Euro 2020: ইউক্রেনের ইউরো জার্সি নিয়ে বড় বিতর্ক! রেগে ফায়ার রাশিয়া

হলুদ রঙের সুন্দর দেখতে একটা জার্সি। তা নিয়ে এত বিতর্ক কীসের!

হলুদ রঙের সুন্দর দেখতে একটা জার্সি। তা নিয়ে এত বিতর্ক কীসের!

  • Share this:

    #লন্ডন: এখনও টুর্নামেন্ট শুরুই হল না। তার আগেই বিতর্ক। ইউরো কাপের জন্য জার্সি উন্মোচন করেছে ইউক্রেন। আর সেই জার্সি নিয়েই যত ঝামেলা। ইউক্রেনের জার্সি নিয়ে তীব্র বিরোধিতা করছে রাশিয়া। আসলে ইউক্রেনের জার্সিতে একটি মানচিত্র আঁকা হয়েছে। সেই মানচিত্রে ক্রিমিয়াকে নিজেদের দেশের অংশ হিসাবে দেখিয়েছে ইউক্রেন। রাশিয়া মনে করে, ক্রিমিয়া তাদের দেশের অংশ। তা হলে ইউক্রেন কী করে মানচিত্রে ক্রিমিয়াকে নিজেদের দেশ বলে দাবি করে! ২০১৪ সালে ক্রিমিয়ার উপর কর্তৃত্ব কায়েম করেছিল রাশিয়া। তার পর অবশ্য অনেক সময় পেরিয়েছে। তবুও ক্রিমিয়ার উপর নিজেদের অধিকার ছাড়তে চায় না রাশিয়া।

    ক্রিমিয়া তাদের দেশের অংশ, রাশিয়ার এমন দাবির কোনও আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি নেই। রাষ্ট্রসংঘ ক্রিমিয়াকে আবার ইউক্রেনের অংশ হিসাবেই মনে করে। তবে ইউক্রেনের ইউরো জার্সিকে আসলে রাজনৈতিক উস্কানি বলে মনে করছে রাশিয়া। মস্কো প্রশ্ন তুলেছে, ফুটবল জার্সিতে অকারণে মানচিত্র দেখানোর কোনও কারণ ছিল না। ইউক্রেন বিতর্কের জন্ম দিতেই ক্রিমিয়াকে নিজেদের অংশ হিসাবে দেখিয়ে জার্সিতে মানচিত্র এঁকেছে বলে দাবি রাশিয়ার। তবে ইউক্রেন এই ব্যাপারে কোনও প্রতিক্রিয়া দেয়নি। রাশিয়ার দাবিকে যেন তারা আমলই দিচ্ছে না। ২০১৪ থেকেই ইউক্রেন ও রাশিয়ার সম্পর্কের অবনতি হয়েছে। সেই সম্পর্ক এখনও ঠিকঠাক হয়নি।

    রাশিয়ার বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র মারিয়া জখারোবার দাবি করেছেন, জার্সিতে মানচিত্র আঁকা আসলে রাষ্ট্রবিরোধী কাজ। এমনকী ইউক্রেন যে স্লোগান জার্সিতে লিখেছে সেটাতেও যেন নাত্জি ঘেঁষা। গত রবিবার জার্সি উন্মোচন করেছে ইউক্রেন। তার পর থেকেই বিবাদের সূত্রপাত। হলুদ রঙের সেই জার্সিতে মানচিত্রের পাশাপাশি লেখা- ইউক্রেনের জয়। জার্সির ভিতরে আবার লেখা- বীরদের জয়। এই দুটি স্লোগান সাধারণত ইউক্রেনের সেনা ব্যবহার করে। ইউরো কাপে ইউক্রেন রয়েছে গ্রুপ সি-তে। নেদারল্যান্ডস, অস্ট্রিয়া ও নর্থ ম্যাসিডোনিয়া রয়েছে ওই গ্রুপে। ১৩ জুন নেদারল্যান্ডসের বিরুদ্ধে প্রথম ম্য়াচ খেলতে নামবে ইউক্রেন। রাশিয়া রয়েছে গ্রুপ বি-তে। বেলজিয়াম, ডেনমার্ক ও ফিনল্যান্ডের সঙ্গে।

    Published by:Suman Majumder
    First published: