খেলা

corona virus btn
corona virus btn
Loading

এগিয়ে গিয়েও হায়দরাবাদের কাছে হারল এস সি ইস্টবেঙ্গল

এগিয়ে গিয়েও হায়দরাবাদের কাছে হারল এস সি ইস্টবেঙ্গল

হায়দরাবাদের গতি এবং তারুণ্যের কাছে হারতে হল লাল হলুদকে

  • Share this:

হায়দরাবাদ - ৩ (আরিদানি ২, হোলি)

এস সি ইস্টবেঙ্গল- ২

(মাগোমা)

#গোয়া: পরপর তিন ম্যাচে হারের হ্যাটট্রিক। বিস্তর সমালোচনা, যুক্তি,পাল্টা যুক্তি, দোষারোপ, পাল্টা দোষারোপ। এস সি ইস্টবেঙ্গলের পায়ের তলার মাটি কিছুটা শক্ত হয়ে ছিল শেষ ম্যাচে জামশেদপুরের বিরুদ্ধে প্রায় সত্তর মিনিট দশজনে খেলে ড্র করায়। কিন্তু প্রথম পয়েন্ট পেলেও প্রথম গোল এবং জয়ের লক্ষ্যে এ দিন মাঠে নেমেছিল লাল হলুদ। তিলক ময়দানে দিনটা মনে হচ্ছিল লাল হলুদ ব্রিগেডের হতে চলেছে। পঁচিশ মিনিটের মাথায় গোল করে দলকে এগিয়ে দেন মাগোমা। বাঁ দিক থেকে স্টেনম্যান বল বাড়িয়েছিলেন। বক্সের ভেতর থেকে সঠিক গতিতে বল জালে জড়িয়ে দিলেন কঙ্গোর ফুটবলার। প্রথমার্ধেই পেনাল্টি পায় হায়দরাবাদ। শাহনাজ বক্সের মধ্যে ফেলে দেন ইয়াসিরকে। আরিদানি সোজা গোলরক্ষক দেবজিতের হাতে মেরে বসেন।

দ্বিতীয়ার্ধে ম্যাচের লিস্টনকে নামায় হায়দরাবাদ। এই গোয়ান নামার পর ম্যাচে জাঁকিয়ে বসে হলুদ জার্সিধারীরা। এই টুর্নামেন্টে হায়দরাবাদ এমন একটা দল যাদের বেশ কয়েকজন প্রতিভাবান তরুণ ভারতীয় ফুটবলার রয়েছে। লিস্টন, আশীষ, হিতেশ, ইয়াসির এই তরুণ ফুটবলারদের গতি সামলাতে পারল না লাল হলুদ। ৫৬ মিনিট কয়েক সেকেন্ডের ব্যবধানে পরপর দুটো গোল করে গেলেন সেই আরি দানি। দ্বিতীয় গোলটা হওয়ার সময় স্কট নেভিল লিস্ট ন কে আটকাতে মাটি ধরলেন। পেছন থেকে বল ফলো করে আসা হোলি বল জালে জড়াতে ভুল করেননি। তবুও লড়াই চালিয়েছিল ইস্টবেঙ্গল। পিলকিংটনের ফ্রি-কিক থেকে হেডে নিজের দ্বিতীয় গোল করলেন মাগোমা। যোগ্য দল হিসেবেই জিতল হায়দরাবাদ।

দ্বিতীয়ার্ধে ইস্টবেঙ্গল কোচ রবি অ্যারনকে নামিয়ে চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু লাভের লাভ হয়নি। টুর্নামেন্টের নিজেদের চতুর্থ পরাজয়ের স্বাদ নিয়েই মাঠ ছাড়তে হল এস সি ইস্টবেঙ্গলকে। কোচ মুখে যতই বলুন এবার অন্য ইস্টবেঙ্গলকে দেখা যাবে, সেটা কিন্তু কেবল কথা হয়েই থেকে না যায়। লিগ টেবিল সবার নীচে রয়ে গেল ইস্টবেঙ্গল।

Published by: Ananya Chakraborty
First published: December 15, 2020, 9:44 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर