Euro 2020: ইউরোতে ফরাসি বিপ্লব না ঘটলেই অবাক হবেন ওয়েঙ্গার

ফ্রান্সের ওপর বাজি ধরছেন আর্সেন ওয়েঙ্গার

ওয়েঙ্গারের মতে ফ্রান্স এই মুহূর্তে সুপার ফেভারিট ইউরো জেতার ব্যাপারে।তার মতে "ফ্রান্স শুধুমাত্র ফেভারিট নয়,তাঁরা সুপার ফেভারিট।"জোসে মোরিনহোর মত তিনি ইংল্যান্ডকে সমীকরন থেকে সরাতে নারাজ। তাঁর মতে ইংলিশ টিমও ইউরো কাপের অন্যতম দাবিদার হতেই পারে

  • Share this:

    #প্যারিস: কাল থেকে দামামা বাজতে চলেছে ইউরো ২০২০ ফুটবল টুর্নামেন্টের। ইউরোপীয়ান ফুটবলের শ্রেষ্ঠ টুর্নামেন্টকে ঘিরে উত্তেজনা বাড়ছে ক্রমশ। কে জিতবে, কে হারবে, কোন দলই বা অঘটন ঘটাবে তা নিয়ে তর্ক বিতর্ক শুরু হয়ে গিয়েছে রাস্তার মোড় থেকে শুরু করে সোশাল নেটওয়ার্কিং সাইটগুলোতে। টেলিভিশনে যখন নিজের দ্বিতীয় পছন্দের দেশ বিজ্ঞাপন চলছে তখন সুদূর ফ্রান্সে বসে নিজের দেশের উপরই পূর্ণ ভরসা রাখছেন প্রাক্তন আর্সেনাল কোচ আর্সেন ওয়েঙ্গার।

    জোসে মোরিনহো আগেরদিন বলেছিলেন ফ্রান্স ইউরোর প্রবল দাবিদার। এদিন সেই পথেই হাঁটলেন তাঁর একদা প্রতিদ্বন্দ্বী। ওয়েঙ্গারের মতে ফ্রান্স এই মুহূর্তে সুপার ফেভারিট ইউরো জেতার ব্যাপারে।তার মতে "ফ্রান্স শুধুমাত্র ফেভারিট নয়,তাঁরা সুপার ফেভারিট।"জোসে মোরিনহোর মত তিনি ইংল্যান্ডকে সমীকরন থেকে সরাতে নারাজ। তাঁর মতে ইংলিশ টিমও ইউরো কাপের অন্যতম দাবিদার হতেই পারে। তিনি বলেন "ইংল্যান্ড এই ফ্রান্স দলকে ইউরো জেতার ব্যাপারে টক্কর দিতে পারে।"

    রাঙ্কিং এর ভিত্তিতে ফ্রান্স বিশ্বের দ্বিতীয় দল। বেলজিয়াম প্রথম। কিন্তু গত বিশ্বকাপে এই বেলজিয়ামকে সেমি ফাইনালে হারিয়ে ফাইনালে ওঠে ফ্রান্স এবং ওয়ার্ল্ড কাপ যেতে। এই প্রাক্তন আর্সেনাল ম্যানেজারের মতে ফ্রান্স দলটি তারুণ্যের উপর ভিত্তি করেই আগামী বহুবছর ধরে সফল হবে। তিনি আরো বলেন "তুমি বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন বলেই ফেভারিট এমনটা নয়। তোমার টিমে আছে কন্তে, পোগবা, গ্রিজম্যান, বেঞ্জিমা,কোমান, জীরুড। আমি তো বাকি প্রতিভাবানদের নামও ভুলে গিয়েছি।"

    এরই সঙ্গে তিনি যোগ করেন যে "তোমার বেঞ্চে এমন ফুটবলার রয়েছে যারা অন্য কোনও দেশের প্রথম এগারোতে খেলতে পারে। তাই ফ্রান্স যে ইউরো কাপ জেতার দাবিদার তা স্বাভাবিক।" ২০১৮ বিশ্বকাপ ছাড়া ফ্রান্স ২০০০ সালে ইউরো কাপ এবং ১৯৯৮ সালে বিশ্বকাপও জেতে। শেষ ইউরোতে তাঁরা ফাইনালে পর্তুগালের কাছে হারে। ইংল্যান্ড প্রসঙ্গে আর্সেন ওয়েঙ্গারকে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি বলেন "শুক্রবার থেকে শুরু হওয়া টুর্নামেন্টের অন্যতম প্রবল দাবিদার হল ইংল্যান্ড। এই ইংল্যান্ড ফ্রান্সকে কঠিন পরীক্ষার মুখে ফেলতে পারে।"

    তিনি আরো যোগ করেন "ইংল্যান্ডের কাছে সেরা প্রতিভাবান ফুটবলার আছে। বয়সে ছোটো হলেও তাঁদের কাছে অভিজ্ঞতা আছে।টিমে হ্যারি কেন, হেন্ডারসনের মত অভিজ্ঞ খেলোয়াড়ও আছে।" ১৫ ই জুন জার্মানির বিরুদ্ধে ইউরো ২০২০ অভিযান শুরু করবে ফ্রান্স। তাঁরা তথাকথিত গ্রুপ অফ ডেথে আছে। জার্মানি ছাড়াও তাঁদের সঙ্গে গ্রুপে আছে পর্তুগাল এবং হাঙ্গেরি।ইংলিশ টিম নিজেদের ইউরো অভিযান শুরু করবে ১৩ই জুন ক্রোয়েশিয়ার বিরুদ্ধে।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: