Cristiano Ronaldo : ধর্ষণ কাণ্ডে আবার রোনাল্ডোর থেকে বিরাট অর্থের দাবি সেই মহিলার

Cristiano Ronaldo : ধর্ষণ কাণ্ডে আবার রোনাল্ডোর থেকে বিরাট অর্থের দাবি সেই মহিলার

ধর্ষণ কাণ্ডে আবার রোনাল্ডোর থেকে বিরাট অর্থের দাবি সেই মহিলার

মায়োরগার আইনজীবী লেসলি স্টোভালে জানিয়েছেন ২০০৯ সালে জুনেলাস ভেগাসের পাম ক্যাসিনো রিসোর্টে ধর্ষণের শিকার হন মায়োরগা। রোনাল্ডো তাঁর সঙ্গে জোরপূর্বক বিকৃত যৌনমিলন করেন

  • Share this:

    #লিসবন: বিতর্ক এবং যৌনতা সাফল্যের পাশাপাশি অনেকটা জায়গা জুড়ে রয়েছে ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর জীবনে। 'লেডি কিলার ', 'ক্যাসানোভা' ইত্যাদি বিভিন্ন বিশেষণ জুড়ে দেওয়া হয় পর্তুগিজ মহাতারকার নামের পাশে। অর্থ, খ্যাতি, নামের পাশাপাশি এই ঝামেলাও সহ্য করতে হয়ে বিশ্বের অন্যতম শ্রেষ্ঠ এই ফুটবলারকে।আবারও ধর্ষণের ঘটনায় শিরোনামে চলে এলেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। দুই বছর আগে তার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনেছিলেন ক্যাথরিন মায়োরগা নামের যুক্তরাষ্ট্রের প্রাক্তন মডেল ও স্কুলশিক্ষিকা।

    ওই সময় প্রমাণের অভাবে মামলাটি তুলে নেওয়া হয়েছিল। দুই বছর পর আবারও পর্তুগিজ সুপারস্টারের কাছে বিশাল অংকের টাকা দাবি করে বসলেন সেই নারী। সেই অর্থের পরিমাণ ৬৫ মিলিয়ন ইউরো। যা ভারতীয় মুদ্রায় ৬৬৫ কোটি টাকা! মায়োরগার আইনজীবী লেসলি স্টোভালে জানিয়েছেন ২০০৯ সালে জুনেলাস ভেগাসের পাম ক্যাসিনো রিসোর্টে ধর্ষণের শিকার হন মায়োরগা। রোনাল্ডো তাঁর সঙ্গে জোরপূর্বক বিকৃত যৌনমিলন করেন। এর ১০ বছর পর মামলা করেন মায়োরগা। সেই মামলা বাতিল হয়।

    তবে আইনজীবী লেসলি স্টোভালের দাবি, রোনাল্ডো ও মায়োরগা নাকি মৌখিকভাবেই ব্যাপারটা চুকিয়ে ফেলেছিলেন। সেইসঙ্গে মায়োরগার মুখ বন্ধ রাখতে তখন ৩ লাখ ৭৫ হাজার ডলার দিয়েছিলেন রোনালদো। এবার ৩৭ বছর বয়সী মায়োরগা সেই ঘটনায় 'অতীত-ভবিষ্যতের হয়রানি' এবং 'যন্ত্রণার ক্ষতিপূরণ' হিসেবে ৪১.৫ মিলিয়ন ইউরো দাবি করেছেন। এর পাশাপাশি দণ্ডমূলক ক্ষতিপূরণ হিসেবে আরও ২০.৫ মিলিয়ন ইউরো দাবি করেছেন। এর আগে ২০১৮ সালে ক্রিশ্চিয়ানো টুইটারে সব অস্বীকার করে জানান, 'ধর্ষণ হিসেবে যেসব অভিযোগ তোলা হয়েছে আমার বিরুদ্ধে, সেসব দৃঢ়ভাবে প্রত্যাখ্যান করছি। এসব ঘৃণ্য অপরাধ আমার বিশ্বাসের সঙ্গে যায় না। কেউ আমাকে ব্যবহার করে সংবাদমাধ্যমে নিজের কার্যসিদ্ধি করতে পারবে না।'

    অতীতে জুভেন্তাসের পর্তুগিজ মহাতারকা ফুটবলার রোনাল্ডো স্বীকার করে নিয়েছিলেন তিনি ২০০৯ সালে লাস ভেগাসের হোটেলে ধর্ষণ কাণ্ডে মুখ বন্ধ রাখার জন্য ক্যাথেরিন মায়েরগাকে মোটা অর্থ দিয়েছিলেন। আদালতে এক নথি জমা দিয়ে রোনাল্ডোর আইনজীবী স্বীকার করে নেন তার বিশ্বসেরা ফুটবলার মক্কেল ক্যাথেরিন মায়েরগাকে মুখ বন্ধের জন্য অর্থ দিয়েছিলেন। আবার এই বাজারে হঠাৎ করেই উঠল সেই বিতর্ক। এখন দেখার রোনাল্ডো কী সাফাই দেন।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published:

    লেটেস্ট খবর