ফুটবল নিয়ে ছেলেখেলা করে যেন! আট বছরের মেয়েকে দেখে অবাক খোদ মেসি

আট বছর বয়সেই তার ফুটবল স্কিল মেসির মতো ফুটবল বিশ্বের মহাতারকাকে অবাক করে দিয়েছে।

আট বছর বয়সেই তার ফুটবল স্কিল মেসির মতো ফুটবল বিশ্বের মহাতারকাকে অবাক করে দিয়েছে।

  • Share this:

    #বুয়েনস আইরেস:

    মাত্র আট বছর বয়স তার। কিন্তু এই বয়সেই সে যা করতে পারে অনেক তাবড় ফুটবলার হতো পারবেন না। ফুটবল তার পায়ে পড়লে যেন কথা বলে! ফুটবল নিয়ে সে ছেলেখেলা করতে পারে। ফুটবল যেমন খুশি নাচাতে পারে সে। দুই পায়ে, কখনো মাথায়, কখনো কাঁধে! অসাধারণ তার ফুটবল স্কিল। ছোট থেকেই লিওনেল মেসির ভক্ত ছোট্ট মেয়েটি। অবশ্য ছোট থেকে বললে বাড়াবাড়ি হবে। এখনও তো সে ছোটই। ফেলিসিতাস ফ্লোরেস জীবনে একটাই স্বপ্ন দেখেছিল। কোনও একদিন মেসির সঙ্গে তার সামনাসামনি দেখা হবে। সেই স্বপ্ন পূরণের জন্য তার গোটা জীবন পড়ে রয়েছে। তবে আট বছর বয়সেই তার ফুটবল স্কিল মেসির মতো ফুটবল বিশ্বের মহাতারকাকে অবাক করে দিয়েছে। এটাই বা স্বপূরণের থেকে কম কী!

    ফ্লোরেস তার ফুটবল স্কিল-এর ভিডিও আপলোড করেছিল সোশ্যাল মিডিয়ায়। সেই ভিডিওর গোটাটাই জুড়ে ছিল তার ফুটবল স্কিল। বল কখনো তার ডান পায়ে, কখনো বাঁয়ে, কখনো মাথায়, কখনো কাঁধে। ফুটবল যেন তার শরীরের সঙ্গে কথা বলছিল। সেই ভিডিও দেখে অনেকেই অবাক হয়েছেন। তবে মেসি অবাক হয়ে যাবেন তা হয়তো ফ্লোরেস কখনো ভাবেনি। আর্জেন্টিনার মহাতারকা আট বছরের মেয়ের ভিডিও দেখার পর রিপ্লাই দিয়েছেন। লিখেছেন, সবটাই তোমার অধ্যাবসায়ের ফল। তোমাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ। তোমার এই ভিডিও আমি দেখেছি। আমার তোমাকে জিনিয়াস বলে মনে হয়েছে।

    ফ্লোরেস আসলে এটাই চেয়েছিল। সে তার আইডল লিওনেল মেসির জন্যই সেই ভিডিও আপলোড করেছিল। তার যাবতীয় ফুটবল স্কিল প্রিয় মেসিকেই সে উৎসর্গ করেছিল। তার উদ্দেশ্য সফল। মেসি আপাতত কোপা আমেরিকার জন্য মনোসংযোগ করেছেন। বিশ্বকাপ ও কোপা, কোনওটাই এখনো আর্জেন্টিনার অধিনায়ক হিসেবে জেতা হয়নি তাঁর। এদিকে ফুটবলপ্রেমীদের একাংশের দাবি, বিশ্বকাপ বা কোপা না জিতলে মেসির শ্রেষ্ঠত্বের প্রমাণ হবে না। আর তাই মেসিওও যেন এই দুই খেতাব জেতার জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছেন! এসবের মাঝে তিনি ভক্তদের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষাও করে চলেছেন। আসলে ভক্তদের জন্যেই তো তাদের অস্তিত্ব, তাই না!

    Published by:Suman Majumder
    First published: