মনিপুরের করোনা আক্রান্তদের জন্য বিশেষ পরিকল্পনা রেনেডির

মনিপুরকে বাঁচাতে রেনেডি এগিয়ে এলেন

নিজের রাজ্য মণিপুরের কোভিড আক্রান্তদের সাহায্য করতে এগিয়ে এলেন রেনেডি সিংহ। কোভিডের প্রথম ঢেউ সামলাতে পারলেও দ্বিতীয় ঢেউতে কিছুটা বেসামাল উত্তর পূর্বের এই রাজ্য

  • Share this:

    #ইম্ফল: কলকাতা ময়দানের ডেভিড বেকহ্যাম বলে ডাকা হত তাঁকে। তাঁর ফ্রিকিক ছিল দেখার মত। কোন জায়গা দিয়ে গোলরক্ষককে পরাস্ত করে বল জালে জড়িয়ে যাবে কেউ জানত না। জাতীয় দল থেকে অবসর নেওয়ার পর তাঁর মত সেটপিস তারকা আজ পর্যন্ত আসেনি ভারতীয় ফুটবলে। খেলোয়াড় জীবনে ভাইচুং ভুটিয়া, সুনীল ছেত্রী দের নিখুঁত পাস বাড়িয়ে গোল করতে সাহায্য করতেন। এবার নিজের রাজ্য মণিপুরের কোভিড আক্রান্তদের সাহায্য করতে এগিয়ে এলেন রেনেডি সিং।

    কোভিডের প্রথম ঢেউ সামলাতে পারলেও দ্বিতীয় ঢেউতে কিছুটা বেসামাল উত্তর পূর্বের এই রাজ্য। তাই অক্সিজেন সিলিন্ডার দিয়ে সরকারের পাশে দাঁড়ালেন গত মরশুমে ইস্টবেঙ্গলের সহকারী কোচ। রেনেডি বলেন, ‘‘এটা খুব কঠিন সময় সকলের জন্য। সামনে থেকে যাঁরা অক্লান্ত পরিশ্রম করছেন তাঁদের সাহায্য করা জরুরি। আমার অনেক বন্ধুদের মধ্যে অনেকেই ডাক্তার, পুলিশ কর্তা, ব্যবসায়ী বা আমলা। আমরা সকলে মিলে প্রচার করার চেষ্টা করছি এবং সাহায্য তুলে দেওয়ার চেষ্টা করছি।’’

    প্রাপ্ত সাহায্য তাঁরা মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে দান করবেন বলে জানিয়েছেন রেনেডি। রাজ্যের মানুষদের থেকে অনেক সাহায্য পাচ্ছেন বলে জানালেন ভারতের প্রাক্তন ফুটবলার। রেনেডি বলেন, ‘‘মণিপুরের মানুষ এই কঠিন পরিস্থিতির মধ্যেও সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিচ্ছেন। আমাদের রাজ্যে তিনটি অক্সিজেন উৎপাদন কেন্দ্র রয়েছে। তবে আক্রান্তদের সকলকে অক্সিজেন দিতে হলে আরও অনেক অক্সিজেন প্রয়োজন। এই মুহূর্তে প্রত্যেক দিন ১০০০-১৫০০ টি অক্সিজেন সিলিন্ডার প্রয়োজন।’’

    রেনেডি আরও বলেন, ‘‘আমি এই রাজ্যে জন্মেছি। তাই এ রাজ্যের মানুষের প্রতি আমার দায়িত্ব, যতটুকু পারি ততটুকু সাহায্য পৌঁছে দেওয়া। আরও মানুষ যদি আমাদের সঙ্গে সামিল হন তবে আরও ভাল হবে।’’ কলকাতার ইস্টবেঙ্গল এবং মোহনবাগানে খেলেছেন সেরা ফর্মে। বাংলার সঙ্গে বহুদিনের যোগাযোগ। কলকাতা থেকে যদি সাহায্য পান তবে সেটাও দারুণ ব্যাপার হবে মনে করেন এই প্রাক্তন তারকা ফুটবলার।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: