• Home
  • »
  • News
  • »
  • sports
  • »
  • T20 World Cup Oman win : ঘরের মাঠে পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে দাপুটে জয় দিয়ে যাত্রা শুরু করল ওমান

T20 World Cup Oman win : ঘরের মাঠে পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে দাপুটে জয় দিয়ে যাত্রা শুরু করল ওমান

বিশাল জয় দিয়ে টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপে যাত্রা শুরু ওমানের

বিশাল জয় দিয়ে টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপে যাত্রা শুরু ওমানের

ICC T20 World Cup Oman registers 10 wicket victory over Papua New Guinea courtesy Zeeshan Maqsood . পাপুয়া নিউগিনির (পিএনজি) বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচটিতেই নিজেদের ভয়ংকর চেহারা দেখাল ওমান,আল আমেরাত ক্রিকেট গ্রাউন্ডে আজ (সোমবার) পিএনজিকে পাত্তাই দেয়নির ওমান। ১০ উইকেটের (৪৪ বল হাতে রেখে) বিশাল জয়ে বিশ্বকাপে শুভসূচনা করেছে

  • Share this:

    #মাসকাট: প্রথমপর্বের আয়োজক তারা। পাপুয়া নিউগিনির (পিএনজি) বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচটিতেই নিজেদের ভয়ংকর চেহারা দেখাল ওমান। এই গ্রুপেই রয়েছে বাংলাদেশ। টাইগারদের যেন বড় ধরনের সতর্কবার্তা দিয়ে রাখল ওমান। আল আমেরাত ক্রিকেট গ্রাউন্ডে আজ (সোমবার) পিএনজিকে পাত্তাই দেয়নির ওমান। ১০ উইকেটের (৪৪ বল হাতে রেখে) বিশাল জয়ে বিশ্বকাপে শুভসূচনা করেছে স্বাগতিকরা।

    ১৯ অক্টোবর বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচ তাদের। ওমানের আসল কাজটা অবশ্য করে দিয়েছিলেন বোলাররাই। ব্যাটসম্যানদের সামনে লক্ষ্য দাঁড়ায় ১৩০ রানের। টি-টোয়েন্টি ফরমেটে যেটাকে মামুলি লক্ষ্যই বলা যায়। তাই বলে এত মামুলিও নয় যে ১০ উইকেট হাতে রেখেই এমন অনায়াস জয় পাওয়া যাবে। শক্তিমত্তায় দুই দল প্রায় কাছাকাছি মানের। তবে ঘরের মাঠের সমর্থন যেন হোম দলের দুই ওপেনার আকিবল ইলিয়াস আর জতিন্দর সিংকে পেছনে তাকাতেই দিল না।

    ইলিয়াস ৪৩ বলে ৫০ আর জতিন্দর ৪২ বলে ৭৩ রানের ঝড় তুলে বিজয়ীর বেশেই মাঠ ছেড়েছেন। এর আগে পিএনজির শুরুটা হয়েছিল ভয়াবহ, দলের রানের খাতা খোলার আগেই সাজঘরে ফিরে যান দুই ওপেনার। সেখান থেকে মাঝে হাল ধরেন টপঅর্ডারের দুই ব্যাটার। কিন্তু শেষদিকের ভয়াবহ ব্যাটিং ধসে বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচে সংগ্রহটা বড় হয়নি পিএনজির।

    স্বাগতিক ওমানের বোলিং তোপে একপর্যায়ে মাত্র ৬ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে ফেলে পিএনজি। শেষ পর্যন্ত তাদের ইনিংস থামে ৯ উইকেটে ১২৯ রানে। টস জিতে আগে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন ওমান অধিনায়ক জিশান মাকসুদ। তার বোলিং তোপেই পড়েছে পিএনজি। নিজের দ্বিতীয় ওভারে চার বলে তিন উইকেট নিয়েছেন জিশান। সবমিলিয়ে ২০ রানে ৪ উইকেট নিয়েছেন তিনি।

    ইনিংসের পঞ্চম বলেই সাজঘরে ফিরে যান টনি উরা। পরের ওভারের তৃতীয় বলে একই পথ ধরেন আরেক ওপেনার লেগা সিয়াকা। শূন্য রানে দুই উইকেট পতনের পর তবে তৃতীয় উইকেটে পাল্টা আক্রমণ করেন অধিনায়ক আসাদ ভালা ও চার নম্বরে নামা চার্লস আমিনি। এ দুজনের জুটিতে মাত্র ১০ ওভারেই আসে ৮১ রান। শেষের ছয় ওভারে ছয় উইকেট হারিয়ে মাত্র ২৭ রান করতে পেরেছে পিএনজি। এর মধ্যে দলীয় ১১২ থেকে ১১৮ রানের মধ্যেই পাঁচটি উইকেট হারায় তারা। যার ফলে শেষ হয়ে যায় বড় স্কোর গড়ার সম্ভাবনা। ওমানের পক্ষে ২০ রানে ৪ উইকেট নিয়েছেন জিশান। এছাড়া বিলাল খান ও কলিমউল্লাহর শিকার ২টি করে উইকেট।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: