World Cup 2019: নিউজিল্যান্ডের কাছে ৪ উইকেটে হার দক্ষিণ আফ্রিকার, সেমিফাইনালের স্বপ্নভঙ্গ ডুপ্লেসিদের

ICC World Cup 2019: শুরুতেই বড় একটা ধাক্কা খায় দক্ষিণ আফ্রিকা। ট্রেন্ট বোল্টের বলে বোল্ড হয়ে যান কুইন্টন ডি কক। আরেক ওপেনার হাশিম আমলা হাল ধরেন। যোগ্য সঙ্গত দিচ্ছিলেন অধিনায়ক ফাফ দু প্লেসি।

News18 Bangla
Updated:Jun 21, 2019 09:22 AM IST
World Cup 2019: নিউজিল্যান্ডের কাছে ৪ উইকেটে হার দক্ষিণ আফ্রিকার, সেমিফাইনালের স্বপ্নভঙ্গ ডুপ্লেসিদের
কেন উইলিয়মসন
News18 Bangla
Updated:Jun 21, 2019 09:22 AM IST

#বার্মিংহাম: এক্ষরিক অর্থেই অধিনায়কের মতো দলকে জেতালেন কেন উইলিয়মসন৷ অনবদ্য সেঞ্চুরির সৌজন্যে দক্ষিণ আফ্রিকাকে ৪ উইকেটে হারাল নিউজিল্যান্ড৷ আউটফিল্ড ভেজা থাকায় খেলা শুরু হয় দেরিতে। তাতে নেমে আসে ৪৯ ওভারে। এজবাস্টনে বুধবার টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ৬ উইকেটে ২৪১ রান করে দক্ষিণ আফ্রিকা।

শুরুতেই বড় একটা ধাক্কা খায় দক্ষিণ আফ্রিকা। ট্রেন্ট বোল্টের বলে বোল্ড হয়ে যান কুইন্টন ডি কক। আরেক ওপেনার হাশিম আমলা হাল ধরেন। যোগ্য সঙ্গত দিচ্ছিলেন অধিনায়ক ফাফ ডু  প্লেসি। কিনতু লকি ফার্গুসনের বলে আউট হন ডুপ্লেসি৷ বাঁহাতি স্পিনারের জন্য স্বপ্নের এক ডেলিভারিতে আমলার প্রতিরোধ ভাঙেন মিচেল স্যান্টনার। দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে ওয়ানডেতে দ্রুততম ৮ হাজার রানের মাইলফলক স্পর্শ করা অভিজ্ঞ ওপেনার চারটি চারে ৮৩ বলে করেন ৫৫ রান।

এজবাস্টনে বুধবার টিকে থাকার লড়াইয়ের জন্যই খেলতে নামে দক্ষিণ আফ্রিকা। কিন্তু শেষ রক্ষা হল না৷ প্রতিপক্ষ এখন পর্যন্ত টুর্নামেন্টের অপরাজিত দল নিউজিল্যান্ডের কাছে হেরে যাওয়ায় টুর্নামন্টে টিকে থাকাই চাপ হয়ে গেল দক্ষিণ আফ্রিকার৷। সেমিফাইনালে যেতে হলে আজ নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে জয় দরকার ছিল দক্ষিণ আফ্রিকার৷

৫ ম্যাচ খেলে ৪টি জয় আর ১ ম্যাচ বৃষ্টিতে ভেস্তে যাওয়ায় পয়েন্ট টেবিলের তৃতীয় স্থানে রয়েছে নিউজিল্যান্ড। সেমিফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে বেশ ভালোভাবেই এগিয়ে আছে তারা। আর দলের ক্রিকেটাররাও আছেন দুর্দান্ত ফর্মে।

ডেল স্টেইন, লুঙ্গি এনগিডি ও কাগিসো রাবাডাকে নিয়ে বিশ্বকাপের বোলিং লাইন ভালো ছিল দক্ষিণ আফ্রিকার। তবে কাঁধের চোটের কারণে কোনো ম্যাচ না খেলেই দেশে ফিরে যেতে হয় দলের সেরা পেসার স্টেইনকে। এ ছাড়াও দ্বিতীয় ম্যাচে আহত হন এনগিডি। যার প্রভাব পড়ে প্রোটিয়াদের খেলায়। সেমিফাইনালের স্বপ্ন নিয়ে ইংল্যান্ডে পা রাখলেও এখন তাই টুর্নামেন্টে শেষ পর্যন্ত টিকে থাকার জন্য লড়াই।

ট্রেন্ট বোল্ট, জিমি নিশাম, ম্যাট হেনরি, লোকি ফারগুসনরাও দুর্দান্ত বল করলেন। বিশ্বকাপে দু দলের শেষবারও জিতেছিলেন কিউয়িরাই৷ ২০১৫ বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে ঘরের মাঠে ম্যাচ জেতে ৪ উইকেটে। বিশ্বকাপে মোট ৮ বার মুখোমুখি হয়ে নিউজিল্যান্ডের ৬টি জয়ের বিপরীতে দক্ষিণ আফ্রিকার মাত্র দুটি।

First published: 12:23:24 AM Jun 20, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर