• Home
  • »
  • News
  • »
  • sports
  • »
  • ভারতসেরা বাগান!‌ ট্রফি নিয়ে ক্লাবে ফিরতেই শুভেচ্ছা মুখ্যমন্ত্রীর

ভারতসেরা বাগান!‌ ট্রফি নিয়ে ক্লাবে ফিরতেই শুভেচ্ছা মুখ্যমন্ত্রীর

‌ছবি:‌ মোহনবাগান অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ

‌ছবি:‌ মোহনবাগান অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ

এদিন একটি পাঁচতারা হোটেলে মোহনবাগানের হাতে ট্রফি তুলে দিল ফেডরশন। ২০১৯-২০ মরশুমের চ্যাম্পিয়নশিপ ট্রফি এদিন তুলে দেওয়া হল।

  • Share this:

    #‌কলকাতা:‌ স্বপ্নের দৌড় ছিল শেষ আই লিগে। মোহনবাগান সবাইকে পরাস্ত করে লিগ টেবিলের শীর্ষে থেকে শেষ করেছিল। ছিনিয়ে নিয়েছিল ভারত সেরার সম্মান। কিন্তু আই লিগ জয়ের ট্রফি বাগানে তখন আসেনি। কারণ করোনা ভাইরাস সংক্রমণের ফলে সব কিছুই বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। তাই এতদিন, মানে প্রায় আটমাস বাদে আই লিগের ট্রফি ঢুকল মোহবাগানের ঘরে।

    এদিন একটি পাঁচতারা হোটেলে মোহনবাগানের হাতে ট্রফি তুলে দিল ফেডরশন। ২০১৯-২০ মরশুমের চ্যাম্পিয়নশিপ ট্রফি এদিন তুলে দেওয়া হল। ট্রফি দেওয়ার অনুষ্ঠানও খুব বড় করে কিছু করা হয়নি। কোভিড পরিস্থিতিতে কলকাতার একটি পাঁচতারা হোটেলে ট্রফি প্রদান করা হয়। উপস্থিত ছিলেন টুটু বসু–সহ ক্লাব কর্তারা। তাঁরা ট্রফি নিয়ে এদিন শহর পরিক্রমা করেন। উল্টোডাঙা থেকে মোহনবাগান লেন হয়ে ট্রফি ক্লাবে যায়। এদিন রাস্তায় ছিল সবুজ মেরুন পতাকার ভিড়। একদিকে কলকাতা শহর সেজে উঠছে দুর্গাপুজোর আয়োজনে। ঠিক তার মুখে এদিন সবুজ মেরুন জনতা দলে দলে হাজির হয়েছিলেন পথে। কেউ গাড়িতে, কেউ পায়ে হেঁটে কাঁধে ক্লাবের পতাকা নিয়ে চললেন ট্রফির সঙ্গে সঙ্গে। কলকাতার একটি বড় অংশের রং এদিন হয়ে উঠলো সবুজ মেরুন। পাল তোলা নৌকা নিয়ে সমর্থকরা চললেন মহানন্দে। একদিকে ইস্টবেঙ্গলের ঘরে অনেকদিন ধরে আইলিগ নেই, তার মধ্যেই দু’‌বার, মোট পাঁচবার ভারত সেরা হয়ে বাহুবল যে বাগান সমর্থকরা প্রকাশ করবেন, সেটা জানাই ছিল।

    তবে এবার ক্লাবের সেলিব্রেশনে সদস্য সমর্থকদের থাকার অনুমতি নেই। আগামী ১ নভেম্বর থেকে ক্লাবে রাখা থাকবে ট্রফি, সেটি দেখতে পারবেন সাধারণ সদস্য, সমর্থকরা। এদিন ট্যুইট করে শুভেচ্ছা জানান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি এদিন লেখেন, ‘‌আই লিগ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার জন্য মোহনবাগানকে শুভেচ্ছা জানাই। অসাধারণ এক সাফল্য পেল ক্লাব। তাঁদের আগামী দিনের জন্যও আমার পক্ষ থেকে রইল শুভেচ্ছা। আইএসএল–এ এটিকে মোহনবাগান হিসাবে খেলে দল সাফল্য পাক, আমরা সেটাই চাইব।’‌

    Published by:Uddalak Bhattacharya
    First published: