corona virus btn
corona virus btn
Loading

প্রাক্তন ফুটবলারদের টিকিটে যুবভারতীর গ্যালারিতে চলছে অচেনাদের ‘প্রক্সি’ !

প্রাক্তন ফুটবলারদের টিকিটে যুবভারতীর গ্যালারিতে চলছে অচেনাদের ‘প্রক্সি’ !
যুবভারতীর টিকিট কাউন্টারে ভিড়ের ছবি ৷
  • Share this:

#কলকাতা: টিকিট চাই। টিকিট দাও ! যুবভারতীর সব ম্যাচের জন্য টিকিটের হাহাকার প্রতিদিনই ৷ কিন্তু আশ্চর্যজনকভাবে মাঠ কখনই পুরো ভরছে না ৷ সংগঠকদের তরফে অনুরোধ করা হয়েছে যদি মাঠে না আসেন, তাহলে নিজেদের ‘কোটা’র  টিকিট যেন অবিলম্বে ফেরত দিয়ে দেওয়া হয় ৷ কারণ অনেকরাই টিকিট চেয়েও পাচ্ছেন না ৷ তাই শহরের ফুটবলপ্রেমীরা যাতে সবাই ম্যাচ দেখার সুযোগ পান সেটাই অনুরোধ সংগঠকদের ৷

এদিকে আইএফএ অফিসের সামনে লম্বা লাইন ময়দানওয়ালাদের। চেনা কর্তা থেকে অতিচেনা ফুটবলার। সেই ভিড়ে কে নেই। কিন্তু গ্যালারিতে দেখা মিলছে হাতে গোনা প্রাক্তনের। বিশ্বকাপে প্রাক্তনদের কোটার টিকিট তাহলে যাচ্ছে কোথায় ? সেটাই প্রশ্ন ৷

দেশের ফুটবলে প্রাক্তনদের কন্ট্রিবিউশনের কথা ভেবেই তাঁদের সম্মান জানিয়ে টিকিট পাঠিয়ে ছিল ফেডারেশন। আইএফএ বাবুদের হাত ঘুরে সেই টিকিট পৌঁছে যায় প্রাক্তনদের ঘরে। আর তারপর ? বরাদ্দ গ্যালারিতে অচেনা মুখের ঢল। কারো খুড়তুতো ভাই-দাদা তো কারো আবার শ্যালক, শ্যালিকা। আমচা-চামচাদের হাতেও নিজের বরাদ্দ টিকিট গুঁজে দিচ্ছেন প্রাক্তনরা। নাম, প্রমাণ সব আছে। নামগুলি সবাই জেনেও চুপ থাকছেন

টিকিট ঘিরে যা হচ্ছে, তা একেবারেই মেনে নেওয়া যায় না। বিশ্বকাপের একটা টিকিটের জন্য হাহাকার চলছে ময়দানে। সেলফি তুলে ফেসবুকে পোস্টের জন্য তো অন্যদিনও যুবভারতী অবারিত দ্বার। ম্যাচের দিনগুলো না হয় আমচা-চামচা, শ্যালক-শ্যালিকাদের ড্রইংরুমে নিজের সঙ্গেই রাখুন। আর টিকিট পেয়েও যারা মাঠে যাচ্ছেন না, তারা সেগুলি নিজেদের কাছে জমিয়ে রেখেই বা কী করবেন, তা ভেবে পাচ্ছেন না ফিফা কর্তারাও !

First published: October 17, 2017, 5:35 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर