি করে খুন জলন্ধরে

  • Share this:

    #জলন্ধর: রাজনৈতিক পালাবদল হয়েছে পঞ্জাবে কদিন আগেই। কিন্তু নতুন সরকারের প্রথম দিকেই হিংসার বলি হলেন এক কবাডি খেলোয়াড়। যদিও রাজনৈতিক খুন নয়। তবুও জলন্ধর এর মত ব্যস্ত শহরে, টুর্নামেন্ট চলাকালীন এরকম ঘটনা নজিরবিহীন। শুনলে চমকে উঠতে হয়। দুষ্কৃতিদের গুলিতে মৃত্যু হল ভারতের কবাডি দলের প্রাক্তন অধিনায়ক সন্দীপ নানগাল আম্বিয়ানের। পঞ্জাবের জলন্ধরের মালিয়ান গ্রামে একটি কবাডি ম্যাচ চলাকালীন তাঁকে গুলি করা হয়।

    আরও পড়ুন - Shreyas Iyer, ICC player of the month: আইসিসির সেরা, শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধেও সেরা! শ্রেয়স আইয়ার এখন পুরো ফায়ার

    জলন্ধরের ডেপুটি পুলিশ সুপার লখবিন্দর সিংহ জানিয়েছেন, আট থেকে দশটি গুলি চালানো হয়েছে। যদিও প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি, দুষ্কৃতিরা সন্দীপের বুক ও মাথা লক্ষ্য করে ২০ রাউন্ড গুলি চালায়। তাঁকে সঙ্গে সঙ্গে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। সোমবার সন্ধ্যা ৬টা নাগাদ ঘটনাটি ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শীদের বয়ান অনুযায়ী, প্রায় ১২জন দুষ্কৃতি হামলা চালায় সন্দীপের উপর।

    আরও পড়ুন - Gavaskar on Rishabh Pant : সিরিজ সেরা ঋষভ পন্থকে আগামী দশ বছরের সবচেয়ে বড় এন্টারটেইনর বলছেন গাভাসকার

    কেউ কেউ বলছেন, চার জন বন্দুকধারী ছিল। যে কবাডি প্রতিযোগিতার ম্যাচ চলাকালীন খুন হয়েছেন, সেই প্রতিযোগিতারই অন্যতম সংগঠক ছিলেন সন্দীপ। এমনিতে ইংল্যান্ডে থাকতেন সন্দীপ। প্রতি বছর এই প্রতিযোগিতা আয়োজন করার জন্যই ভারতে আসতেন। তাঁর স্ত্রী ও দুই ছেলে ইংল্যান্ডেই রয়েছেন। কেউ কেউ জানাচ্ছেন, গলফ খেলার কিছু সরঞ্জাম নিয়ে বচসা শুরু হয়। সেখান থেকে এত বড় ঘটনা ঘটে যায়।

    প্রায় এক দশকেরও বেশি সময় ধরে দাপটের সঙ্গে কবাডি খেলেছেন ৪০ বছরের সন্দীপ। শুধু ভারত বা পঞ্জাব নয়, কানাডা, আমেরিকা এবং ইংল্যান্ডেও সুনামের সঙ্গে খেলেছেন তিনি। স্টপারের জায়গায় খেলতেন সন্দীপ। যে কোনও দলে এতটাই অপরিহার্য ছিলেন, কেউ কেউ তাঁকে ‘ডায়মন্ড’ বলেও ডাকত।

    সন্দ্বীপের অকাল মৃত্যুতে তার গ্রামে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। ইংল্যান্ড থেকে তাড়াতাড়ি ভারতে আসার কথা তার পরিবারের। পঞ্জাব সরকার এই নিয়ে কোন তদন্তের দাবি করেন কিনা সেটাই এখন দেখার। পুরনো পুরনো শত্রুতা রয়েছে কিনা সেটিও দেখা হবে।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published:

    পরবর্তী খবর