• হোম
  • »
  • খবর
  • »
  • খেলা
  • »
  • FOOTBALL BRAZILIAN SUPERSTAR NEYMAR IS HEARTBROKEN AT THE LOSS OF HIS DEAR FRIEND BRAZILIAN SINGER KEVIN NASCIMENTO RRC

প্রিয় বন্ধুকে হারিয়ে এ কী করলেন নেইমার !

শোকে পাথর নেইমার

প্রতিভাবান ব্রাজিলিয়ান সংগীতশিল্পীর মৃত্যুতে অনেকেই শোক জানিয়েছেন। কিন্তু নেইমারের শোক জানানোর সঙ্গে মিশে ছিল খুব কাছের বন্ধুকে হারানোর কান্না। কিছুদিন আগেও দুজনের কথা হয়েছিল

  • Share this:

    #সাও পাওলো: এমনিতেই তিনি বড্ড আবেগপ্রবণ। মাঠের ভেতরেই সেই উদাহরণ দেখা গিয়েছে বহুবার। রাগ, দুঃখ অথবা আনন্দে শিশুর মত উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন ব্রাজিলীয় ফুটবলের এই মুহুর্তের সেরা আইকন। কিন্তু বিশ্ব বিখ্যাত হয়েও প্রিয় বন্ধুদের কাছের মানুষ হিসেবেই রয়ে গিয়েছেন নেইমার দ্য সিলভা। কথা ছিল দেখা হবে...কিন্তু বন্ধু কেভিন নাসিমেন্তো বুয়েনো, সবাই যাঁকে ম্যাক কেভিন নামেই বেশি চেনে, তাঁর সঙ্গে আর কখনই দেখা হবে না নেইমারের। পৃথিবীর মায়া কাটিয়ে না ফেরার দেশে চলে গিয়েছেন নেইমারের খুব ঘনিষ্ট বন্ধু ম্যাক কেভিন।

    কাল ঘুম থেকে উঠেই প্রিয় বন্ধুর মৃত্যুর খবর পেয়েছেন ব্রাজিলিয়ান তারকা। সেই থেকেই মনটা ভারী হয়ে আছে নেইমারের। প্রতিভাবান ব্রাজিলিয়ান সংগীতশিল্পীর মৃত্যুতে অনেকেই শোক জানিয়েছেন। কিন্তু নেইমারের শোক জানানোর সঙ্গে মিশে ছিল খুব কাছের বন্ধুকে হারানোর কান্না। কিছুদিন আগেও দুজনের কথা হয়েছিল। দুই ভুবনের দুই তারকা মিলে পরিকল্পনা করেছিলেন এবারের গ্রীষ্মের ছুটিতে দেখা করবেন। সেই দেখা আর হবে না, শোক জানানোর সময় সে কথা বলতে গিয়ে ভেঙে পড়েছেন নেইমার।

    কেভিনের মারা যাওয়ার খবর শোনার পর ইনস্টাগ্রামে একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন আবেগাপ্লুত নেইমার। ম্যাক কেভিনের ছোট একটি ভিডিও ক্লিপ দিয়ে নেইমার সেখানে লিখেছেন, ‘আমি এটা বিশ্বাসই করতে পারছি না। ওঁর বয়স মাত্র ২৩ বছর ছিল। বুঝতে পারছি না কী বলব। বন্ধু, তুমি আমাকে যে ভালোবাসা দিয়েছ, এর জন্য কৃতজ্ঞ থাকব।’ আগামী গ্রীষ্মের ছুটিতে ম্যাক কেভিনের সঙ্গে দেখা করার কথা জানিয়ে নেইমার লিখেছেন, ‘ছুটির সময় দেখা করার পরিকল্পনা করেছিলাম আমরা। কিন্তু দুঃখ এটাই যে সেটা আর পারছি না আমরা। যদিও আমি নিশ্চিত যে আমরা আলিঙ্গন করব। আমার প্রতি তোমার যে ভালোবাসা ছিল, তার প্রশংসা আমি সব সময়ই করব। বন্ধু, ওপারে চিরশান্তিতে থেকো।’

    ম্যাক কেভিনের মৃত্যু নিয়েও অবশ্য তৈরি হয়েছে ধোঁয়াশা। রিও ডি জেনিরোর একটি হোটেলের পাঁচতলা থেকে পড়ে গিয়ে তাঁর মৃত্যু হয়েছে। অনেকে বলছেন এটি আত্মহত্যা। নারীঘটিত ব্যাপার কিনা উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: